কেন্দ্রীয় বাজেট ২০১৯: কর্পোরেট করে বড়ো ছাড়, ব্যাঙ্ক থেকে নির্দিষ্ট পরিমাণ নগদ তুললে টিডিএস

0

নয়াদিল্লি ইতিহাস সৃষ্টি করলেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন। প্রথম পূর্ণাঙ্গ মহিলা অর্থমন্ত্রী হিসেবে বাজেট পেশ করছেন তিনি। দেখে নিন ২০১৯ কেন্দ্রীয় বাজেটের খুঁটিনাটি।

======================================

***** শেষ হল বাজেট পেশ। সোমবার পর্যন্ত সংসদ মুলতুবী ঘোষণা করলেন স্পিকার ওম বিড়লা।

***** ঘাটতি এখন ৩.৩ শতাংশ।

***** ধনীদের আয়ে বাড়তি সারচার্জ।

***** ব্যাঙ্ক থেকে বছরে ১ কোটি টাকা নগদ তুললে দুই শতাংশ টিডিএস।

***** অনলাইন পেমেন্টে বাড়তি কোনো চার্জ নয়।

***** প্যান ছাড়াও আধার দিয়ে করা যাবে আয়কর রিটার্ন

***** বৈদ্যুতিন গাড়ি কিনলে দেড় লক্ষ টাকা পর্যন্ত কর ছাড়। জিএসটি ১২ থেকে কমে ৫ শতাংশ। গৃহঋণ সুদে মোট ছাড় সাড়ে তিন লক্ষ টাকা

***** চারশো কোটির লেনদেনে কর ২৫ শতাংশ। আগে ২৫০ কোটি টাকা লেনদেনে ২৫ শতাংশ কর লাগত।

***** চার বছরে চার লক্ষ কোটি টাকা অনাদায়ী ঋণ আদায় হয়েছে।

***** করদাতাদের জন্য সরকারি আয় বেড়েছে: নির্মলা।

***** বিদেশি পর্যটকদের আকৃষ্ট করতে বিশেষ উদ্যোগ। গড়ে তোলা হবে ১৭টি বিশেষ পর্যটন কেন্দ্র।

***** ১, ৫, ১০ ও ২০ টাকার নতুন কয়েক আসবে বাজারে।

***** সরকারি সংস্থায় বড়ো বিলগ্নীকরনের ভাবনা।

***** আগে ৩১৪ দিনে বাড়ি তৈরি হত, এখন ১১৪ দিনে হচ্ছে: নির্মলা

*****গৃহঋণদানকারী সংস্থাগুলির ওপরে নজরদারি চলবে।

***** সৃজনশীল শিল্পী ও কারিগরদের জন্য বিশেষ প্রকল্প। তাঁদের জন্য পেটেন্ট এবং জিওগ্রাফিক ইন্ডিকেশন দেওয়া হবে।    

***** গঙ্গায় পণ্য পরিবহণ চারগুণ বাড়ানোর উদ্যোগ।

***** পাসপোর্ট থাকলেই এনআরআইকে আধার দেওয়া হবে।

***** রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কে ৭০ হাজার কোটি টাকার সাহায্য। সংযুক্তিকরণের পর দেশে সরকারি ব্যাঙ্কের সংখ্যা ৮।

***** অনুৎপাদক সম্পদ বা এনপিএ কমেছে ১ লক্ষ কোটি টাকা।

***** স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মহিলাদের এক কোটি টাকার ঋণের সংস্থান।

***** ভারতকে উচ্চশিক্ষার হাব হিসেবে গড়ে তোলা হবে। বিদেশি পড়ুয়াদের আকৃষ্ট করতে নতুন শিক্ষানীতি।

***** ১ কোটি পড়ুয়াকে কারিগারি শিক্ষা।

***** বাজেট বক্ত্রিতার মধ্যেই নিম্নমুখী শেয়ারবাজার।

***** ২০২৪-এর মধ্যে প্রতিটি ঘরে পানীয় জল।

***** ৩০ হাজার কিমি রাস্তায় সবুজায়ন করা হবে। দিনে ১৩০ থেকে ১৩৫ কিমি রাস্তা তৈরি করা হয়েছে।

***** ক্রিড়াক্ষেত্রে উন্নয়নে নতুন বোর্ড।

***** কেওয়াইসি পদ্ধতিকে আরও সহজ করে তোলা হবে।

***** সংবাদমাধ্যমে বাড়বে বিদেশি বিনিয়োগের সীমা।

***** দেশের অভ্যন্তরীণ পরিবহণে ভারতমালা প্রকল্প চালু করা হচ্ছে।

***** সিঙ্গল ব্র্যান্ডের খুচরো ক্ষেত্রে বিদেশি বিনিয়োগের পথ খোলা হচ্ছে।

***** গত পাঁচ বছর গ্রামীণ আবাস তৈরি করা হয়েছে। আরও ১.৯৫ কোটি নতুন বাড়ি তৈরি করা হবে।

***** বিমা ক্ষেত্রে ১০০ শতাংশ বিদেশি লগ্নি। বিদেশি বিনিয়োগের ক্ষেত্রে নিয়মের সরলীকরণ করা হচ্ছে।

***** গ্রাম, গরিব এবং কৃষকদের উন্নয়নে জোর।

***** সরকারি জানবাহনে যাতায়াতের জন্য নির্দিষ্ট একটি কার্ড তৈরি করা হবে।

***** ব্যক্তিগত এবং গণ পরিবহণে এই ব্যাটারি চালিত বা ইলেকট্রিক যান ব্যবহারে জোর দেওয়া হবে 

***** নতুন ৩০০ কিমি মেট্রো লাইন তৈরি করা হবে।

***** ফরাক্কা এবং হলদিয়ায় নেভিগেশন গেট তৈরি হবে।

***** প্রধানমন্ত্রী কর্মযোগী প্রকল্প চালু হচ্ছে।

***** দেড় কোটি পর্যন্ত বার্ষিক লেনদেনে পেনশন।

***** মাঝারি ও ক্ষুদ্র শিল্পে উন্নয়নে জোর। ৫৯ সেকন্ডে ১ কোটি টাকা ঋণের ব্যবস্থা।

***** ২০৩০-এর মধ্যে রেলে ১৫ লক্ষ কোটি টাকা বিনিয়োগ হবে।

***** বিমান পরিবহণ বৃহত্তম ক্ষেত্র। আরও বিনিয়োগ হবে এই ক্ষেত্রে।

***** অভ্যন্তরীণ শুল্ক নীতি কিছু ক্ষেত্রে পরিবর্তনের কথা ভাবা হচ্ছে।

**** এক দেশ এক গ্রিড বিদ্যুৎ প্রকল্প চালু করা হবে।

**** ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের জন্য পেনশনের ব্যবস্থা। ৩ কোটি ব্যবসায়ী উপকৃত হবেন।

**** চাণক্য নীতি ও উর্দু সায়েরি দিয়ে বাজেট পেশ শুরু অর্থমন্ত্রীর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.