“বসেরা মাইনে কম নিয়ে নতুনদের চাকরি বাঁচাতে পারেন”: নারায়ণ মূর্তি

0
412

নয়াদিল্লি : “নিজেদের মাইনে কমিয়ে নতুনদের চাকরি বাঁচানো উচিত” – বললেন ইনফোসিসের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা এন আর নারায়ণ মূর্তি। কয়েক মাস ধরে বিভিন্ন তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থাগুলোতে ইঞ্জিনিয়ারদের ছাঁটাই করা হচ্ছে। তথ্যপ্রযুক্তির ইঞ্জিনিয়ারদের ছাঁটাই নিয়ে তৈরি একটি রিপোর্টে বলা হয়েছে, আগামী তিন বছরে সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারদের মধ্যে ৫ থেকে ৬ লক্ষ কর্মী ছাঁটাই হবেন। নারায়ণ মূর্তি সেই প্রেক্ষাপটে দাঁড়িয়ে কীভাবে নতুনদের চাকরি বাঁচানো যায় তার উপায় বাতলালেন।

একটি সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, উচ্চপদস্থদের পক্ষেই সম্ভব সংস্থার নতুন প্রজন্মের চাকরি রক্ষা করা। সেটা সম্ভব হবে উচ্চপদস্থরা একটু আত্মত্যাগ করলেই। আর সেটা করতে হবে নিজেদের মাইনে কিছুটা কম নিয়ে।

আরও পড়ুন : ভারতের তথ্যপ্রযুক্তি কর্মীদের প্রথম সংগঠন গড়ে উঠতে চলেছে তামিলনাড়ুতে

বিষয়টি উদাহরণ দিয়ে বুঝিয়েও দেন মূর্তি। তিনি বলেন, ২০০১ সালে যখন এমনই একটা কঠিন সময় এসে পড়েছিল, ছাঁটাই করা চলছিল তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থাগুলোতে, তখন ইনফোসিসের উচ্চপদস্থ কর্মীরা এমনই এক সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। ঠিক করেছিলেন, নিজেদের মাইনে কম নিয়ে সংস্থার নতুনদের চাকরি বাঁচাবেন।

আরও পড়ুন : তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পে তিন বছরে ছাঁটাই হতে পারেন প্রায় ৫-৬ লক্ষ ইঞ্জিনিয়ার

সম্প্রতি ইনফোসিসের পরিচালনমণ্ডলীর সঙ্গে উর্ধ্বতন কর্মীদের বেশ কিছুটা বচসাও হয়েছে বলে তিনি জানান। নারায়ণ মূর্তির বক্তব্য, কিছু কর্মীর মাইনে ৬০ থেকে ৭০ শতাংশ বাড়ানো হবে আর বেশিরভাগ কর্মীর মাইনে সামান্য পরিমাণ বাড়ানো হবে। এই বিভাজন কেন করা হবে? এতে তো সংস্থার একটা বড়ো অংশের কর্মীর সঙ্গেই প্রতারণা করা হবে।

আরও পড়ুন : ইনফোসিস, উইপ্রো সহ দেশের প্রথম সারির ৭টি তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থা ৫৬,০০০ কর্মী ছাঁটাই করবে এ বছর

তিনি আরও বলেন, এর আগে সংস্থা অনেক কঠিন পরিস্থিতিতেও ঘুরে দাঁড়িয়েছে। এমন পরিস্থিতি এর আগেও এসেছে। এটাই প্রথমবার নয়। সেই জন্য কারোর এত ভীত হওয়ার, দুশ্চিন্তাগ্রস্ত হওয়ার কোনো কারণ নেই। আগেও এর সমাধান ছিল। এখনও আছে।

তিনি বলেন, কাউকে চাকরি থেকে অকারণে বার করে দেওয়া – এটা মোটেই ঠিক কথা নয়। কারণ তাঁদের ওপর নির্ভর করে থাকে তাঁদের গোটা পরিবার।

 

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here