প্রণয় রায়ের বাড়ি ও কোম্পানিতে সিবিআই হানা, এনডিটিভি বলল অপছন্দের সংস্থাকে বিপাকে ফেলার চেষ্টা

0
536

নয়াদিল্লি: দীর্ঘ ন’ বছর আগে নেওয়া ব্যাঙ্কঋণে বেনিয়মের অভিযোগ তুলে গত সপ্তাহে মামলা নথিভুক্ত করেছিল সিবিআই। সেই মামলার সূত্র ধরে সোমবার এনডিটিভি প্রতিষ্ঠাতা প্রণয় রায় এবং তাঁর স্ত্রী রাধিকার অফিস ও বাড়িতে হানা দিল তারা। আইসিসিআই ব্যাঙ্কের ৪৮ কোটি টাকা ক্ষতি করার অভিযোগে ইংরিজি ও হিন্দি নিউজ চ্যানেলের প্রোমোটার কোম্পানি আরআরপিআর হোল্ডিং প্রাইভেট লিমিটেডের অফিসে তল্লাশি চালায় সিবিআই। পাশাপাশি দিল্লি ও উত্তরাখণ্ডের দেহরাদুনের চার জায়গায় হানা দেয় সিবিআই। এর মধ্যে রায়দের বাসভবনও রয়েছে। সিবিআই অবশ্য এনডিটিভির অফিসে হানা দেয়নি। এই ঘটনার প্রতিবাদে এক বিবৃতি প্রকাশ করে এনডিটিভির তরফে বলা হয়েছে, “অপছন্দের সংস্থা, অপছন্দের মানুষদের” বিপাকে ফেলার জন্যই “সেই সব পুরোনো অন্তহীন মিথ্যা অভিযোগের” ভিত্তিতে হানা চালানো হয়েছে।

গোটা ঘটনায় স্তম্ভিত মিডিয়া জগৎ। ‘দ্য হিন্দু’ পত্রিকার প্রাক্তন সম্পাদক এন রাম সহ সংবাদ জগতের বহু বিশিষ্ট মানুষ এই ঘটনার তীব্র সমালোচনা করেছেন। তাঁদের বক্তব্য, ভারতে সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতায় শাসকদল যে বিশ্বাস করে না, তা আরেক বার প্রমাণিত হল। এন রাম বলেছেন, সংবাদ মাধ্যমের স্বাধীনতার ওপর এই যে আক্রমণ, এর বিরুদ্ধে কি এনবিএ, এডিটর্স গিল্ড এবং সাংবাদিক সংগঠনগুলির মতো পেশাদার সংস্থাগুলো এগিয়ে আসবে?

 

তথ্যাভিজ্ঞ মহল মনে করছেন, কয়েক দিন আগে চ্যানেলের টক-শো থেকে বিজেপির জাতীয় মুখপাত্র সম্বিত পাত্রকে বের করে দেওয়ার মাশুল দিতে হল এনডিটিভি-কে।

দিন তিনেক আগের একটি ঘটনার থেকে সব কিছুর সূত্রপাত বলে মনে করছেন তাঁরা। এনডিটিভি-এর একটি টক-শোয়ে হাজির ছিলেন বিজেপি মুখপাত্র সম্বিৎ পাত্র। সেখানেই কথা প্রসঙ্গে টক-শোয়ের সঞ্চালিকা নিধি রাজদানকে তিনি বলেন,  একটি ‘বিশেষ উদ্দেশ্য’ (এজেন্ডা) নিয়ে চলে এনডিটিভি। এতেই ক্ষুব্ধ হন নিধি। সম্বিৎকে তিনি বলেন, “হয় আপনি আপনার মন্তব্যের জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করুন, নয়তো শো ছেড়ে বেরিয়ে যান।” এরপর সম্বিতের উদ্দেশে তিনি বলেন, “আপনি যে এনডিটিভির ‘বিশেষ উদ্দেশ্য’-এর কথা বললেন, আমি সেটা কোনো মতেই মেনে নেব না।” গোটা ঘটনায় এক মুহূর্তের জন্য মেজাজ হারাননি নিধি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সম্বিৎকে ওই শো থেকে চলে যেতে হয়।

 

