BJP

রাঁচি: ঝাড়খণ্ডের ভাগ্য কার্যত সুতোর ওপরে ঝুলে রয়েছে। প্রাথমিক ইঙ্গিতে মনে করা হচ্ছে, কোনো পক্ষই সম্ভবত ম্যাজিক ফিগার পেরোতে পারবে না। যদিও সোমবার সকাল সাড়ে দশটা পর্যন্তও বিজেপির থেকে কিছুটা এগিয়ে রয়েছে কংগ্রেস-জেএমএম-আরজেডি জোট।

এই পরিস্থিতিতে হাল ছাড়তে কোনো ভাবেই রাজি নয় বিজেপি। বরং, ম্যাজিক ফিগারের থেকে পিছিয়ে পড়লেও মসনদ পুনরায় দখল করার চেষ্টা করবে তারা। সে ক্ষেত্রে দুটো আঞ্চলিক দলের ওপরেই ভরসা করছে তারা।

একটি দল হল অল ঝাড়খণ্ড স্টুডেন্টস ইউনিয়ন (আজসু) এবং অন্যটি হল ঝাড়খণ্ড বিকাশ মোর্চা।

২০১৪ সালে বিজেপির সঙ্গে জোট গড়েই নির্বাচনে লড়েছিল আজসু। রঘুবর দাসের মন্ত্রিসভাতেও ছিল আজসু। কিন্তু এ বার নির্বাচনের কিছুদিন আগেই বিজেপির সঙ্গত্যাগ করে তারা। একক ভাবে লড়ে। রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের ধারণা, প্রয়োজনে বিজেপির সঙ্গে আবার হাত মেলাতে পিছপা হবে না আজসু।

[ঝাড়খণ্ডের ফলাফলের বর্তমান পরিস্থিতি জেনে নিন]

অন্যদিকে ঝাড়খণ্ডের কয়েকটি আসনে এগিয়ে রয়েছে ঝাড়খণ্ড বিকাশ মোর্চা। এই দলের নেতা রাজ্যের প্রথম মুখ্যমন্ত্রী বাবুলাল মারাণ্ডি। সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই এই দুই দলের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে বিজেপি।

অন্যদিকে ম্যাজিক ফিগার থেকে যদি কংগ্রেস-জেএমএম-আরজেডি জোট পিছিয়ে পড়ে, তা হলে তাদের ভরসা হতে পারে মূলত বিএসপি আর সিপিআইএমএল।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন