নয়াদিল্লি: কংগ্রেস ছেড়ে নিজের দল গঠন। বিধানসভা ভোটে প্রার্থী দিয়ে ভরাডুবি। সোমবার সেই দলই মিশে গেল বিজেপি-তে। অর্থাৎ, শেষমেশ বিজেপি-তেই যোগ দিলেন পঞ্জাবের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিংহ (Captain Amarinder Singh)।

নতুন দলের ভরাডুবি

পঞ্জাব কংগ্রেসের প্রভাবশালী অংশের সঙ্গে মতনৈক্যের কারণে মুখ্যমন্ত্রী পদ ছাড়তে হয় অমরিন্দরকে। তার পরই কংগ্রেস ত্যাগ এবং নতুন দল গঠন করেন বর্ষীয়ান নেতা। পটীয়ালা রাজপরিবারের বংশধর এবং পঞ্জাবের দু’বারের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর। কংগ্রেস থেকে বেরিয়ে গিয়ে নিজের দল পঞ্জাব লোক কংগ্রেস প্রতিষ্ঠা করেন তিনি।

চলতি বছরে পঞ্জাব বিধানসভা ভোটে বিজেপি এবং সুখদেব সিং ধীন্ডসার নেতৃত্বাধীন শিরোমণি অকালি দলের (সংযুক্ত) সঙ্গে জোটবদ্ধ হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিল অমরিন্দরের দল। কিন্তু তাঁর দলের কোনো প্রার্থীই জিততে পারেননি। এমনকী নিজের দুর্গ হিসেবে পরিচিত পটীয়ালা (নগর) আসনে হেরে যান তিনি নিজেও। কয়েক মাস ধরেই শোনা যাচ্ছিল, সেই দলও বার বিজেপির সঙ্গে মিশে যাচ্ছে।

গত ১২ সেপ্টেম্বর কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠক করেন অমরিন্দর। যদিও উভয় তরফে দাবি করা হয়, জাতীয় নিরাপত্তা, পঞ্জাবের মাদক এবং সন্ত্রাসের ক্রমশ বেড়ে চলা ঘটনা এবং রাজ্যের সামগ্রিক উন্নয়নের জন্য ভবিষ্যৎ নিয়ে আলোচনা হয়েছে তাঁদের। সোমবার দিল্লিতে এসে বিজেপি সভাপতি জগৎপ্রকাশ নাড্ডার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন অমরিন্দর। পিএলসির কোন নেতারা অমরিন্দরের সঙ্গে বিজেপিতে যোগ দেবেন, তার চূড়ান্ত তালিকা তুলে দেন।

দলের থেকে দেশ আগে

কংগ্রেস ছাড়ার ১০ মাস পরে আনুষ্ঠানিক ভাবে এ দিন বিজেপিতে যোগ দিলেন পঞ্জাবের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী। কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রী নরেন্দ্র সিংহ তোমর-সহ বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতাদের উপস্থিতিতেই হল এই দলবদল।

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তোমর বলেন, “সবসময়ই দলের থেকে দেশকে বেশি গুরুত্ব দিয়েছেন ক্যাপ্টেন। বিজেপি-ও সবসময় দলের থেকে আগে রাখে দেশকে। ক্যাপ্টেন সারা জীবন এটা অনুসরণ করেছেন। সে জন্যই তিনি আমাদের সঙ্গে একই সারিতে। আজ তাঁর পঞ্জাব লোক কংগ্রেস বিজেপির সঙ্গে মিশে যাওয়ায় আমি খুব খুশি। আমি তাঁকে এবং তাঁর অনুগামীদের দলে স্বাগত জানাই। আমরা সবাই জানি যে পঞ্জাব একটি সীমান্ত রাজ্য। এমন একটি রাজ্যের নিরাপত্তা সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ, কারণ এটা জাতির সুরক্ষার সঙ্গে যুক্ত। তাই, পঞ্জাবে নিরাপত্তা নিশ্চিত করা অপরিহার্য”।

কংগ্রেসের আর কী আছে পঞ্জাবে!

চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসের বিধানসভা ভোটে শোচনীয় হার হয় কংগ্রেসের। ১১৭ আসনে পঞ্জাব বিধানসভায় ৯২টি-তে জিতে বাজিমাত করে অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আপ। সেই জায়গায় প্রাক্তন শাসক দল কংগ্রেসের ঝুলিতে মাত্র ১৮। তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে, অমরিন্দরের স্থলাভিষিক্ত হওয়া চরণজিৎ সিংহ চন্নী দু’টি আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন বিধানসভায়। হতাশাজনক ভাবে দু’টিতেই হেরে যান।

পঞ্জাব কংগ্রেসে অন্তর্দ্বন্দ্বের জেরেই দল ছাড়তে বাধ্য হন অমরিন্দর। দীর্ঘ সময়ের জোট সঙ্গী শিরোমণি অকালি দলকে হারিয়ে পঞ্জাবে এখন নতুন করে দলীয় সংগঠন শক্তিশালী করতে সক্রিয় হয়েছে বিজেপি। এর আগে এক বার কংগ্রেস ছেড়ে শিরোমণি অকালি দলে যোগ দিয়েছিলেন অমরিন্দর। কয়েক বছর ফের কংগ্রেসে প্রত্যাবর্তন। কিন্তু এ বার ঠিক যে পরিস্থিতিতে তাঁকে কংগ্রেস ছাড়তে হয়েছে, সেটার আর নতুন করে পুনরাবৃত্তি চান না ক্য়াপ্টেন।

আরও পড়ুন: 

ঋণ পরিশোধের আগেই আচমকা মৃত্যু, বাকি টাকা কে মেটাবে

সিবিআই-এর জালে সুবীরেশ! শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় এই প্রথম কোনো উপাচার্য গ্রেফতার

তাণ্ডব! বিজেপি-র নবান্ন অভিযান নিয়ে ২টি পেনড্রাইভ জমা পড়ল হাইকোর্টে

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন