নয়াদিল্লি: সংসদ উত্তাল হতেই ‘নারীবিদ্বেষী’ প্রশ্ন প্রত্যাহার করে নিল সিবিএসই। দশম শ্রেণির বোর্ড পরীক্ষার ইংরেজির বিতর্কিত প্রশ্ন প্রত্যাহারের কথা ঘোষণা করা হল সোমবার। সিবিএসই জানিয়েছে, যে পরীক্ষার্থীরা ওই প্রশ্নের উত্তর লিখেছে, তাদের প্রত্যেককেই পুরো নম্বর দেওয়া হবে।

সিবিএসই পরীক্ষার বিতর্কিত প্রশ্ন ঘিরে সোমবার অশান্তি হয় সংসদে। কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গান্ধী, সিবিএসই দশম শ্রেণির পরীক্ষার ওই প্রশ্নকে ‘চরম নারীবিদ্বেষী’ বলেন। সংসদে জিরো আওয়ারে বক্তৃতায় তিনি বলেন, ‘‘কেন্দ্রীয় সরকাররের এ জন্য নিঃশর্তে ক্ষমা চাওয়া উচিত।’’ কংগ্রেস-সহ কয়েকটি বিরোধী দলের সাংসদেরা কেন্দ্র নিয়ন্ত্রিত সিবিএসই-র এই পদক্ষেপের প্রতিবাদ ওয়াকআউট করেন।

দশম শ্রেণির পরীক্ষায় ইংরেজি কম্প্রিহেনশনের একটি প্রশ্নে বলা হয়, ‘স্ত্রী যদি স্বামীর কথা মেনে চলেন, তবে সন্তানেরাও তাঁদের মায়ের বাধ্য হবে’। অন্য একটি বাক্যে বলা হয়, ‘মা আশকারা দেন বলেই সন্তানকে নিয়ন্ত্রণ করতে অভিভাবকদের সমস্যা হয়’।

কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী সোমবার টুইটারে লেখেন, “সিবিএসইর এ বারের পরীক্ষার বেশির ভাগ প্রশ্নই কঠিন। ইংরেজি পরীক্ষার কম্প্রিহেনশন অংশ একেবারে ঘৃণ্য। আরএসএস এবং বিজেপি মিলে দেশের যুবসমাজের নৈতিকতা এবং ভবিষ্যৎ শেষ করতে চাইছে। শিশুরা তোমাদের সেরাটা দাও। কঠোর পরিশ্রমই কাজে দেয়, ধর্মান্ধতা নয়।”

আরও পড়তে পারেন

বিতর্কিত মন্তব্যের জের, প্রাক্তন প্রধান বিচারপতির বিরুদ্ধে স্বাধিকার ভঙ্গের নোটিস তৃণমূলের

কাশীতে একটাই সরকার, তার হাতেই ডমরু: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

মমতার উপস্থিতিতে তৃণমূলে যোগ দিলেন গোয়ার আরও এক প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী 

২১ বছর পর ‘মিস ইউনিভার্স ২০২১’ খেতাব ভারতে, জিতলেন হরনাজ সাঁধু

চলতি বছরের রামানুজন পুরস্কার পেলেন কলকাতার গণিতজ্ঞ নীনা গুপ্তা

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন