Connect with us

দেশ

‘ভুয়ো সংঘর্ষে ১৪ জনকে মারা হয়েছে,’ ঊর্ধ্বতনের বিরুদ্ধে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ সিবিআই আধিকারিকের

cbi congress narendra modi

নয়াদিল্লি: গত বছর ঠিক এই সময়েই অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্বে জর্জরিত হয়েছিল সিবিআই। ফের দ্বন্দ্বের আগুন কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার অন্দরে।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চিঠি দিয়ে সিবিআইয়ের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, ভুয়ো সংঘর্ষ চালিয়ে অন্তত ১৪ জনকে মেরে ফেলেছেন তাঁর ঊর্ধ্বতন এক অফিসার।

ওই অফিসার একে ভাটনগরের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ দাবি করেছেন অভিযোগকারী এনপি মিশ্র। তিনি বলেন, ঝাড়খণ্ডে এই ভুয়ো সংঘর্ষের ঘটনাগুলি ঘটানো হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর অফিসের পাশাপাশি সিবিআই প্রধানের অফিস এবং চিফ ভিজিল্যান্স কমিশনারের অফিসেও চিঠি পাঠিয়েছেন মিশ্র। চিঠির বয়ানে তিনি লিখেছেন, “জানা গিয়েছে বর্তমানে সিবিআইয়ের প্রশাসনিক স্তরে জয়েন্ট ডিরেক্টর পদে কর্মরত একে ভাটনগর ঝাড়খণ্ডের ১৪ জন নিরীহকে হত্যা করেছেন।”

আরও পড়ুন পাকিস্তানকে বিঁধে কাশ্মীর নিয়ে ভারতকে বিশেষ অনুরোধ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের

শুধু ভুয়ো সংঘর্ষই নয়, ভাটনগরের বিরুদ্ধে একাধিক দুর্নীতিরও অভিযোগ এনেছেন মিশ্র। তাঁর বিরুদ্ধে অসংখ্য অভিযোগ জমা পড়েছে বলেও জানান মিশ্র।

এই ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর থেকেই একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের তরফ থেকে সিবিআইয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও কোনো জবাব পাওয়া যায়নি।

দেশ

‘গান্ধী’ পরিবারের তিনটি ট্রাস্টের বিরুদ্ধে তদন্ত করতে উচ্চস্তরের কমিটি গড়ল কেন্দ্র

রাজীব গান্ধী ফাউন্ডেশন, রাজীব গান্ধী চ্যারিটেবল ট্রাস্ট এবং ইন্দিরা গান্ধী মেমোরিয়াল ট্রাস্টের বিরুদ্ধে অভিযোগের তদন্ত

ওয়েবডেস্ক: ‘গান্ধী’ পরিবারের সঙ্গে যুক্ত তিনটি ট্রাস্টের আর্থিক লেনদেনের অভিযোগে তদন্ত করা হবে বলে বুধবার জানাল কেন্দ্র। রাজীব গান্ধী ফাউন্ডেশন, রাজীব গান্ধী চ্যারিটেবল ট্রাস্ট এবং ইন্দিরা গান্ধী মেমোরিয়াল ট্রাস্টের বিরুদ্ধে অভিযোগের তদন্ত করতে একটি কমিটি তৈরি করা হয়েছে বলেও জানায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক।

এ দিন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে টুইটারে জানানো হয়, আয়কর ও বিদেশি অনুদানের বিধি লঙ্ঘনের বিষয়ে তদন্তের সমন্বয় করতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক একটি আন্তঃমন্ত্রক কমিটি গঠন করেছে। প্রিভেনশন অব মানি লন্ডারিং অ্যাক্ট (PMLA), আয়কর আইন, ফরেন কন্ট্রিবিউশন (রেগুলেশন) অ্যাক্টের অধীনে ওই তিনটি ট্রাস্টের বিরুদ্ধে তদন্ত করবে কমিটি।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক জানিয়েছে, এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের এক স্পেশাল ডিরেক্টর এই কমিটির নেতৃত্ব দেবেন। তদন্তে শামিল করা হচ্ছে সিবিআই আধিকারিকদেরও।

দু’টি ট্রাস্টের মাথায় সনিয়া

১৯৯১ সালের জুন মাসে প্রতিষ্ঠিত হয় রাজীব গান্ধী ফাউন্ডেশন এবং ২০০২ সালে রাজীব গান্ধী চ্যারিটেবল ট্রাস্ট। দু’টির শীর্ষপদে রয়েছেন কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গান্ধী (Sonia Gandhi)।

বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা বলেন, “পিএমএনআরএফের (PMNRF) উদ্দেশ্য দুর্দশাগ্রস্ত মানুষকে সাহায্য করা। ইউপিএর শাসনকালে রাজীব গান্ধী ফাউন্ডেশনকে (RGF) সেখান থেকে আর্থিক অনুদান দেওয়া হয়। পিএমএনআরএফ বোর্ডে কে বসেছিলেন? শ্রীমতি সনিয়া গান্ধী আরজিএফের সভাপতিত্ব করেন? এটা পুরোপুরি নিন্দনীয়, নৈতিকতা এবং স্বচ্ছতাকে উপেক্ষা করে এটা করা হয়েছিল”।

সনিয়া আরজিএফের শীর্ষপদে থাকার পাশাপাশি পর্ষদে রয়েছেন রাহুল গান্ধী, প্রিয়ঙ্কা গান্ধী বঢরা, পি চিদাম্বরম এবং মনমোগন সিং।

কেন্দ্রের উদ্যোগ কি আচমকা?

গত মাসে ভারত-চিন সীমান্ত উত্তেজনার আবহে কংগ্রেসের বিরুদ্ধে বড়োসড়ো অভিযোগ তুলেছিল বিজেপি। নথি-সহ বিজেপি দাবি করে, “ভারতের চিনা দূতাবাস রাজীব গান্ধী ফাউন্ডেশনকে (RGF) আর্থিক সাহায্য করছে”। অভিযোগ করা হয়, “২০০৫-০৬ সালের বার্ষিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, রাজীব গান্ধী ফাউন্ডেশন গণপ্রজাতন্ত্রী চিন দূতাবাস থেকে অনুদান পেয়েছিল। ওই অনুদানটি সাধারণ দাতাদের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত ছিল”।

সাংবাদিক বৈঠকে আইনমন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ (Ravi Shankar Prasad) বলেন, “তৎকালীন ইউপিএ (UPA) সরকার কি চিনাদের কাছ থেকে ঘুষ নিয়েছিল? এই অনুদান নেওয়ার পরে কি তার বিনিময়ে চিনের সঙ্গে একটি মুক্ত বাণিজ্য চুক্তির প্রস্তাব করা হয়েছিল, যা ছিল চিনের পক্ষে অত্যন্ত লাভজনক”।

চিন থেকে প্রাপ্ত এই অনুদানটি সরকারি রেকর্ডে না থাকার অভিযোগ করে তিনি দাবি করেন, ” কংগ্রেস যদি চিনা দূতাবাসের কাছ থেকে টাকা নিয়ে থাকে, তবে তা কী ভাবে ব্যবহার করা হয়েছিল, সেই প্রশ্নের উত্তর অবশ্যই দিতে হবে।”

বিজেপির আরও অভিযোগ, ১৯৯১ সালে অর্থমন্ত্রী হিসাবে বাজেট ঘোষণার সময় মনমোহন সিং রাজীব গান্ধী ফাউন্ডেশনের জন্য ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছিলেন।

কংগ্রেসের সংক্ষিপ্ত জবাব

কংগ্রেস এ জাতীয় অভিযোগ অস্বীকার করেছে। ‘চিন সংকট’ মোকাবিলায় সরকারের ব্যর্থতা থেকে দৃষ্টি ঘোরাতেই এই সমস্ত ভিত্তিহীন অভিযোগ করা হচ্ছে বলে দাবি কংগ্রেসের। ট্রাস্টগুলির যাবতীয় অনুদানের যথাযথ হিসাবে তাদের কাছে রয়েছে।

Continue Reading

দেশ

নতুন আক্রান্তের সংখ্যা নিয়ন্ত্রণে, কিছুটা বাড়ল সুস্থতা

৭ রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে আক্রান্ত নতুন আক্রান্তের ৭৩.২ শতাংশ

খবরঅনলাইন ডেস্ক: এখনও পর্যন্ত দেশে করোনা-আক্রান্তের সংখ্যায় রেকর্ড তৈরি হয়েছিল গত রবিবার। প্রায় ২৫ হাজারের কাছাকাছি মানুষ সে দিন করোনায় (Coronavirus) আক্রান্ত হয়েছিলেন। তার পর থেকে নতুন আক্রান্তের সংখ্যা কিছুটা কমই রয়েছে। বুধবারও তার পরিবর্তন হল না।

দেশের করোনা-তথ্য

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের (Ministry of Health and Family Welfare) তথ্য অনুযায়ী বুধবার দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৭ লক্ষ ৪২ হাজার ৪১৭। এর মধ্যে সক্রিয় রোগী রয়েছেন ২ লক্ষ ৬৪ হাজার ৯৪৪। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৪ লক্ষ ৫৬ হাজার ৮৩১। মারা গিয়েছেন ২০,৬৪২ জন।

অর্থাৎ গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ২২,৭৫২ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১৬,৮৮৩ জন। মৃত্যু হয়েছে ৪৮২ জনের। সুস্থতার হার মঙ্গলবারের থেকে কিছুটা বেড়ে সাড়ে ৬১ শতাংশ হয়েছে।

৭ রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে আক্রান্ত নতুন আক্রান্তের ৭৩.২ শতাংশ

গত ২৪ ঘণ্টায় পাঁচ রাজ্য ও একটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে নতুন আক্রান্তের সংখ্যা ছিল এক হাজারের বেশি। সেগুলি হল মহারাষ্ট্র (৫,১৩৪), তামিলনাড়ু (৩,৬১৬), দিল্লি (২,০০৮), তেলঙ্গানা (১,৮৭২), কর্নাটক (১,৪৯৮), উত্তরপ্রদেশ (১,৩৪৬) আর অন্ধ্রপ্রদেশ (১,১৭৮)।

এর বাইরে গোটা ভারতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন মাত্র ৬,১০০ জন। এর থেকেই আবার প্রমাণিত হচ্ছে যে ভারতে করোনা-পরিস্থিতি এক একটি রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে এক এক রকম।

Continue Reading

দেশ

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ২২৭৫২, সুস্থ ১৬৮৮৩

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ভারতে করোনা-আক্রান্তের সংখ্যায় কোনো রকম লাগাম না টানা গেলেও লকডাউনের কড়াকড়ি অনেকটাই শিথিল করা হয়েছে। শুরু হয়েছে আনলক পর্ব। মানুষ রাস্তায় বেরিয়ে পড়েছেন। স্বাভাবিক ভাবেই এখন আক্রান্তের সংখ্যা আগের থেকে অনেকটাই বাড়বে। মঙ্গলবার, তথা ১ জুলাই থেকে নতুন করে কোভিড আপডেট শুরু করল খবরঅনলাইন। ৩০ জুন পর্যন্ত যাবতীয় আপডেট পড়ার জন্য ক্লিক করুন এখানে

==================================================================

৮ জুলাই, সকাল সাড়ে ন’টা

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের (Ministry of Health and Family Welfare) তথ্য অনুযায়ী মঙ্গলবার দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৭ লক্ষ ৪২ হাজার ৪১৭। এর মধ্যে সক্রিয় রোগী রয়েছেন ২ লক্ষ ৬৪ হাজার ৯৪৪। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৪ লক্ষ ৫৬ হাজার ৮৩১। মারা গিয়েছেন ২০,৬৪২ জন।

অর্থাৎ গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ২২,৭৫২ জন গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১৬,৮৮৩ জন। মৃত্যু হয়েছে ৪৮২ জনের। সুস্থতার হার মঙ্গলবারের থেকে কিছুটা বেড়ে সাড়ে ৬১ শতাংশ হয়েছে।

৭ জুলাই, সকাল সাড়ে দশটা

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের (Ministry of Health and Family Welfare) তথ্য অনুযায়ী মঙ্গলবার দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৭ লক্ষ ১৯ হাজার ৬৬৫। এর মধ্যে সক্রিয় রোগী রয়েছেন ২ লক্ষ ৫৯ হাজার ৫৫৭। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৪ লক্ষ ৩৯ হাজার ৯৪৮। মারা গিয়েছেন ২০,১৬০।

অর্থাৎ গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ২২,২৫২ জন। ৩ জুলাইয়ের পর নতুন আক্রান্তের সংখ্যায় এতটা পতন দেখা গেল। এর ফলে রোগী বৃদ্ধির হার এখন কমে এসেছে মাত্র ৩.১৯ শতাংশে।

গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১৫,৫১৫ জন। মৃত্যু হয়েছে ৪৬৬ জনের। সুস্থতার হার আরও কিছুটা বেড়ে ৬১.১৩ শতাংশ হয়েছে। মৃত্যুহার কমে এসেছে ২.৮০ শতাংশে।

৬ জুলাই, সকাল সাড়ে দশটা

সোমবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক (Ministry of Health and Family Welfare) যে তথ্য প্রকাশ করেছে তাতে দেখা যাচ্ছে যে ভারতে এখন মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৬ লক্ষ ৯৭ হাজার ৪১৩। এর মধ্যে সক্রিয় রোগী রয়েছেন ২ লক্ষ ৫৩ হাজার ২৮৭। সুস্থ হয়েছেন ৪ লক্ষ ২৪ হাজার ৪৩৩। মৃত্যু হয়েছে ১৯,৬৯৪ জনের।

গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ২৪,২৪৮ জন। সুস্থ হয়েছেন ১৫,৩৫০ জন। মৃত্যু হয়েছে ৪২৫ জনের। রবিবার মৃত্যু হয়েছিল ৬০৮ জনের।

৫ জুলাই, সকাল দশটা

রবিবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের (Ministry of Health and Family Welfare) তথ্য অনুযায়ী ভারতে করোনা-আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৬ লক্ষ ৭৩ হাজার ১৬৫। এর মধ্যে সক্রিয় রোগী রয়েছেন ২ লক্ষ ৪৪ হাজার ৮১৪। সুস্থ হয়েছেন ৪ লক্ষ ৯ হাজার ৮৩। মৃত্যু হয়েছে ১৯২৬৮ জনের।

গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ২৪,৮৫০ জন। সুস্থ হয়েছেন ৯৩৮১ জন। মৃত্যু হয়েছে ৬১৩ জনের। দেশে সুস্থতার হার বর্তমানে রয়েছে ৬০.৭৭ শতাংশ।

৪ জুলাই, সকাল দশটা

শনিবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের (Ministry of Health and Family Welfare) তথ্য অনুযায়ী ভারতে করোনা-আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৬ লক্ষ ৪৮ হাজার ৩১৫। এর মধ্যে সক্রিয় রোগী রয়েছেন ২ লক্ষ ৩৫ হাজার ৪৩৩। সুস্থ হয়েছেন ৩ লক্ষ ৯৪ হাজার ২২৭। মৃত্যু হয়েছেন ১৮,৬৫৫ জনের।

গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ২২,৭১১ জন। সুস্থ হয়েছেন ১৪,৩৩৫ জন। মৃত্যু হয়েছে ৪৪২। দেশে সুস্থতার হার বর্তমানে রয়েছে ৬০.৮০ শতাংশ।

৩ জুলাই, সকাল সাড়ে ন’টা

শুক্রবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের (Ministry of Health and Family Welfare) রিপোর্ট অনুযায়ী ভারতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৬ লক্ষ ২৫ হাজার ৫৪৪। এর মধ্যে সুস্থতার হারই পৌঁছে গিয়েছে ৬০.৭৯ শতাংশ মানুষ। অর্থাৎ ৩ লক্ষ ৭৯ হাজার ৮৯২ মানুষ সুস্থ হয়ে উঠেছেন।

দেশে বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ২ লক্ষ ২৭ হাজার ৪৩৯ জন। মৃত্যু হয়েছে ১৮,২১৩ জনের। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ২০,৯০৩ জন। সুস্থ হয়েছেন ২০,০৩২ জন। মৃত্যু হয়েছে ৩৭৯ জনের। উল্লেখযোগ্য বিষয় হল গত ২৪ ঘণ্টায় সক্রিয় রোগী বেড়েছে মাত্র ৮৯২।

২ জুলাই, সকাল সাড়ে ন’টা

বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের (Ministry of Health and Family Welfare) রিপোর্টে দেখা গিয়েছে যে এই মুহূর্তে ভারতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৬ লক্ষ ৪ হাজার ৬৪১। যদিও এর মধ্যে ৫৯.৫১ শতাংশ মানুষই সুস্থ হয়ে উঠেছেন।

এখনও পর্যন্ত সুস্থ হয়ে ওঠা মানুষের সংখ্যা ৩ লক্ষ ৫৯ হাজার ৮৬০। বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ২ লক্ষ ২৬ হাজার ৯৪৭ জন। মৃত্যু হয়েছে ১৭,৮৩৪ জনের।

গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১৯,১৪৮ জন। সুস্থ হয়েছেন ১১,৯১২ জন। মৃত্যু হয়েছে ৪৩৪ জনের। রোগীবৃদ্ধির হার কিছুটা কমে এখন রয়েছে ৩.২৭ শতাংশ।

১ জুলাই, সকাল সাড়ে ন’টা

বুধবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক (Ministry of Health and Family Welfare) যে পরিসংখ্যান দিয়েছে তাতে দেখা যাচ্ছে যে এই মুহূর্তে ভারতে করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৫ লক্ষ ৮৫ হাজার ৪৯৩। এর মধ্যে সক্রিয় রোগী রয়েছেন ২ লক্ষ ২০ হাজার ১১৪। সুস্থ হয়েছেন ৩ লক্ষ ৪৭ হাজার ৯৪৮। মৃত্যু হয়েছে ১৭,৪০০ জনের।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১৮,৬৫৩ জন। সুস্থ হয়েছেন ১৩,১২৬ জন। মৃত্যু হয়েছে ৫০৭ জনের।

