মাতৃত্বকালীন ছুটি  ৩ মাস থেকে বাড়িয়ে ৬ মাস করার পথে আরও কিছুটা এগোনো সম্ভব হল। বৃহস্পতিবার রাজ্যসভায় এ সংক্রান্ত বিলটি পাশ করা হয়।

‘মেটারনিটি বেনিফিট (আমেন্ডমেন্ট) বিল ২০১৬’-এয়  মাতৃত্বকালীন নানা সুবিধার পরিধি আরও বাড়ানো হয়েছে। প্রস্তাব করা হয়েছে, যে সব কোম্পানিতে ১০-এর বেশি লোক কাজ করেন, সেখানেই এই ছুটির নিয়ম মানতে হবে।  তবে ২৬ সপ্তাহ মাতৃত্বকালীন ছুটি পাওয়ার ক্ষেত্রে একটা শর্ত আছে। এক মাত্র যাঁদের সর্বাধিক দু’টি জীবিত সন্তান আছে তাঁরাই শুধু এই সুবিধা পাবেন। যদি সন্তানের সংখ্যা দুইয়ের বেশি হয়, তা হলে আগের মতো ১২ সপ্তাহ ছুটিই মিলবে।

তবে এই বিলের একটা যুগান্তকারী দিক হল, ‘কমিশনিং মাদার’ আর ‘আডপ্টিং মাদার’দের ক্ষেত্রেও মাতৃত্বকালীন ছুটির ব্যবস্থা করা। অর্থাৎ যে সব মা অন্যের জন্য সন্তান ধারণ করবেন বা যাঁরা সন্তান দত্তক নেবেন বিলে তাঁদের জন্য ১২ সপ্তাহের মাতৃত্বকালীন ছুটির ব্যবস্থা করা হয়েছে।          

বৃহস্পতিবার রাজ্যসভায় বিল পেশ করে শ্রমমন্ত্রী বান্দারু দত্তাত্রেয় বলেন, এই বিলের উদ্দেশ্য হল কর্মরতা মহিলার সংখ্যা বাড়ানো। কারণ দিনের পর দিন কাজের ক্ষেত্রে মহিলাদের যোগদান ক্রমশ কমে যাচ্ছে।

‘মেটারনিটি বেনিফিট অ্যাক্ট’ ১৯৬১-এর সাহায্যে কর্মরতা গর্ভবতী মহিলারা  তাঁদের কর্মস্থলে বিশেষ কিছু সুযোগ-সুবিধা ভোগ করেন। এর সাহায্যে মাতৃত্বকালীন সময়ে সবেতন ছুটিতে থেকে নবজাতকের যত্ন নেওয়ার অধিকার পান মায়েরা। সংশোধনী বিলের সাহায্যে এই ছুটিকেই বাড়িয়ে ২৬ সপ্তাহ করার পাশাপাশি, এই আইন যাতে ১০ বা তাঁর বেশি জন কর্মী নিয়ে গঠিত সরকারি, বেসরকারি সব ক্ষেত্রেই  যে কোনও কোম্পানিতেই কার্যকর করা হয় তার ব্যবস্থা করা হয়েছে।  

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here