YouTube
প্রতীকী

কলকাতা: ‘ভারতবিরোধী অপপ্রচার’ চালানোর অভিযোগে আরও আটটি ইউটিউব চ্যানেলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিল নরেন্দ্র মোদী সরকার। কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের তরফে বৃহস্পতিবার জানানো হয়েছে, জাতীয় নিরাপত্তা, বৈদেশিক সম্পর্ক এবং দেশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি সম্পর্কে ভুয়ো এবং অসত্য তথ্য ছড়ানোর অভিযোগে ওই আটটি ইউটিউব চ্যানেলকে ‘ব্লক’ করা হয়েছে।

নিষিদ্ধ ঘোষিত চ্যানেলগুলির মধ্যে ১টি পাকিস্তানের। বাকি সাতটি চ্যানেলই ভারতের। এই আটটি চ্যানেলের সম্মিলিত দর্শকসংখ্যা প্রায় ১১৪ কোটি। এর পাশাপাশি ‘ভারতবিরোধী অপপ্রচারের’ অভিযোগ বৃহস্পতিবার দু’টি ফেসবুক পোস্ট এবং একটি ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ‘ব্লক’ করার কথা জানিয়েছে কেন্দ্র।

বৃহস্পতিবার তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের তরফে বিবৃতি প্রকাশ করে জানানো হয়েছে, “২০২১ সালের সংশোধিত তথ্যপ্রযুক্তি আইন অনুযায়ী এই পদক্ষেপ করা হয়েছে। নিষিদ্ধ ঘোষিত আটটি ইউটিউব চ্যানেলের তালিকা প্রকাশ করে কেন্দ্রের দাবি, অপপ্রচার চালানোর পাশাপাশি নিষিদ্ধ ঘোষিত ইউটিউব চ্যানেলগুলির কয়েকটির বিরুদ্ধে জনপ্রিয় টিভি চ্যানেলের ‘লোগো’ নকল করে মিথ্যা খবর পরিবেশনের অভিযোগের প্রমাণ মিলেছে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ভুয়ো তথ্য ছড়ানোর অভিযোগে গত বছরের ডিসেম্বর মাস থেকে এ পর্যন্ত শতাধিক ইউটিউব চ্যানেল বন্ধ করল কেন্দ্র।

আরও পড়তে পারেন:

‘কেউ ছাড় পাবে না’, আদালতে দাঁড়িয়ে চাঞ্চল্যকর মন্তব্য পার্থর

দু’জনেই নাগপুরের বাসিন্দা, আরএসএস-ঘনিষ্ঠ, কেন ফডণবীসকে জায়গা দিতে সরানো হল গডকরীকে

বিহারে পালাবদলের পর প্রথম বার লালু-নীতীশ সাক্ষাৎ

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন