Aadhaar teacher

ওয়েবডেস্ক: মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রক অনেক দিন আগেই ঘোষণা করেছে, প্রত্যেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের যত শীঘ্র সম্ভব আধার নম্বর নথিভুক্ত করাতে হবে। কিন্তু সেই নির্দেশ জারির পর বছর ঘুরলেও বহুলাংশে নিয়ম মানার তাগিদ দেখা যাচ্ছে না। যে কারণে মন্ত্রক নিয়ম শিথিল করল।

মন্ত্রক জানিয়ে দিল, যে সমস্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা এখনও পর্যন্ত আধার নম্বর জোগাড় করে উঠতে পারেননি তাঁরা যেন তাঁদের প্যান কার্ড নম্বরটি প্রতিষ্ঠানের কর্তৃপক্ষের কাছে পেশ করেন। অর্থাৎ, আধার নম্বর হাতে না পাওয়া পর্যন্ত আপাতত প্যান নম্বরেই কাজ সারতে চাইছে মন্ত্রক।

অল ইন্ডিয়া সার্ভে অন হাইয়ার এডুকেশন প্রকল্পে এই আধার সংযোগ করার নির্দেশ দিয়েছিল মন্ত্রক। জানা গিয়েছে আগামী ৩ এপ্রিল ঘোষণা হতে চলেছে ন্যাশনাল ইনস্টিটিউশনাল ফ্রেমওয়ার্ক। এই প্রকল্পের জন্য তড়িঘড়ি কাজ সারতে প্যান কার্ডের নম্বরে জোর দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া রয়েছে, আরও একটি গুরুত্ব পূর্ণ কারণ, যা নিয়ে সাম্প্রতিক অতীতে দেশজুড়ে উদ্দীপনার সৃষ্টি হয়েছিল।

জানা গিয়েছে, প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কাছে স্থায়ী শিক্ষক এবং ফ্যাকাল্টিদের আধার নম্বর চেয়ে পাঠানোর পরবর্তী সময়ে মন্ত্রক জানতে পেরেছে, এই মুহূর্তে সারা দেশে প্রায় ৮০ হাজারে ভুতুড়ে শিক্ষক রয়েছেন। খাতায়-কলমে যাঁদের অস্তিত্ব থাকলেও বাস্তবে তাঁরা অদৃশ্য। মন্ত্রকের অভিমত, কিছু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষের দূরভিসন্ধির কারণেও ওই সমস্ত শিক্ষকরা মাসের পর মাস বেতন ও অন্যান্য সুযোগ পেয়ে যাচ্ছেন। আধার নম্বর সংযুক্ত করার পদ্ধতিতে তাই এতটাই অনীহা ওই সমস্ত প্রতিষ্ঠানগুলির। বারবার তাদের তরফে অভিযোগ করা হয়েছে, আধার কার্ড না থাকায় ওই প্রকল্প সম্পূর্ণ করা যাচ্ছে না। এ বার আধারের পরিবর্তে প্যান নম্বর চেয়ে পাঠানোয় ওই সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলি আর রেহাই পাবে না বলেই মনে করছে মন্ত্রক।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন