কাশ্মীরে নেট-নিষেধাজ্ঞা নিয়ে সুপ্রিম- পর্যবেক্ষণের পর নমনীয় হল স্থানীয় প্রশাসন

0

শ্রীনগর: কাশ্মীর উপত্যকায় গত পাঁচ মাস ধরে ইন্টারনেটের ওপরে নিষেধাজ্ঞার প্রসঙ্গে সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছিল, ইন্টারনেটের অধিকার এখন মানুষের মৌলিক অধিকারের মধ্যেই পড়ে। এই নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি পর্যালোচনার জন্য জম্মু-কাশ্মীর প্রশাসনকে এক সপ্তাহ সময় দিয়েছিল আদালত।

সেই নির্দেশ পাওয়ার কিছুটা নমনীয় হয়েছে স্থানীয় প্রশাসন। বুধবার কাশ্মীরের অনেক জায়গাতেই ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট পরিষেবা চালু করতে চলেছে প্রশাসন। তবে সোশ্যাল মিডিয়ার ওপরে নিষেধাজ্ঞা এখনও বহাল থাকবে।

তবে গৃহস্থ বাড়িতে ইন্টারনেট পরিষেবা এখনই ফিরিয়ে দেওয়া হবে না। বরং কাশ্মীর উপত্যকার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চালু করা হবে ইন্টারনেট।

প্রশাসন সূত্রে খবর, “শুধুমাত্র সরকারি ওয়েবসাইট এবং ই-ব্যাঙ্কিংয়ের মতো প্রয়োজনীয় পরিষেবা সংক্রান্ত ওয়েবসাইটগুলি” ব্যবহার করতে পারবেন স্থানীয় মানুষজন। তবে প্রতিষ্ঠানগুলিকে প্রশাসন নির্দেশ দিয়েছে যে কে কী ভাবে ইন্টারনেট ব্যবহার করছে তার দিকে কড়া নজর রাখতে হবে। কেউ অন্যায় উদ্দেশ্যে তা ব্যবহার করলে তার দায় সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের ওপরেই বর্তাবে বলে সাফ জানিয়েছে প্রশাসন।

বুধবার মধ্য কাশ্মীরের শ্রীনগরে ইন্টারনেট পরিষেবা ফেরানো হবে। দিন দুয়েক পর উত্তর কাশ্মীরের কুপওয়ারা, বন্দিপোরা আর বারামুলা জেলায় নেট ফেরানো হবে। আরও দু’দিন পর দক্ষিণ কাশ্মীরের পুলওয়ামা, অনন্তনাগ, শোপিয়ান আর কুলগামে এই পরিষেবা ফেরানো হবে।

গোটা ব্যাপারটি পর্যালোচনা করে তার পর মোবাইল ইন্টারনেট পরিষেবা ফেরানোর ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবেন এই কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের উপরাজ্যপাল গিরিশ মুর্মু।

উল্লেখ্য, গত ৫ আগস্ট জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা তুলে দেওয়া হয়। তার পর থেকেই সেখানে লাগাতার নিষেধাজ্ঞা জারি রয়েছে। ওই নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধেই একাধিক মামলা করা হয় শীর্ষ আদালতে। কাশ্মীর নিয়ে মামলাকারীদের মধ্যে ছিলেন প্রবীণ কংগ্রেস নেতা গুলাম নবী আজাদও। এ ছাড়াও কাশ্মীর টাইমসের সম্পাদক অনুরাধা ভাসিনেরও একটি আবেদন ছিল শীর্ষ আদালতে।

আরও পড়ুন ফের বিধ্বংসী আগুন রাতের কলকাতায়

সেই আবেদনগুলির রায় দিতে গিয়ে শীর্ষ আদালত বলে, দীর্ঘদিন ধরে ইন্টারনেট বন্ধ রাখা অযৌক্তিক, কারণ তাতে সাধারণ মানুষের অধিকার খর্ব হয়।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.