ওয়েবডস্ক: ফের এনডিএ থেকে বেরিয়ে যাওয়ার হুঁশিয়ারি দিল উত্তরপ্রদেশের সুহেলদেব ভারতীয় সমাজ পার্টি (এসবিএসপি)। শুধু তাই নয়, একই সঙ্গে বিজেপির উদ্দেশে চরমবার্তা দিয়ে জানিয়ে দিল, আগামী লোকসভা ভোটে তারা অখিলেশ যাদব-মায়াবতীর জোটে যোগ দিতে পারে।

দলের সাধারণ সম্পাদক অরুণ রাজভর রবিবার সংবাদ সংস্থা পিটিআই-কে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে এ কথা জানান। অর্জুন বলেন, “বিজেপি আমাদের দাবি-দাওয়াগুলোতে কোনো রকমের গুরুত্ব দেয়নি। সেই কারণেই আমরা এনডিএ ছেড়ে দেওয়ার চিন্তাভাবনা করছি”।

একই সঙ্গে তিনি বলেন, “গেরুয়া শিবির যদি আগামী ২৪ ফেব্রুয়ারির মধ্যে সামাজিক ন্যায়বিচার কমিটি তৈরি না করে তা হলে আমরা এনডিএ ছেড়ে দেব। তেমন হলে আমরা উত্তরপ্রদেশের ৮০টি আসনেই প্রার্থী দেব”।

অর্জুনের দাবি, “এ ব্যাপারে আমরা বিজেপি-বিরোধী অখিলেশ যাদব এবং মায়াবতীর জোটের সঙ্গেও যোগাযোগ রাখছি। দুই দলের সঙ্গে আমাদের একাধিক বার আলোচনা হয়েছে। তবে আগামী ২৪ ফেবরুয়ারি পর্যন্ত সময় দিতে চাই বিজেপিকে”।

তবে এই প্রথমবার নয়, উত্তরপ্রদেশ মন্ত্রিসভার এসবিএসপি সদস্য ওমপ্রকাশ রাজভর এর আগেও একাধিক বার কড়া বাক্যবাণে বিদ্ধ করেছেন সে রাজ্যের যোগী আদিত্যনাথ সরকারকে। তিনি প্রকাশ্যে দাবি করেছেন, উন্নয়নের ব্যর্থতা থেকে সাধারণ মানুষের দৃষ্টি সরাতেই মন্দির নিয়ে বিতর্ক জিইয়ে রেখেছে সরকার। গরিব মানুষের উন্নয়নে মনোযোগ না দেওয়া হলে তিনি মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করার হুঁশিয়ারিও দেন।

তিনি সাফ জানিয়ে দেন, “আমি ক্ষমতার স্বাদ নেওয়ার জন্য মন্ত্রী হইনি। গরিবের স্বার্থে লড়াই করার জন্যই এই সরকারকে আমরা সমর্থন জানিয়েছি। ফলে বিজেপির দাসত্ব করার কোনো প্রশ্নই ওঠে না। ভাবতে অবাক লাগে সরকারের শরিক হয়েও আমরা দলীয় কার্যালয় গড়ার অনুমতি পাচ্ছি না”।

[ আরও পড়ুন: এ বার প্রিয়ঙ্কা গান্ধীর পোশাক নিয়ে কটাক্ষ বিজেপি সাংসদের ]

তিনি বিজেপির উদ্দেশে চরমবার্তা দিয়ে এমনও বলেছেন, ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের আগে নীতি গৃহীত না হলে তার প্রভাব পড়বে ভোটের বাক্সে। উল্লেখ্য, ওমপ্রকাশ উত্তরপ্রদেশ সরকারের অনগ্রসর কল্যাণ দফতরের মন্ত্রী।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here