করোনায় ক্লাস করাননি, বিবেকের ডাকে ৩ বছরের বেতন বাবদ প্রায় ২৪ লক্ষ টাকা ফেরালেন অধ্যাপক

0

পটনা: বিহারের মুজফ্‌ফরপুরের নীতীশেশ্বর কলেজের একজন সহকারী অধ্যাপক লালন কুমার। করোনা মহামারির জেরে দু’বছরেরও বেশি সময় ধরে ক্লাস করাননি। মানবিকতার অনন্য দৃষ্টান্ত গড়ে বেতন বাবদ পাওয়া ২৩ লক্ষ টাকারও বেশি ফেরত দিলেন কলেজ কর্তৃপক্ষকে।

কেন টাকা ফেরালেন অধ্যাপক?

মিডিয়ার সঙ্গে কথা বলার সময় অধ্যাপক বলেন, এই টাকা নিতে তাঁর বিবেক তাঁকে অনুমতি দেয়নি। ছাত্র-ছাত্রীদের শিক্ষা দেওয়ার বিনিময়েই তাঁকে বেতন দিয়ে নিয়োগ করা হয়েছিল। কিন্তু অনলাইনে নামমাত্র ক্লাস হলেও কলেজে গিয়ে তিনি তো শিক্ষাদান করেননি!

লালন কুমার বলেন, “আমার বিবেক আমাকে শিক্ষা না দিয়ে বেতন নেওয়ার অনুমতি দেয় না।…এমনকী অনলাইন ক্লাস চলাকালীন, হিন্দি ক্লাসের জন্য মাত্র কয়েকজন ছাত্র উপস্থিত থাকতেন”।

কত টাকা ফেরালেন অধ্যাপক?

বিহারের রাজ্য বিশ্ববিদ্যালয় বিআর আম্বেদকর বিহার ইউনিভার্সিটির রেজিস্ট্রারকে ২৩ লক্ষ ৮২ হাজার ২২৮ টাকা ফেরত দিয়েছেন অধ্যাপক।

এ প্রসঙ্গে লালন কুমার বলেন, “আমি পাঁচ বছর শিক্ষকতা না করে বেতন নিলে তা হবে আমার জন্য একাডেমিক মৃত্যু। আমি আমার ভেতরের কথা শুনে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম, দু’বছর ন’মাসের বেতন বিশ্ববিদ্যালয়ে ফেরত দেব”।

কী বলছেন কর্তৃপক্ষ?

লালন কুমারের এই পদক্ষেপের প্রশংসা করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার আরকে ঠাকুর, কলেজের অধ্যক্ষ মনোজ কুমার। ফেরত টাকা স্নাতকোত্তর বিভাগে স্থানান্তর করা হবে বলে জানিয়েছেন তাঁরা।

৩৩ মাসের বেতন ফেরত দেওয়ার কারণ সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করলে মনোজ কুমার বলেন, লালন কুমার কলেজে যোগ দেওয়ার কয়েক মাস পরে বিশ্ব করোনাভাইরাস মহামারিতে আক্রান্ত হয়। তারপর থেকে অনলাইন ক্লাস চালু করেছিল কলেজ।

আরও পড়তে পারেন:

‘মানুষকে বোঝাতে পেরেছি যে দার্জিলিং বাংলার মধ্যেই’, মমতার সঙ্গে সাক্ষাতের পর বললেন অনীত

দক্ষিণ ভারতকে পাখির চোখ বিজেপির, রাজ্যসভায় মনোনীত পিটি ঊষা-সহ চার

আগের সাত দিনের তুলনায় গত সাত দিনে দৈনিক সংক্রমণ বৃদ্ধির হার কমেছে পশ্চিমবঙ্গে

প্রাপ্তবয়স্কদের দ্বিতীয় ও বুস্টার টিকার মধ্যে ব্যবধান কমে ৬ মাস

ভূমিকম্পে বিধ্বস্ত আফগানিস্তানকে বাংলাদেশের মানবিক সহায়তা

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন