‘গণতন্ত্র রক্ষার স্বার্থে’ কংগ্রেসে যোগ দিচ্ছেন বিজেপি সাংসদ শত্রুঘ্ন সিনহা

0
Rahul Gandhi Congress

ওয়েবডেস্ক: কংগ্রেস সর্বভারতীয় সভাপতি রাহুল গান্ধীর সঙ্গে বৃহস্পতিবার দেখা করলেন বিজেপির বিদ্রোহী সাংসদ হিসাবে পরিচিত অভিনেতা-রাজনীতিক শত্রুঘ্ন সিনহা। এ দিনই তিনি কংগ্রেসে যোগ দিতে পারেন বলে তাঁর ঘনিষ্ঠ সূত্রে খবর।

গত প্রায় সাড়ে তিন বছর ধরেই কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদী সরকারের বিরুদ্ধে লাগাতার তোপ দেগে চলেছেন শত্রুঘ্ন। তবুও তিনি দল ছাড়েননি। উল্টো দিকে বিজেপি-ও তাঁকে বহিষ্কার করেনি। সেই সুযোগের সদ্ব্যবহার করেই ক্রমশ বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলির সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক তৈরি করে নিয়েছেন তিনি। এক দিকে যেমন তিনি বিহারে বিজেপির বিরোধী দল লালুপ্রসাদ যাদবের আরজেডির সঙ্গে সদ্ভাব বজায় রেখে চলেছেন, তেমনই অন্য দিকে তিনি কেন্দ্রের প্রধান বিরোধী দল কংগ্রেসেরও প্রিয়পাত্র হয়ে উঠেছেন।

Rahul Gandhi and Shatrughan Sinha

এ বারের লোকসভা ভোটে তাঁর নিজের কেন্দ্র পটনা সাহিব থেকে যে তিনি বিজেপির টিকিট পাচ্ছেন না, সেটাও জলের মতো স্পষ্ট ছিল তাঁর কাছে। কিন্তু নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা থেকে সরে আসার কোনো লক্ষণই ফুটে ওঠেনি তাঁর গতিপ্রকৃতিতে। উল্টে তিনি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, পরিস্থিতি বদলে গেলেও স্থান বদল হবে না। অর্থাৎ, গত ২০০৯ এবং ২০১৪ সালের লোকসভা ভোটে তিনি যে পটনা সাহিব থেকে জিতে সংসদে গিয়েছিলেন, সেখানেই প্রার্থী হচ্ছেন এ বারও। কিন্তু কোন দলের হয়ে, সেটাই যা ছিল অস্পষ্ট।

উল্লেখ্য, গত শনিবারই পটনা সাহিবে প্রার্থী মনোনীত করেছে বিজেপি। ওই কেন্দ্রে এ বার লড়ছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ। দু’বারের সাংসদ শত্রুঘ্নর সঙ্গে এ ব্যাপারে কোনো আলোচনার প্রয়োজনীয়তাও মনে করেনি বিজেপি। কারণ, শেষ এক বছরে তিনি যে ভাবে বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলির মঞ্চে উঠে কেন্দ্রের এনডিএ সরকারকে তুলোধনা করেছেন, তার পর আর সে সবের বালাই থাকে না।

এ দিন কংগ্রেসের প্রবীণ নেতা শক্তিকান্ত গহিল টুইটারে জানান, দলের সভাপতি রাহুল গান্ধীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন শত্রুঘ্ন সিনহা। জাতীয় স্বার্থেই তিনি কংগ্রেসে যোগ দিতে চান। প্রাথমিক ভাবে তাঁর কংগ্রেসে যোগ দেওয়ার পরিকল্পনা চূড়ান্ত। তবে আগামী ৬ এপ্রিল তিনি আনুষ্ঠানিক ভাবে কংগ্রেস যোগ দেবেন।

একই সঙ্গে দলের আর এক প্রবীণ নেতা আর কে আনন্দ জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার বিকেলেই মৌখিক ভাবে কংগ্রেসে যোগ দেবেন শত্রুঘ্ন। বিদায়ী সাংসদ নিজেও জানিয়েছেন, ‘গণতন্ত্র রক্ষার স্বার্থে’ তিনি কংগ্রেসে যোগ দিচ্ছেন। এর মধ্যে কোনো ধোঁয়াশা নেই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.