petrol and tuticorin

ওয়েবডেস্ক: তুতিকোরিনের স্টারলাইট-কাণ্ডকে কেন্দ্র করে কেন নীরব প্রধানমন্ত্রী? এর আগে বহুচর্চিত কাথুয়া গণধর্ষণ নিয়েও তিনি নীরব ছিলেন। এমনকী জনগণের জ্বলন্ত সমস্যা জ্বালানি তেলের দাম বাড়া নিয়েও তিনি কোনো শব্দ ব্যয় করছেন না।

ঠিক এই ভাষাতেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সমালোচনা করলেন বিজেপি সাংসদ শত্রুঘ্ন সিনহা। বৃহস্পতিবার নিজের টুইটে তিনি লিখেছেন, “নিরীহ সাধারণ মানুষের উপর গুলি চালাতে কে নির্দেশ দিয়েছিল। তামিলনাড়ু তো এখন রীতিমতো ফুটছে। বাগ্মীপুরুষ এ বার মুখ খুলুন”।

সাংসদ হওয়ার পর থেকেই বিজেপির, বিশেষত মোদীর কয়েকটি নির্দিষ্ট পদক্ষেপ নিয়ে তীব্র ভাষায় সমালোচনা করতে ছাড়েন না এই অভিনেতা সাংসদ। সম্প্রতি তাঁকে কখনও আরজেডি প্রধান লালুপ্রসাদ যাদব আবার কখনো বিজেপি-ত্যাগী প্রবীণ নেতা যশবন্ত সিনহার সঙ্গেই দেখা যায়। আবার পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গেও তিনি নিয়মিত যোগাযোগ রেখে চলেন। সম্প্রতি কর্নাটকের বিধানসভা ভোটের পর সরকার গঠন নিয়ে বিজেপির কার্যকলাপেরও সমালোচনা করেছিলেন শত্রুঘ্ন।

আরও পড়ুন: লোকসভা-২০১৯: আসানসোলে তৃণমূলের প্রার্থী হতে পারেন বিজেপির অভিনেতা সাংসদ!

কর্নাটকে সুপ্রিম কোর্টের রায়ে আস্থা ভোট বিজেপির না যাওয়াকে তিনি গণতন্ত্রের জয় হিসাবে উল্লেখ করেছিলেন।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here