bhima koregaon violence
ছবি: ইন্ডিয়া টুডে থেকে

পুনে: এ বছর ১ জানুয়ারি ভিমা-কোরেগাঁও হিংসার জন্য গ্রেফতার করা হয়েছিল ভরভরা রাও-সহ একাধিক ‘শহুর‍ে নকশালদের’। কিন্তু আদতে এই হিংসার পেছনে দায়ী মিলিন্দ একবোটে এবং শম্ভাজি ভিড়ের মতো কয়েক জন হিন্দুত্ববাদী নেতা। এমনই রিপোর্ট জমা দিল একটি তথ্যসন্ধানী কমিটি।

পুনে রুরাল পুলিশের কাছে মঙ্গলবার এই রিপোর্ট জমা দিয়েছে কমিটি। কমিটির নেতৃত্বে ছিলেন পুনের ডেপুটি মেয়র সিদ্ধার্থ ধেনদে।

এই ঘটনার তদন্তে মহারাষ্ট্র সরকারের তরফ থেকে দুই সদস্যের বিচারবিভাগীয় কমিটি তৈরি করা হয়েছে। সেই সঙ্গে একাধিক স্বাধীন কমিটিও নিজেদের মতো করে তদন্ত করে চলেছে। এমনই একটি কমিটির নেতৃত্বে ছিলেন ধেনদে।

রিপোর্টের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “যেখানে যেখানে হিংসার ঘটনা ঘটেছে, সেই সব জায়গায় আমাদের কমিটির সদস্যরা গিয়েছিল। অনেক গ্রামবাসী এবং পুলিশকর্মীর সঙ্গে কথা বলেছি আমরা।”

আরও পড়ুন ভিমা-কোরেগাওঁ হিংসার আগের দিন কারা আয়োজন করেছিল এলগার পরিষদ, স্পষ্ট জানালেন দুই প্রাক্তন বিচারপতি

তিনি আরও বলেন, “তদন্তের পরে আমরা বুঝতে পেরেছি যে এই হিংসা আগে থেকেই পরিকল্পিত ছিল। আগে থেকেই ঘটনাস্থলে লাঠি এবং পাথর মজুত রাখা হচ্ছিল।” একবোটে এবং ভিড়ের নাম উল্লেখ করা হয়েছে রিপোর্টে। ধেনদে বলেন, “এই হিংসার পেছনে একবোটে এবং ভিড়ের হাত রয়েছে। এ ছাড়াও হাত রয়েছে কয়েক জন পুলিশকর্মীর, যারা সঠিক সময় সঠিক পদক্ষেপ করেনি।” অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কড়া শাস্তি দাবি করা হয়েছে রিপোর্টে।

এই হিংসার পর থেকে বারবার এই দু’জনের নাম উঠে এসেছে। এদের গ্রেফতার করার দাবিও উঠেছে একাধিকবার। কিন্তু এখনও সেই পথে হাঁটেনি পুনে পুলিশ। উলটে ভরভরা রাও-সহ একাধিক সমাজকর্মীকে ‘শহুরে নকশাল’ তকমা দিয়ে গ্রেফতার করেছে।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন