bjp mla

ওয়েবডেস্ক: অবশেষে নড়েচড়ে বসল পুলিশ। বিজেপি বিধায়ক কুলদীপ সিংহ শেনগারের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করল পুলিশ। এই বিধায়কের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করার জন্য বুধবার রাতেই নির্দেশ দিয়েছিল যোগী সরকার।

বুধবার রাতে এই সংক্রান্ত যাবতীয় তদন্তভার সিবিআইয়ের হাতে তুলে দিয়েছে উত্তরপ্রদেশ সরকার। শেনগারের বিরুদ্ধে পস্কো আইনের ধারায় মামলা করা হয়েছে।

এ দিকে বুধবার রাতেই আরও এক দফা নাটক হয় লখনউয়ে এক পুলিশ আধিকারিকের বাড়িতে যখন দলবল নিয়ে সেখানে হাজির হয়ে যান শেনগার। ওই পুলিশ অফিসারের বাড়িতে শেনগার ঢুকতেই জল্পনা শুরু হয়ে যায় যে তিনি সম্ভবত আত্মসমর্পণ করতে এসেছেন। কিন্তু সেই জল্পনায় নিজেই জল ঢেলে দেন শেনগার। সাফ জানিয়ে দেন, তিনি যে পলাতক নন, সংবাদমাধ্যমকে সেটা দেখানোর জন্যই এখানে হাজির হয়েছেন শেনগার। এর পরেই অবশ্য ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করে পুলিশ।

ন্যায় পাওয়ার জন্য গত ন’মাস ধরে হন্নে হয়ে ঘুরছেন, এমনই জানিয়েছিলেন নির্যাতিতা ওই তরুণী। তবে মামলাটি জটিল হয়ে যায় পুলিশ হেফাজতে ওই তরুণীর বাবার মৃত্যুর পরে। এমনও ছবি মিডিয়ায় প্রকাশ হয়ে যায় যেখানে দেখা যায় ওই তরুণীর বাবা অত্যাচারের শিকার হয়েছিলেন। সেই সঙ্গে আরও একটি অডিও প্রকাশিত হয়েছে যেখানে কুলদীপের গলা শোনা যাচ্ছে। যেখানে ওই তরুণীর কাকাকে তিনি মামলা প্রত্যাহার করার জন্য চাপ সৃষ্টি করছেন।

এই সবের পরেই নড়েচড়ে বসে উত্তরপ্রদেশ সরকার। এই ঘটনা যে গত এক বছরের মধ্যে তাদের সব থেকে বড়ো কেলেঙ্কারি সেটাও ভালো করেই বুঝতে পেরেছেন যোগী। তাই একটুও সময় নষ্ট না করে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেন তিনি। এর পরেই গ্রেফতার করা হয় ওই তরুণীর বাবাকে নিগ্রহে অভিযুক্ত ওই বিজেপি বিধায়কের ভাই।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন