কৃষক আনন্দোল। ছবি: ইন্ডিয়া টুডে/রয়টার্সের সৌজন্যে

নয়াদিল্লি: তিন বিতর্কিত কৃষি আইন প্রত্যাহারে একটি বিল অনুমোদন করল নরেন্দ্র মোদী মন্ত্রীসভা। সূত্রের খবর, পূর্ব পরিকল্পনা মতোই বুধবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রীসভায় বিলটি অনুমোদিত হল।

গত সপ্তাহে বিতর্কিত তিন কৃষি আইন প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ২০২০ সালের সেপ্টেম্বর মাসে সংসদে পাশ হয়েছিল এই তিনটি আইন। নতুন আইনগুলিতে উল্লেখ রয়েছে অত্যাবশ্যকীয় পণ্য সংশোধনী, মান্ডির বাইরে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কৃষকদের সরাসরি চুক্তিতে ছাড়পত্র এবং কৃষিতে চুক্তিচাষ শুরু করার বিধি সংক্রান্ত বিষয়গুলি।

আইনগুলো প্রত্যাহারের দাবিতে কয়েক হাজার কৃষক এক বছরেরও বেশি সময় ধরে আন্দোলন চালিয়ে আসছেন দিল্লি সীমানায়। গত শুক্রবার জাতির উদ্দেশে ভাষণে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন, তিনটি কৃষি আইন কৃষকদের সুবিধার জন্য আনা হয়েছিল কিন্তু তাঁর সরকার সব রকমের প্রচেষ্টা করা সত্ত্বেও কৃষকদের একটি অংশকে রাজি করতে পারেনি”। এ ব্যাপারে দেশের মানুষের কাছে ক্ষমাপ্রার্থনা করে মোদী বলেন, “আমরা কৃষকদের বোঝাতে পারিনি। আমাদের প্রচেষ্টায় অবশ্যই কিছু ঘাটতি ছিল, যে কারণে আমরা কিছু কৃষকদের বোঝাতে পারিনি”।

সংসদের শীতকালীন অধিবেশন শুরু হবে ২৯ নভেম্বরে। চলবে প্রায় এক মাস ধরে। শীতকালীন অধিবেশনের সমাপ্তির দিন হল ২৩ ডিসেম্বর। ওই সময়কালের মধ্যেই আইন তিনটি প্রত্যাহারের জন্য প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে পারে কেন্দ্র। যে কোনো আইন যে ভাবে প্রণয়ন করা হয়, একই পদ্ধতিতে প্রত্যাহার করা হয়ে থাকে। ফলে আইন প্রণয়ন যে ভাবে হয়েছিল সে ভাবেই আইন প্রত্যাহারের বিলটিকে সংসদে পেশ করতে হবে কেন্দ্রীয় সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রককে। এর পর সংসদে এই বিষয়ে ভোটাভুটি হবে।

কৃষক নেতৃত্ব অবশ্য স্পষ্ট করেই জানিয়ে দিয়েছেন, মুখের কথায় চিড়ে ভেজে না। যতক্ষণ না সংসদে আইনগত ভাবে তিন কৃষি আইন প্রত্যাহার হচ্ছে এবং যতক্ষণ না ফসলের ন্যূনতম মূল্যের আইনি গ্যারান্টি মিলছে এবং বিদ্যুৎ বিল প্রত্যাহার হচ্ছে, ততক্ষণ আন্দোলন জারি থাকবে। কৃষক নেতৃত্ব শেষ দাবি আদায় পর্যন্ত লড়াই চালিয়ে যেতে বদ্ধপরিকর।

আরও পড়তে পারেন

দূষণের গেরো কাটিয়ে সোমবার থেকে স্কুল, কলেজ খুলছে দিল্লিতে

স্কুলে চতুর্থ শ্রেণির কর্মী নিয়োগ: সিবিআই তদন্তের নির্দেশে স্থগিতাদেশ ডিভিশন বেঞ্চের

রেল আবার রান্না করা খাবার সরবরাহ করবে ট্রেনযাত্রায়

জুড়ছে নতুন সুবিধা, চাকরি পরিবর্তন করলেও ইপিএফ নিয়ে এই বাড়তি চিন্তা করতে হবে না কর্মীদের

ডিজিটাল মুদ্রা নিয়ন্ত্রণে বিল আনছে কেন্দ্র, খবর প্রকাশ্যে আসতেই পতন ক্রিপ্টোর দামে

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন