মহারাষ্ট্রে বিজেপি-শিবসেনা সরকার গঠনের দায়িত্ব নিলেন অমিত শাহ?

0
Amit Shah and Uddhav

ওয়েবডেস্ক: নির্ধারিত সময় অতিক্রান্ত হয়ে যাওয়ার পরেও সরকার গঠনে কোনো দল এগিয়ে না আসায় মহারাষ্ট্রে জারি হয়েছে রাষ্ট্রপতি শাসন। পাশাপাশি বিজেপি, শিবসেনা, কংগ্রেস এবং এনসিপি প্রত্যেকেই জারি রেখেছে সরকার গঠন নিয়ে আলাপ-আলোচনা। এরই মধ্যে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রামদাস আঠাওয়ালে দাবি করলেন, বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ স্বয়ং মহারাষ্ট্রে বিজেপি-শিবসেনা সরকার গঠনের বিষয়ে তাঁকে আশ্বস্ত করেছেন।

রবিবার ছিল এনডিএ-এর শরিক দলগুলির বৈঠক। সংসদের শীতকালীন অধিবেশন শুরুর আগে এ দিনই শরিক দলের উচ্চনেতৃত্ব বৈঠকে বসেন। সংসদের আলোচ্য বিষয়গুলির উপর জোটবদ্ধ ভাবে কী ভূমিকা পালন করা হবে, সে সব বিষয় নিয়ে বিশদ আলোচনা হয়। ওই বৈঠক থেকেই বেরিয়ে এসে রামদাস মহারাষ্ট্রের সরকার গঠন নিয়ে এই চাঞ্চল্যকর মন্তব্য করেন।

uddhav thackeray and devendra fadnavis
ফাইল ছবি

রামদাস বলেন, “দলের সভাপতি অমিত শাহকে আমি মহারাষ্ট্রে সরকার গঠন নিয়ে মধ্যস্থতার কথা বলি। তখন তিনি আমাকে বলেন, চাপ নিতে হবে না। সব কিছু ঠিক পথেই এগোচ্ছে। বিজেপি এবং শিবসেনা ফের মহারাষ্ট্রে সরকার গঠন করবে”।

যদিও এ দিন এনডিএ-র বৈঠকে যোগ দেয়নি শিবসেনা। তারা বৈঠকের আগেই ঘোষণা করে এ দিনের বৈঠকের শিবসেনা অংশ নেবে না। শিবসেনার ওই বৈঠকের পরেই কেন্দ্রীয় সংসদ বিষয়কমন্ত্রী প্রহ্লাদ যোশী জানান, সংসদের উভয় কক্ষে শিবসেনা সাংসদের বসার জন্য বিরোধী আসন নির্ধারণ করা হয়েছে।

ফাইল ছবি

কারণ হিসাবে মন্ত্রী বলেন, শিবসেনার এক মাত্র কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নিজের পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন। যে কারণে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। উল্টে শিবসেনা মহারাষ্ট্রে সরকার গঠনের জন্য কংগ্রেস এবং এনসিপির সঙ্গে জোট গড়ার আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে।

[ আরও পড়ুন: সর্বদলীয় বৈঠকে অর্থনৈতিক মন্দা, বেকারত্ব নিয়ে সরব বিরোধীরা ]

উল্লেখ্য, মহারাষ্ট্রের সরকার গঠন নিয়ে মহানাটকীয় পরিস্থিতিতে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করেন শিবসেনা নেতা অরবিন্দ সবন্ত। তার পরেই এনডিএ থেকে শিবসেনার বেরিয়ে আসার সম্ভাবনা ক্রমশ জোরালো হয়। বর্তমানে রাষ্ট্রপতি শাসনের আওতাধীন রাজ্যে নতুন সরকার গঠনের জন্য কংগ্রেস-শিবসেনার সমর্থন পেতে আদা-জল খেয়ে নেমেছে উদ্ধব ঠাকরের দল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.