বুলেট ট্রেন প্রকল্পে সম্ভাব্য ক্ষতিগ্রস্ত ম্যানগ্রোভের সংখ্যা কিছুটা কমানো হয়েছে: কর্তৃপক্ষ

0

ওয়েবডেস্ক: মুম্বই-অহমেদাবাদ বুলেট ট্রেন প্রকল্পে কাটা পড়তে পারে প্রায় ৫৪ হাজার ম্যানগ্রোভ। এমন খবর চাউর হওয়ার পরই প্রতিবাদে নামেন পরিবেশকর্মীরা। এর পরই থানে স্টেশনের প্রস্তাবিত নকশার পরিবর্তন করে সম্ভাব্য ক্ষতিগ্রস্ত ম্যানগ্রোভের সংখ্যা কিছুটা কমানো গিয়েছে বলে শনিবার জানালেন ন্যাশনাল হাই স্পিড রেল কর্পোরেশন লিমিটেড বা এনএইচএসআরসিএল কর্তৃপক্ষ।

সংস্থার তরফে বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়, বুলেট ট্রেন প্রকল্পের বাস্তবায়ন প্রায় ৫৪ হাজারের পরিবর্তে ৩২ হাজার ম্যানগ্রোভ কাটা যেতে পারে। এর জন্য থানে স্টেশনের অবস্থান একই রেখে নকশায় বেশ কিছু পরিবর্তন করা হচ্ছে।

একই সঙ্গে জানা গিয়েছে, নকশা পুনর্নিমাণের ফলে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার পরিমাণও অনেকটা কমেছে। এই প্রকল্পের সহযোগী জাপানি সংস্থার সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে নকশা পুনর্নিমাণ করা হয়। সেখানে দেখা যাচ্ছে, স্টেশনের স্থান পূর্ব নির্ধারিত জায়গায় থাকলেও যাত্রীদের জন্য বরাদ্দ অংশ এবং পার্কিংয়ের জন্য বরাদ্দ অংশ দু’টিকে ম্যানগ্রোভ এলাকা থেকে সরিয়ে নিয়ে আসা হয়েছে।

mangrove
স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে উপযুক্ত ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা করবে সরকার।

এনএইচএসআরসিএল-এর ডিরেক্টর অচল খারে জানান, “আগের নকশা অনুযায়ী থানে স্টেশনের একটা বড়ো অংশ বিস্তৃত ছিল ম্যানগ্রোভ এলাকায়। প্রায় ১২ হেক্টর ম্যানগ্রোভ এলাকা প্রকল্পের আওতায় ছিল। কিন্তু সেটা এখন কমে দাঁড়িয়েছে মাত্র ৩ হেক্টরে। এর ফলে প্রায় ২১ হাজার ম্যানগ্রোভকে আমরা অক্ষত রাখতে পারব। তবে এর পরেও ৩২ হাজারের বেশি ম্যানগ্রোভ কাটতেই হবে”।

[ আরও পড়ুন: বুলেট ট্রেন প্রকল্পে কাটা পড়ছে ৫৪ হাজার ম্যানগ্রোভ ]

খারে বলেন, “যে ৩২ হাজার ম্যানগ্রোভ কাটা পড়বে, সেগুলির পরিবর্তে আমরা আরও ১ লক্ষ ৬০ হাজার ম্যানগ্রোভ লাগাব। এ ব্যাপারে এনএইচএসআরসিএল নতুন ম্যানগ্রোভ বিভাগ খুলেছে। তাদের তত্ত্বাবধানেই নতুন ম্যানগ্রোভ লাগানো হবে”।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here