তল্লাশি চালানোর সময় ৬ লক্ষ টাকা হাতানোর দায়ে গ্রেফতার সিবিআইয়ের হেড কনস্টেবল

চুরি আর ফৌজদারি দুর্নীতির অপরাধে সিবিআই-এর হেড কনস্টেবলকে গ্রেফতার করল

0
CBI
প্রতীকী ছবি

নয়াদিল্লি : চুরি আর ফৌজদারি দুর্নীতির অপরাধে সিবিআইয়ের হেড কনস্টেবলকে গ্রেফতার করল সেন্ট্রাল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (সিবিআই)। সংশ্লিষ্ট সিবিআই আধিকারিক জানিয়েছেন, তল্লাশি অভিযান চালানোর সময় ছয় লক্ষ টাকা চুরি করার চেষ্টা করেন এই কনস্টেবল। উল্লেখ্য, তল্লাশি চলছিল দিল্লির সৈনিক ফার্মস এলাকায় ‘যমুনা এক্সপ্রেসওয়ে ইন্ডাস্ট্রিয়াল ডেভেলপমেন্ট অথোরিটি’-র দুর্নীতির বিষয়টি নিয়ে।

প্রসঙ্গত, মজার ব্যাপার হল তল্লাশি অভিযান চালানো হচ্ছিল সিবিআইয়েরই ইন্সপেক্টর এবং অ্যাসিস্ট্যান্ট সাব ইন্সপেক্টরের বিরুদ্ধে। তাঁদের বিরুদ্ধে ১২৬ কোটি টাকা ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ দায়ের করা হয়েছিল।

যাই হোক, টাকা চুরির ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। তাতে বলা হয়েছে, দিল্লির সৈনিক ফার্মস এলাকায় একটি বাড়িতে ডেপুটি সুপারিন্টেডেন্ট অব পুলিশ অশোক যাদবের নেতৃত্বে চলছিল তল্লাশি অভিযান। তাতেই ছিলেন হেড কনস্টেবল সুরেশ যাদবও। সরষের মধ্যে ভুত বাছাই করতে গিয়ে ঘটে গেল আরও এক ঘোটালা।

আরও পড়ুন – নিয়ম মেনে গাড়ি চালান, নইলে বাড়তে পারে বিমার প্রিমিয়াম!

ওই অভিযোগে বলা হয়েছে, সুরেশ যাদব এক জন উইং কমান্ডো ওয়াই এস  তোমার (অবসরপ্রাপ্ত)-এর একটি খামার বাড়ির পিছনের দিকে পাহারা দিচ্ছিলেন। সেখানেই তিনি দেখেন, এক জন মহিলা পরিচারক ওয়াই এস তোমারকে টাকা সরাতে সাহায্যে করছে। স্নানঘরের জানালা দিয়ে ছয় লক্ষ টাকার একটি বান্ডিল সরাতে দেখেন। পরে তিনি মহিলাকে ভয় দেখান, তাকে স্নানঘরের ভেতর আটকে রেখে সেই টাকা সরিয়ে ফেলেন।

ঘটনাটি জানতে পারা যায় যখন বাড়ির এক জন সদস্য গৌরব তোমার সিবিআই-এর ডিওয়াইএসপি অশোক যাদবকে ঘটনাটি বলেন। তোমার বলেন, সুরেশ তল্লাশির সময় অনেক টাকা চুরি করেছে।

পরে সুরেশ যেখানে টাকাগুলি লুকিয়ে রেখেছিল তা দেখিয়ে দেয়। ওই টাকা উদ্ধার হয়। দু’লক্ষ টাকা বাড়ির পেছন থেকে আর চার লক্ষ টাকা বিছানার নীচ থেকে পাওয়া।

অভিযোগে বলা হয়েছে, সুরেশের দায়িত্ব ছিল উদ্ধার হওয়া টাকা তার ঊর্ধ্বতনের হাতে তুলে দেওয়া। কিন্তু তা তিনি করেননি।

চুরি আর ফৌজদারি দুর্নীতির পাশাপাশি বেআইনি ভাবে পরিচারিকাকে আটক করার অভিযোগও আনা হয়েছে সুরেশের বিরুদ্ধে।

যাঁরা করবেন দুষ্টের দমন, তাঁরাই যদি আগা থেকে গোড়া বেশির ভাগই হাতে কালি মেখে বসে থাকেন, সাধারণ মানুষ ভরসা রাখবে কার ওপর। এই সমস্ত দেখে শুনে এই প্রশ্নই উঠছে সাধারণ মানুষের মধ্যে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here