শ্রীনগর: কাশ্মীর উপত্যকায় আপাতত দমন নীতিতেই আস্থা রাখছে কেন্দ্র। সেই কারণে শুক্রবার রাতে বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতাদের আটক করার পর শনিবার সকালে ১০০ কোম্পানি আধাসেনাকে উড়িয়ে নিয়ে গেল কেন্দ্র।

শুক্রবার রাতে জম্মু কাশ্মীর লিবারেশন ফ্রন্টের নেতা ইয়াসিন মালিক এবং জামাত-এ-ইসলামি দলের দুই ডজন নেতাকে আটক করেছে কাশ্মীর পুলিশ। এর পর উপত্যকায় ক্ষোভ আরও বাড়তে পারে, সেটা আন্দাজ করেই সম্ভবত এই আধাসেনা পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন পরোয়ানা ছাড়াই গ্রেফতারির ক্ষমতা অসম রাইফেল্‌সকে, ক্ষোভের আঁচ পেয়ে নির্দেশিকা বাতিল কেন্দ্রের

১০০ কোম্পানির মধ্যে রয়েছে ৪৫ কোম্পানি সিআরপিএফ, ৩৫ কোম্পানি বিএসএফ। এ ছাড়াও দশ কোম্পানি করে জওয়ান রয়েছেন সশস্ত্র সীমা বল এবং আইটিবিপির।

এ দিকে শুক্রবার রাতে বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতাদের আটক করা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি। গ্রেফতার করে কারও মতাদর্শ থামিয়ে দেওয়া যায় না বলে মন্তব্য করেন তিনি। পাশাপাশি মেহবুবা এ-ও মনে করেন যে এর ফলে কাশ্মীরকে আরও অনিশ্চয়তার দিকে ঠেলে দেওয়া হল।

তবে এখনও পর্যন্ত এই আটক করার খবরের সত্যতা পুলিশ বা নিরাপত্তাবাহিনীর তরফ থেকে স্বীকার করা হয়নি।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here