সুপ্রিম কোর্ট নির্দেশ দিয়েছে তামিলনাডুর জন্য আগামী ১০ দিনে কাবেরী নদীর ১৫,০০০ কিউসেক জল ছাড়তে হবে কর্নাটককে। এরই প্রতিবাদে সোমবার থেকে উতপ্ত কর্নাটক। ব্যস্ত বেঙ্গালুরু-মাইসোর হাইওয়ে আটকে দিয়ে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন কৃষকরা। গুরুত্বপূর্ণ এই সড়ক আটকে থাকার ফলে কর্নাটক-তামিলনাড়ু এবং কেরালার মধ্যে যান চলাচল স্তব্ধ হয়ে যায়। প্রায় ৭০০ গাড়ি আটকে পড়ে।এই বিক্ষোভের ফলে বেঙ্গালুরু সহ কাবেরী অববাহিকার জেলাগুলিতে নিরাপত্তা ব্যবস্থা বাড়ানো হয়েছে। বিক্ষোভকারী সংগঠনের পক্ষ থেকে এই কাবেরী জল বণ্টন আন্দোলনের কেন্দ্রস্থল মান্দায়া জেলায় মঙ্গলবার বন্‌ধের ডাক দেওয়া হয়। বন্‌ধে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে।

এ দিকে কর্নাটকে থাকা তামিলনাড়ুর বাসিন্দাদের একটি সংগঠন রাজ্যের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে নিরাপত্তার দাবি জানিয়েছেন।

মুখ্যমন্ত্রী সিদ্দারামাইয়া জানিয়েছেন, এবার বর্ষা ভাল না হাওয়ায় কাবেরী অববাহিকা তীব্র জল সংকটে ভুগছে। এই অবস্থায় যদি তালিনাড়ুকে জল দেওয়া হয় তবে পরিস্থিতি আরও খারাপ হবে। বিষয়টি নিয়ে সব দলের প্রতিনিধি, সাংসদ এবং জেলার দায়িত্বে থাকা মন্ত্রীদের নিয়ে বৈঠক করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। এ ব্যাপারে শীর্ষ আদালতে রিভিউ পিটিশন দাখিল করার দাবি জানিয়েছেন কৃষকেরা।

কাবেরীর জল নিয়ে দক্ষিণের এই দুই রাজ্যের বিরোধ দীর্ঘদিনের। তামিলনাড়ুর পিটিশনের ভিত্তিতে সুপ্রিম কোর্ট নির্দেশ দেয়, শস্যের ক্ষতি রুখতে কর্নাটককে কাবেরীর জল ছাড়তে হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here