নয়াদিল্লি: কর্নাটকে সরকার গড়তে না পারার পর সোমবার সাংবাদিক সম্মেলন ডেকে দলীয় দৃষ্টিভঙ্গির কথা ব্যক্ত করলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। তবে উপলক্ষ কর্নাটকের নির্বাচন পরবর্তী প্রসঙ্গ হলেও তাঁর বক্তব্যে বারবার উঠে আসে ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে বিজেপি-বিরোধী জোটের কথা।

অমিত বলেন, কর্নাটকে কংগ্রেসকে হারাতে মানুষ বিজেপিকে ভোট দিয়েছে। ফলাফলে স্পষ্ট হয়ে গেছে, একাধিক আসনে জেডি (এস) প্রার্থীর জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে। এমন অনেক কেন্দ্র রয়েছে যেখানে নোটায় প্রাপ্ত ভোটের থেকেও কম ভোটে বিজেপি প্রার্থী পরাজিত হয়েছেন।

এ সবের বাইরের অমিতের নিজস্ব বক্তব্যের অধিকাংশ জুড়েই ছিল আগামী ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনে বিরোধীদের জোট। বিরোধী জোট প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “মধ্যপ্রদেশ নির্বাচনে অখিলেশ যাদব কী করবেন? ওখানে বিজেপি-ই জিতবে। ঠিক যেমন কর্নাটকের নির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কী করতে পারেন”? পাশাপাশি তিনি বলেন, “২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে বিরোধীরা এক জো়ট হলেও বিজেপি-ই জিতবে। সারা দেশের মানুষ কংগ্রেসের বিভাজনের রাজনীতি ধরে ফেলেছে। কর্নাটকে ঘোড়া কেনাবেচার বিষয় আদতে কংগ্রেসের অপপ্রচার”।

আরও পড়ুন: লক্ষ্য দিল্লি, গ্রাম পঞ্চায়েতে উন্নয়ন খাতে অর্থ বরাদ্দ বাড়াচ্ছে রাজ্য

রাজনীতির কারবারিদের ধারণা, সম্ভবত কর্নাটকে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে আস্থা ভোটের আগেই বি এস ইয়েদিয়ুরাপ্পার পদত্যাগ নিয়ে দেশ জুড়ে বিরোধী শিবিরের উচ্ছ্বাস অমিত-সহ বিজেপিকে ভাবিয়ে তুলেছে। কংগ্রেস-জেডি (এস) জোট সরকারে কুমারস্বামীর মুখ্যমন্ত্রীপদে শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে মমতা-সহ বিরোধী নেতৃত্বের অত্যুৎসাহী হয়ে অংশগ্রহণ করাকেই অমিত কটাক্ষ করলেন বলেই ধারণা করা যেতে পারে।

কংগ্রেসের তরফে পাল্টা সাংবাদিক সম্মেলন ডেকে আনন্দ শর্মা দাবি করেন, “অমিত শাহের বক্তব্য় থেকেই স্পষ্ট গণতন্ত্রের প্রতি বিজেপির কতটা শ্রদ্ধা রয়েছে। কর্নাটকে বিজেপি যা করেছে তা লজ্জার। বিধায়ক কিনতে কোটি কোটি টাকার টোপ দেওয়া হয়েছে। বিশ্বের সব থেকে ধনী দল বিজেপি। কংগ্রেস বিধায়কদের উপর চাপ দেওয়া হয়েছিল”।

এমনকী কর্নাটকের ভোটে কেন্দ্রীয় সংস্থাকেও কাজে লাগানোর অভিযোগ তোলে কংগ্রেস। “হয়তো কংগ্রেস বিধায়কদের অপরহণের ছক ছিল। এখন ঘোড়া কেনাবেচা না করতে পেরে কংগ্রেসের বিভাজনের রাজনীতির কথা তুলে ধরা হচ্ছে” বলে দাবি করেন কংগ্রেস নেতা আনন্দ শর্মা।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here