সংবাদ জগতের সঙ্গে যুক্ত বিশিষ্টরা ছাড়াও বিভিন্ন ক্ষেত্রের মানুষজন এই ঘটনায় আলোড়িত। প্রণয় রায়ের বাড়ি-অফিসে সিবিআই হানার ঘটনাকে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় খুব ‘খারাপ প্রবণতা’ বলে বর্ণনা করেছেন। ঘটনার নিন্দা করে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল বলেছেন, “এটা স্বাধীনতাকামী এবং প্রতিষ্ঠান-বিরোধী কণ্ঠকে চাপা দেওয়ার প্রচেষ্টা।”

 

যে অভিযোগের ভিত্তিতে সিবিআই হানা চলল প্রণয় রায়ের অফিস ও বাড়িতে, সেই একই অভিযোগে আয়কর দফতর এবং এনফোর্সমেন্ট ডায়রেক্টরেট আগেই প্রণয় রায় এবং তাঁর কোম্পানিকে নোটিস পাঠিয়েছে। সোমবারের সিবিআই হানা এতে নতুন মাত্রা যোগ করল।

সিবিআইয়ের তল্লাশি প্রসঙ্গে সংস্থার এক আধিকারিক বলেন, “আইসিসিআই ব্যাঙ্কের ক্ষতি করার অভিযোগে প্রণয় রায়, তাঁর স্ত্রী রাধিকা রায় এবং তাঁদের কোম্পানি আরআরপিআর হোল্ডিং প্রাইভেট লিমিটেডের বিরুদ্ধে সিবিআই মামলা দায়ের করে।” আরআরপিআর-এর শেয়ারহোল্ডার প্রণয় ও রাধিকা। সেই কোম্পানি ২০০৮ সালের অক্টোবরে ৩৭৫ কোটি টাকা ঋণ নিয়েছিল আইসিসিআই ব্যাঙ্কের কাছ থেকে। সিবিআই সূত্রে বলা হয়েছে, এক বছর পরে ৪৮ কোটি টাকা কমে ওই ঋণ মেটানো হয়।

সিবিআইয়ের এক প্রবীণ আধিকারিক বলেন, গত বছর ফেব্রুয়ারিতে গ্লোবাল ট্রাস্ট ব্যাঙ্কের মামলায় সুপ্রিম কোর্ট যে নির্দেশ দিয়েছিল, সেই যুক্তিতেই প্রণয় রায় ও রাধিকা রায় এবং তাঁদের কোম্পানির অফিস ও বাড়িতে তল্লাশি চালিয়েছে সিবিআই। ওই মামলায় শীর্ষ আদালত বলে, বেসরকারি ব্যাঙ্কের প্রধানদেরও দুর্নীতি প্রতিরোধ আইন অনুসারে ‘সরকারি চাকুরে’ হিসাবে গণ্য করতে হবে। সুতরাং ওই সব ব্যাঙ্কে রাখা টাকা নয়ছয় হলে তারও তদন্ত করতে হবে।

তবে সংশ্লিষ্ট ব্যাঙ্ক প্রণয়-রাধিকা এবং তাঁদের কোম্পানির বিরুদ্ধে কোনো মামলা দায়ের করেনি। মামলা করেছে সিবিআইয়ের ব্যাঙ্কিং ফ্রড ডিভিশন।

সিবিআই হানার তীব্র প্রতিবাদ করে দেশের জন্য লড়াই চালিয়ে যাওয়ার বার্তা দিয়েছে এনডিটিভি। তারা বলেছে, “সেই পুরোনো অন্তহীন মিথ্যে অভিযোগের ভিত্তিতে আজ সকালে এনডিটিভি এবং তার প্রোমোটারদের হয়রানি আরও বাড়ায় সিবিআই। বিভিন্ন সরকারি সংস্থা যে ভাবে তাদের অপচ্ছন্দের সংস্থা-ব্যক্তিদের বিপাকে ফেলার চেষ্টা করছে তার বিরুদ্ধে লড়াই চালাবে এনডিটিভি ও তার প্রোমোটাররা। ভারতে গণতন্ত্র এবং মত প্রকাশের স্বাধীনতাকে যে রকম নির্লজ্জ ভাবে রোধ করার চেষ্টা চলছে তার কাছে এনডিটিভি মাথা নত করবে না। ভারতের প্রতিষ্ঠান ধ্বংস করার চেষ্টা যারা চালাচ্ছে তাদের কাছে আমাদের একটাই বার্তা: আমরা আমাদের দেশের জন্য লড়ব এবং এই সব অবাঞ্ছিত শক্তিকে হারাবই।

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here