Supreme Court
সুপ্রিম কোর্ট। প্রতীকী ছবি

নয়াদিল্লি: গুরুতর অসুস্থ বাবাকে লিভার দানের সদিচ্ছা নাবালকের। অনুমতি চেয়ে ১৭ বছর বয়সি ছেলে দ্বারস্থ সুপ্রিম কোর্টের। সোমবার সেই মামলারই শুনানি সর্বোচ্চ আদালতে।

বাবা গুরুতর অসুস্থ, ছেলের সদিচ্ছা

গুরুতর অসুস্থ বাবাকে লিভার দান করার অনুমতি চেয়ে এক নাবালক একটি লিখিত আবেদন জমা করেছেন সুপ্রিম কোর্টে। শুক্রবার সুপ্রিম কোর্ট সেই আবেদনের উপর নোটিশ জারি করে। এ দিন সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি সঞ্জয় কিসান কউল এবং অভয় এস ওকার একটি বেঞ্চ ওই আবেদনের শুনানি করবে। এ ব্যাপারে উত্তরপ্রদেশ সরকারের স্বাস্থ্যবিভাগের প্রতিনিধিকেও উপস্থিত থাকার জন্য নোটিশ জারি করেছিল সর্বোচ্চ আদালত।

আবেদনকারীর আইনজীবী জানিয়েছেন, তাঁর মক্কেলের বাবার শারীরিক অবস্থা গুরুতর। তাঁকে বাঁচানোর একমাত্র পথ হতে পারে অঙ্গ প্রতিস্থাপন। আবেদনকারী (পুত্র) তাঁর বাবাকে নিজের লিভার দান করতে চান। কিন্তু পুত্র নাবালক হওয়ার কারণে কিছু আইনি প্রতিবন্ধকতা রয়েছে।

আইনি প্রতিবন্ধকতা

এ ব্যাপারে গত ৯ সেপ্টেম্বর বেঞ্চ বলেছিল, পুত্রের এই সদিচ্ছায় আইনি সমস্যা দেখা দিয়েছে। কারণ মানব অঙ্গ ও টিস্যু প্রতিস্থাপন আইন ১৯৯৪ অনুযায়ী, একজন অঙ্গ দাতাকে সাবালক হতে হবে।

প্রধান বিচারপতি ইউইউ ললিতের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চেপ আদেশে উল্লেখ করা হয়েছিল, “এ ক্ষেত্রে আবেদনকারী (ছেলে) তাঁর গুরুতর অসুস্থ পিতাকে নিজের লিভার দান করতে ইচ্ছুক। তবে, যে আইনের পরিপ্রেক্ষিতে আবেদনটি বিবেচনাধীন, তাতে বলা হয়েছে দাতাকে সাবালক হতে হবে”।

বেঞ্চ নির্দেশ দিয়েছিল, উত্তরপ্রদেশ সরকারের স্বাস্থ্য বিভাগের একজন দায়িত্বশীল আধিকারিককে সোমবার উপস্থিত থাকতে হবে। তাঁর উপস্থিতিতেই আবেদনটির বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

আবেদনকারীর উদ্দেশে আদালতের নির্দেশ, তিনি সংশ্লিষ্ট হাসপাতালে নিজের প্রাথমিক মেডিক্যাল টেস্ট করাতে পারেন। তিনি আদৌ অঙ্গদানের জন্য যোগ্য কি না, সেটা পরীক্ষার পর আদালত অনুমোদনের বিষয়টি বিবেচনা করতে পারে।

আপডেট পেতে দেখুন: খবর অনলাইন

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন