হোটেল টেন্ডার দুর্নীতি মামলায় লালুর বাড়িতে তল্লাশি সিবিআইয়ের

0
407
lalu fodder scam

পটনা: ফের দুর্নীতির মামলায় জড়ালেন বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী লালুপ্রসাদ যাদব। আইআরসিটিসির হোটেল টেন্ডারিং-এ দুর্নীতি মামলায় পটনা-সহ দেশের বারোটি জায়গায় লালুর বাড়িতে তল্লাশি চালিয়েছে সিবিআই।

২০০৬-তে রেলমন্ত্রী থাকাকালীন পুরী এবং রাঁচিতে হোটেল বণ্টনে দুর্নীতির মামলায় লালু ছাড়াও তাঁর স্ত্রী রাবড়ি দেবী, ছেলে তেজস্বীর বিরুদ্ধে মামলা রুজু করেছে সিবিআই। মামলা রুজু করা হয়েছে আইআরসিটিসি-র প্রাক্তন ম্যানেজিং ডিরেক্টর পি কে গয়াল এবং লালুঘনিষ্ঠ আরজেডি নেতা প্রেমচন্দ্র গুপ্তর স্ত্রী সরলা গুপ্তের বিরুদ্ধেও। প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ছিলেন প্রেমচন্দ্র।

অভিযোগ, রেলমন্ত্রী থাকাকালীন রাঁচি এবং পুরীতে রেলের দু’টো হেরিটেজ হোটেলের টেন্ডার একটি বেসরকারি সংস্থাকে পাইয়ে দিতে সাহায্য করেছিলেন লালু। পরিবর্তে সেই সংস্থার কাছ থেকে ২ একর জমি নেওয়ার অভিযোগ ওঠে তাঁর বিরুদ্ধে।

এই ঘটনার ফলে চাপে পড়েছেন আরজেডি প্রধান। এই ঘটনাকে রাজনৈতিক প্রতিহিংসা বলেই দাবি করেছেন আরজেডি নেতা শিবানন্দ তিওয়ারি। আরজেডির অভিযোগ, সিবিআই ও ইডির মতো তদন্তকারী সংস্থাগুলোকে বিরোধী দলগুলোর বিরুদ্ধে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবে ব্যবহার করছে কেন্দ্র।

প্রসঙ্গত কিছু দিন আগেই দুর্নীতির অভিযোগে লালুর কন্যা মিসা ভারতী এবং জামাই শৈলেশ কুমারের বাড়িতে আয়কর হানা হয়েছিল। অন্য দিকে বেশ কয়েক দিন ধরেই অন্য দুর্নীতি মামালায় জড়িয়ে রয়েছেন লালুর দুই ছেলে তথা বিহারের দুই মন্ত্রী তেজস্বী এবং তেজপ্রতাপ।

আরজেডি প্রধান নতুন দুর্নীতি মামলায় জড়িয়ে যাওয়ার পর এখন দেখার বিষয় বিহারের জোট সরকারের ভবিষ্যৎ। এমনিতে বেশ কয়েক মাস ধরেই বিভিন্ন ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর প্রতি সমর্থনের বার্তা দিচ্ছেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী তথা জেডিইউ প্রধান নীতীশ কুমার। সম্প্রতি এনডিএ-র রাষ্ট্রপতি প্রার্থী রামনাথ কোবিন্দের প্রতি সমর্থন জানিয়ে বিরোধী জোটকে অস্বস্তিতে ফেলে দেন। এখন দেখার এ বার কোন পথে হাঁটবেন নীতীশ।

 

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here