অমদাবাদ: বিজেপি সভাপতি অমিত শাহকে তাঁরই দলের নেত্রী মায়া কোডনানির স্বপক্ষে সাক্ষ্য দেওয়ার নির্দেশ দিল আদালত। এই প্রসঙ্গে আদালতের পক্ষ থেকে এক বিচারক জানিয়েছেন, আগামী সোমবারের মধ্যে বিজেপি সভাপতিকে হয় সশরীরে উপ্সথিত থাকতে হবে আদালতে, অথবা তাঁর পক্ষের আইনজীবীকে পাঠাতে হবে। মায়া কোডনানি ২০০২-এর গুজরাত দাঙ্গায় আরেকটি মামলায় দোষী সাব্যস্ত হয়ে জেল খাটছেন। কোডনানির দাবি, সেই সময় অমদাবাদের নারদা গ্রামে ১১ জন মুসলিমের হত্যার সময় তিনি উপস্থিত ছিলেন না। তাঁর এই তথ্যের সাক্ষ্যপ্রমাণ দিতেই তলব করা হয়েছে বিজেপি সভাপতিকে।

পেশায় স্ত্রী-রোগ বিশেষজ্ঞ মায়া দেবী এর আগে একাধিক বার আদালতকে জানিয়েছেন, তিনি কোনো ভাবেই অমিত শাহের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেননি। তাঁর দাবি, ঘটনার সময় তিনি বর্তমান বিজেপি সভাপতির সঙ্গে তাঁর নিজের হাসপাতালেই ছিলেন।

গুজরাত দাঙ্গার সময় অমিত শাহ এবং মায়া দেবী দু’জনেই ছিলেন সে রাজ্যের তৎকালীন দুই বিধায়ক। ২০০৯ সালে গুজরাতের নারী ও শিশু কল্যাণমন্ত্রী হন শ্রীমতী কোডনানি।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন