mamata-5

কলকাতা: দিল্লির লেফটেন্যান্ট গভর্নর অনীল বাজাজের বাড়ির সামনে ধরনায় বসা মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে পুলিশের বাধার সামনে পড়তে হয়েছে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়-সহ আরও তিন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে। সেই ঘটনার তীব্র নিন্দা করে বিজেপিকে কাঠগড়ায় দাঁড় করালেন সাংসদ শত্রুঘ্ন সিনহা।

গত শনিবার দিল্লিতে প্রধানমন্ত্রীর ডাকা নীতি আয়োগের বৈঠকে যোগ দিতে গিয়েছেন মমতা। সেখানে গিয়ে কর্নাটক, অন্ধ্রপ্রদেশ এবং কেরলেন তিন মুখ্যমন্ত্রী এইচ ডি কুমারস্বামী, চন্দ্রবাবু নায়ডু এবং পিনারাই বিজয়নকে সঙ্গে নিয়ে ধরনাস্থলে যেতে চান মমতা। কিন্তু পথিমধ্যে তাঁদের আটকে দেওয়া হয়। বিরোধীদের অভিযোগ, দিল্লির লেফটেন্যান্ট গভর্নরের নির্দেশ মতোই কাজ করেছে পুলিশ বাহিনী।

আরও পড়ুন: রাহুল-মোদী, দু’জনকেই চিন্তায় ফেলে দিলেন মমতা!

এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে সরব হলেন বিজেপি সাংসদ শত্রুঘ্ন সিনহা। তিনি টুইটারে লেখেন, দলীয় নিরপেক্ষতা বলে আর কিছুই থাকছে না। অরাজক অবস্থা চলছে। দলীয় ক্ষমতাকে ব্যবহার করে মমতা-সহ তিন মুখ্যমন্ত্রীকে আটকে দেওয়া হয়েছে। শত্রুঘ্ন স্পষ্টতই নিজের দলের প্রতি ক্ষুব্ধ হয়ে লিখেছেন, “আমাদের দলের এ হেন আচরণ মানুষকে বিরোধীদের প্রতি আরও আকৃষ্ট করবে। চিন্তাভাবনার রসদ জোগাবে। কেন্দ্রীয় সরকারের উচিত অবিলম্বে কেজরিওয়ালের দাবি-দাওয়া নিয়ে বিবেচনা করা”।

এমনিতে আগেই দিল্লির মানুষের স্বার্থবাহী দাবি নিয়ে ধরনায় বসা কেজরিওয়ালকে সমর্থন করেছেন। শনিবারের ওই ঘটনার পর তিনি এ বিষয়ে একাধিক টুইট করেন।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here