syed moyajjem ali

নিজস্ব প্রতিনিধি, শিলিগুড়ি: ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে তিস্তা জলবন্টন চুক্তি নিয়ে আশাবাদী বাংলাদেশ সরকার। বাংলাদেশ সরকারের আশা, ভারত ও পশ্চিমবঙ্গ সরকার দু’ দেশের পারিষ্পরিক সম্পর্ক ও মেলবন্ধন মাথায় রেখে দ্রুত চুক্তি সম্পাদনে সদর্থক ভূমিকাই নেবে। শুক্রবার শিলিগুড়িতে এই মন্তব্য করেন দিল্লিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাই কমিশনার সৈয়দ মুয়াজ্জম আলী।

সম্প্রতি দার্জিলিং সফরে গিয়েছিলেন মোয়াজ্জেমবাবু। শুক্রবার দিল্লি ফেরার পথে শিলিগুড়িতে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন তিনি। বিখ্যাত সাহিত্যিক সৈয়দ মুজতবা আলির ভাইপো হিসেবে তিনি গর্বিত, এই কথা বলে তিনি বলেন, “দুই বাংলার মধ্যে সম্পর্ক খুব ভালো, কৃষ্টি ও সংস্কৃতির সম্পর্ক খুবই মজবুত। কিন্তু কিছু সমস্যাও আছে। বছরে ন’টা মাস চাষবাসের জন্য বাংলাদেশের কাছে পর্যাপ্ত পরিমাণ জল থাকে। কিন্তু তিন মাস নদীনালা সব শুকিয়ে যায়। জল পাওয়া যায় না। তাই আমরা তিস্তা নিয়ে চুক্তি চাইছি। ২০১১-তেও খসড়া চুক্তি সম্পাদিত হয়েছিল। ভারত সরকার আমাদের আশ্বাস দিয়েছে চুক্তি দ্রুত সম্পাদিত করার। পশ্চিমবঙ্গ কিছু সময় চেয়েছে।”

মোয়াজ্জেমবাবুর আশা, তিস্তাচুক্তি দ্রুত সম্পাদিত হবে। উল্লেখ্য, কেন্দ্র তিস্তাচুক্তির ব্যাপারে রাজি থাকলেও, উত্তরবঙ্গের পরিস্থিতির কথা বিবেচনা করে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের এ ব্যাপারে কিছু আপত্তি রয়েছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here