নয়াদিল্লি: আট রাজ্যের দশটি বিধানসভা আসনের উপনির্বাচনে বিজেপির উল্লসিত হওয়ার মতো কিছু ঘটল না। দিল্লি এবং হিমাচল প্রদেশের বিধানসভা আসন দু’টি আপ এবং কংগ্রেসের থেকে বিজেপি ছিনিয়ে নিলেও কর্নাটকে দু’টি আসনেই হারল তারা। এর পাশাপাশি মধ্যপ্রদেশের একটি আসন কংগ্রেসের কাছে হেরেছে বিজেপি এবং শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ঝাড়খণ্ডের একটি আসনে এখনও পিছিয়ে রয়েছে বিজেপি প্রার্থী।

আপের হাত থেকে দিল্লির আসন ছিনিয়ে নিল বিজেপি

বিধানসভা উপনির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গের কাঁথি দক্ষিণ আসনে দ্বিতীয় হওয়ার পাশাপাশি বিজেপির সাফল্য এসেছে দিল্লি থেকে। সেখানকার রজৌরি গার্ডেন বিধানসভা কেন্দ্র আম আদমি পার্টির থেকে ছিনিয়ে নিয়েছে বিজেপি। কংগ্রেসের পেছনে তৃতীয় স্থানে শেষ করেছেন আপ প্রার্থী। এই আসনে বিজেপির জয়ের ব্যবধান ১৪,৬৫২।

কর্নাটকের দু’টি আসনই জিতল কংগ্রেস

২০১৩ সালে বিধানসভা নির্বাচনে রাজ্যের নাঞ্জানগুদ এবং গুন্দলুপেট আসন দু’টি কংগ্রেস জিতেছিল। এ বারও তাই হল। নাঞ্জানগুদে ২১,৩৩৪ ভোটে জিতেছে কংগ্রেস, গুন্দলুপেটে কংগ্রেসের জয়ের ব্যবধান ১০,৮৮৭ ভোট। উল্লেখ্য, সামনের বছরেই এই রাজ্যে নির্বাচন, তার আগে দু’টি আসনেই কংগ্রেস জেতার ফলে নিঃসন্দেহে ধাক্কা খাবে কর্নাটকে বিজেপির ফিরে আসার স্বপ্ন। অন্য দিকে পঞ্জাবের পর কর্নাটকের এই সাফল্য উজ্জীবিত করবে কংগ্রেসকে।

মধ্যপ্রদেশে বান্ধবগড় দখলে রাখল বিজেপি, আতেরে কংগ্রেস

বান্ধবগড় বিধানসভা আসনে কংগ্রেস প্রার্থীকে পঁচিশ হাজারের বেশি ভোটে হারিয়েছে বিজেপি। অন্য দিকে আতের বিধানসভা কেন্দ্রে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে কংগ্রেস প্রার্থী হেমন্ত কাটারে বিজেপি প্রার্থী অরবিন্দ সিং ভাদোরিয়াকে প্রায় সাড়ে ৭ হাজার ভোটে হারিয়েছেন। উল্লেখ্য, ভোট গ্রহণের দিন বিজেপি কর্মীদের হাতে নিগৃহীত হওয়ার অভিযোগ করেছিলেন হেমন্ত।

ঝাড়খণ্ডে এগিয়ে জেএমএম

ঝাড়খণ্ডের লিত্তিপারা কেন্দ্রটিতে বিজেপি প্রার্থীর থেকে ১২,৯০০ ভোটে এগিয়ে রয়েছেন ঝাড়খণ্ড মুক্তি মোর্চা প্রার্থী। শেষ রাউন্ডের গণনা শুরু হয়েছে।

হিমাচল, রাজস্থান, অসমে বিজেপি

হিমাচলের ভোরঞ্জ বিধানসভাটি কংগ্রেসের থেকে ছিনিয়ে নিল বিজেপি। এখানে কংগ্রেস প্রার্থীকে ৮২৯০ ভোটে হারিয়েছেন বিজেপি প্রার্থী। রাজস্থান এবং অসমের দু’টি আসন অবশ্য বিজেপি নিজেদের দখলেই রেখেছে। রাজস্থানের ঢোলপুর বিধানসভা কেন্দ্রে কংগ্রেস প্রার্থীকে ৩৯ হাজার হারিয়েছেন বিজেপি প্রার্থী, অন্য দিকে অসমের ধেমাজি আসনে কংগ্রেসকে ৯২৮৫ ভোটে হারিয়েছে বিজেপি।

এই বিধানসভা উপনির্বাচনে পঞ্চাশ শতাংশ নম্বর পেয়েছে বিজেপি। আরও বেশি প্রত্যাশা ছিল তাদের। তাই কর্মীরা যাতে ভেঙে না পড়েন সে জন্য এ দিন তাদের দলের পার্ফরমেন্সে সন্তোষ প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। কর্মীদের উদ্দেশে মোদী বলেন, “ফল খুব ভালো হয়েছে। কর্মীদের ধন্যবাদ। আমাদের পাশে থাকার জন্য, এবং সমর্থন করার জন্য সাধারণ মানুষকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।”

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here