Continue Reading
Advertisement
দেশ22 mins ago

‘গান্ধী’ পরিবারের তিনটি ট্রাস্টের বিরুদ্ধে তদন্ত করতে উচ্চস্তরের কমিটি গড়ল কেন্দ্র

রাজ্য2 hours ago

বিকল্প শিক্ষাপদ্ধতি: তৃণমূল প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির উদ্যোগে লকডাউন পাঠশালা

দেশ4 hours ago

নতুন আক্রান্তের সংখ্যা নিয়ন্ত্রণে, কিছুটা বাড়ল সুস্থতা

কলকাতা4 hours ago

করোনা প্রতিরোধে মাস্ক-স্যানিটাইজার বিতরণ ‘উই আর দ্য কমন পিপল’-এর

দেশ5 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ২২৭৫২, সুস্থ ১৬৮৮৩

ক্রিকেট5 hours ago

জন্মদিনের দিন দেখে নেওয়া যাক অধিনায়ক সৌরভের পাঁচটি কালজয়ী সিদ্ধান্ত

দেশ5 hours ago

‘ডন’ বিকাশ দুবেকে দেখা গেল হরিয়ানার হোটেলে, এনকাউন্টারে হত ঘনিষ্ঠ বন্ধু

বিদেশ5 hours ago

পড়ুয়াদের ভিসা বাতিলের নতুন সিদ্ধান্ত নিয়ে ভারতকে ‘আশ্বাস’ আমেরিকার

currency
শিল্প-বাণিজ্য2 days ago

পিপিএফের ৯টি নিয়ম, যা জেনে রাখা ভালো

দেশ5 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ২২৭৫২, সুস্থ ১৬৮৮৩

দেশ3 days ago

২০২১-এর আগে নয় করোনা ভ্যাকসিন? প্রেস বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেও সময়সীমা মুছে দিল বিজ্ঞানমন্ত্রক!

কলকাতা2 days ago

কলকাতায় এখন ১৮টি কনটেনমেন্ট জোন, ১৮৭২টি আইসোলেশন ইউনিট, ফারাকটা কোথায়?

রাজ্য2 days ago

করোনা রুখতে পশ্চিমবঙ্গের ‘সেফ হোম’-এর ভূয়সী প্রশংসা কেন্দ্রের

দেশ3 days ago

গাজিয়াবাদের কারখানায় ভয়াবহ বিস্ফোরণ, মৃত ৭

বিনোদন3 days ago

করোনা আবহে কী ভাবে হল ‘বিবাহ বার্ষিকী’র শুটিং? দেখে নিন অভিনেত্রী দর্শনা বণিকের এক্সক্লুসিভ সাক্ষাৎকার

দেশ2 days ago

গালোয়ান উপত্যকা থেকে চিন সেনার পিছু হঠার পেছনেও অজিত ডোভালের ভূমিকা

কেনাকাটা

কেনাকাটা20 hours ago

বাচ্চার জন্য মাস্ক খুঁজছেন? এগুলোর মধ্যে একটা আপনার পছন্দ হবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিউ নর্মালে মাস্ক পরাটাই দস্তুর। তা সে ছোটো হোক বা বড়ো। বিরক্ত লাগলেও বড়োরা নিজেরাই নিজেদেরকে বোঝায়।...

কেনাকাটা2 days ago

রান্নাঘরের টুকিটাকি প্রয়োজনে এই ১০টি সামগ্রী খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক : লকডাউনের মধ্যে আনলক হলেও খুব দরকার ছাড়া বাইরে না বেরোনোই ভালো। আর বাইরে বেরোলেও নিউ নর্মালের সব...

কেনাকাটা3 days ago

হ্যান্ড স্যানিটাইজারে ৩১ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় দিচ্ছে অ্যামাজন

অনলাইনে খুচরো বিক্রেতা অ্যামাজন ক্রেতার চাহিদার কথা মাথায় রেখে ঢেলে সাজিয়েছে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের সম্ভার।

DIY DIY
কেনাকাটা1 week ago

সময় কাটছে না? ঘরে বসে এই সমস্ত সামগ্রী দিয়ে করুন ডিআইওয়াই আইটেম

খবর অনলাইন ডেস্ক :  এক ঘেয়ে সময় কাটছে না? ঘরে বসে করতে পারেন ডিআইওয়াই অর্থাৎ ডু ইট ইওরসেলফ। বাড়িতে পড়ে...

নজরে