karnataka foundation day
কর্নাটকে পালিত হচ্ছে রাজ্যৎসব

ওয়েবডেস্ক: স্বাধীন ভারতের ইতিহাসে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ দিন ১ নভেম্বর। বৃহস্পতিবার ভারতের সাতটি রাজ্য তাদের জন্মদিন পালন করছে। একবার দেখে নেব সেই রাজ্যগুলি কী কী।

১. কর্নাটক

১ নভেম্বর কর্নাটক রাজ্যোৎসব হিসেবে পালিত হয়। ১৯৫৬ সালে আজকের দিনেই জন্ম নিয়েছিল এই রাজ্য। ১৯৫০ সালে ভারত প্রজাতন্ত্র হওয়ার পরে ভাষার ভিত্তিতে রাজ্যের দাবি আরও জোরালো হয়। সেই দাবি মেনেই ছ’বছর পর পথ চলা শুরু এই রাজ্যের। প্রথমে নাম দেওয়া হয়েছিল মহীশুর। কিন্তু সেই নামে অধিকাংশ মানুষের আপত্তি থাকায় পরিবর্তন করে কর্নাটক করা হয়।

২. কেরল

কর্নাটকের মতো কেরলেরও জন্ম ১৯৫৬ সালের আজকের দিনেই। এই দিনটিকে ‘কেরল পিরাভি দিনম’ হিসেবে পালন করা হয়। মালাবার, কোচিন এবং ত্রিবাঙ্কুর নামক তিনটি স্বাধীন অঞ্চলকে সম্বিলিত করে গঠন করা হয় কেরল।

৩. ছত্তীসগঢ়

২০০০ সালের আজকের দিনেই মধ্যপ্রদেশ থেকে ভেঙে জন্ম হয় নতুন রাজ্য ছত্তীসগঢ়ের। আয়তনে এই রাজ্য ভারতের দশম বৃহত্তম রাজ্য।

৪. হরিয়ানা

হরিয়ানার জন্মও আজকের দিনেই। ১৯৬৬ সালের ১ নভেম্বর তৎকালীন পূর্ব পঞ্জাব থেকে গঠন হয়ে এই রাজ্যের। অনেকাংশে এই রাজ্য তৈরি হওয়া ভারতীয় অর্থনীতির কাছে আশীর্বাদ হয়ে দাঁড়ায়। জন্মানোর কয়েক বছরের মধ্যেই কৃষি ক্ষেত্রে বড়ো অগ্রগতি করে এই রাজ্য।

৫. পঞ্জাব

বৃহত্তম রাজ্য পূর্ব পঞ্জাব ভেঙে পঞ্জাবও তৈরি হয় এই দিনে। পঞ্জাব রাজ্য গঠনের পিছনে আন্দোলনের নেতৃত্বে ছিল অকালি দল। তাদের দাবি ছিল পূর্ব পঞ্জাব ভেঙে হিন্দিভাষীদের জন্য হরিয়ানা এবং পঞ্জাবিভাষীদের জন্য পঞ্জাব গঠন করা হোক।

৬. রাজস্থান

১৯৫৬ সালের আজকের দিনেই গঠিত হয়েছিল রাজস্থান। অজমেঢ়, আবুরোড, সিরোহি, তালুকা, ঝালোয়ার, এই স্বাধীন অঞ্চলগুলিকে একসঙ্গে নিয়ে তৈরি হয় এই রাজ্য, যা বর্তমানে ভারতের বৃহত্তম রাজ্য হিসেবে পরিচিত।

৭. মধ্যপ্রদেশ

১৯৫৬ সালের আজকের দিনেই তৈরি হয়েছিল বর্তমানে ভারতের দ্বিতীয় বৃহত্তম রাজ্য মধ্যপ্রদেশ।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here