নাটকীয় অধ্যায়ের অবসান! কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রীপদ ছাড়লেন বিএস ইয়েদিউরাপ্পা

0

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সোমবার কর্নাটকের (Karnataka) মুখ্যমন্ত্রীপদে ইস্তফা দিলেন বিএস ইয়েদিউরাপ্পা (B S Yediyurappa)। দু’বছর আগে ঠিক আজকের দিনেই (২৬ জুলাই) একের পর নাটকীয় ঘটনার পর মুখ্যমন্ত্রীপদে শপথ নিয়েছিলেন প্রবীণ বিজেপি নেতা।

২০১৮ সালে কর্নাটকের বিধানসভা নির্বাচনের পর জোট সরকার তৈরি করে কংগ্রেস-জেডিএস। মুখ্যমন্ত্রী হন এইচডি কুমারস্বামী। ওই বছরের ২৩ মে থেকে ২০১৯ সালে ২৩ জুলাই পর্যন্ত মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন তিনি। কিন্তু প্রায় এক বছর সময়কালে সরকার ফেলে দেওয়ার একাধিক পদক্ষেপ নেয় বিজেপি। সফলও হয়। তার পরই মুখ্যমন্ত্রী হন ইয়েদ্দি।

গত কয়েক মাস ধরেই জোর জল্পনা চলছিল কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রীপদে ইয়েদিউরাপ্পার থাকা, না থাকা নিয়ে। নেপথ্যে বিজেপির অন্দরে তাঁর অপসারণ নিয়েও চলছিল জোর প্রস্তুতি। ঘটনার জল গড়ায় দিল্লিতে। কয়েক দিন আগেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর (Narendra Modi) সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন কর্নাটকের সদ্য প্রাক্তন হতে যাওয়া মুখ্যমন্ত্রী। বৃহস্পতিবার নিজেই জানিয়ে দেন, তাঁকে পদত্যাগ করতে বলা হয়েছে। পুরো ব্যাপারটাই ছেড়ে দিয়েছিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতির উপর।

এ দিন বিধানসভার অধিবেশনে বক্তৃতা করতে গিয়ে চোখে জল এসে যায় ইয়েদুরাপ্পার। বলেন, “আমি পদত্যাগ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। মধ্যাহ্নভোজের পরে রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করব”। স্মরণ করিয়ে দেন প্রয়াত প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ি তাঁকে কেন্দ্রের মন্ত্রী হওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিলেন, কিন্তু তিনি কর্নাটক ছেড়ে যেতে রাজি হননি।

Shyamsundar

কোনো পদে বহাল থাকার বয়সসীমা আগেই বেঁধে দিয়েছিল বিজেপি। ৭৫ বছর বয়স হলেই বিজেপিতে পদ ছেড়ে দেওয়ার চল রয়েছে। তবে প্রায় ৭৬ বছর বয়সেও মুখ্যমন্ত্রী হয়েছিলেন ইয়েদ্দি। শেষমেশ তাঁকেও বেরিয়ে যাওয়ার দরজা ধরতে হল।

ইয়েদ্দিও এ দিন সাংবাদিক বৈঠকে বলেন, “আমি প্রধানমন্ত্রী মোদী, অমিত শাহ এবং জেপি নড্ডাকে ধন্যবাদ জানাই। ৭৫ বছরের বেশি হওয়া সত্ত্বেও আমাকে মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে রাজ্য শাসনের সুযোগ দিয়েছিলেন তাঁরা। আমি কিছু দিন আগে পদত্যাগ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। আজ দু’বছর পূর্ণ হল। ফলে পদত্যাগের জন্য এই দিনটাকে বেছে নিতে পেরে আমি খুশি”।

আরও পড়তে পারেন: নজিরবিহীন প্রতিবাদ! ট্র্যাক্টর চালিয়ে সংসদে পৌঁছোলেন রাহুল গান্ধী

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন