বেঙ্গালুরু: সাংবাদিক গৌরী লঙ্কেশের হত্যাকান্ডে সংঘ পরিবার জড়িত থাকার সন্দেহ প্রকাশ করেছিলেন ইতিহাসবিদ রামচন্দ্র গুহ। সেই ‘অপরাধ’-এ তাঁকে আইনি নোটিশ পাঠাল বিজেপি। সেই সঙ্গে হুঁশিয়ারি, তিন দিনের মধ্যে ক্ষমা না চাইলে তার ওপর দেওয়ানি এবং ফৌজদারি মামলা শুরু করা হবে।

গৌরী লঙ্কেশের হত্যার পরে একটি সংবাদপত্রকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছিলেন, “দাভোলকর, পানসারে এবং কালবুর্গিদের হত্যাকারীরা সংঘ পরিবার থেকে এসেছিল। সুতরাং গৌরী লঙ্কেশের হত্যাকারীরাও একই জায়গা থেকে আসতেই পারে।”

মত প্রকাশের স্বাধীনতার ব্যাপারে বেশ কিছু দিন আগে কিছু টুইট করেছিলেন গুহ। এই দিন আইনি নোটিশ পাওয়ার পর সেই টুইটকে আবার ‘শেয়ার’ করেন তিনি। টুইটে তিনি বলেছিলেন, “এখনকার ভারতে স্বাধীন চিন্তাধারী লেখক, লেখিকা এবং সাংবাদিকরা অনবরত হুমকির সম্মুখীন হচ্ছেন। কেউ কেউ খুনও হয়ে যাচ্ছেন। কিন্তু আমাদের চুপ করে থাকা উচিত নয়।”

যে আইনি নোটিশ গুহকে পাঠানো হয়েছে, সেখানে বলা হয়েছে, এখনও পর্যন্ত কোনো হত্যারই তদন্ত হয়নি। বলা হয়েছে, “আমাদের সংগঠনের ব্যাপারে ইচ্ছাকৃত এবং মিথ্যে অভিযোগ আপনি এনেছেন, তাতে আমাদের সংগঠনের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে।” আরএসএসকে ‘বিশ্বের বৃহত্তম সামাজিক সংগঠন’-এর আখ্যা দিয়েছেন কর্নাটকের এক বিজেপি নেতা। সেই সঙ্গে তিনি বলেন, তাঁর কাছে বিজেপি হল, ‘বিশ্বের বৃহত্তম গণতান্ত্রিক দল।’

গত মঙ্গলবার অজ্ঞাতপরিচয় আততায়ীদের হাতে খুন হন গৌরী লঙ্কেশ। এখনও পর্যন্ত তদন্তে বিশেষ কোনো অগ্রগতি দেখাতে পারেনি কর্নাটক পুলিশ।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here