school-teacher
প্রতীকী ছবি

ওয়েবডেস্ক: পাশ-ফেল প্রথা নিয়ে চূড়ান্ত সম্মতি দিল কেন্দ্র। এই বিষয়ে সোমবার গেজেট বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে তারা। এর মধ্যে দিয়ে পঞ্চম ও অষ্টম শ্রেণিতেই যে কেন্দ্র পরীক্ষাব্যবস্থা চালু করতে চায় সেই নির্দেশিকা জারি হয়ে গেল। বিজ্ঞপ্তিতে স্পষ্ট উল্লেখ করা হয়েছে, বছরশেষে এ বার থেকে পঞ্চম ও অষ্টম শ্রেণির পড়ুয়াদের পরীক্ষায় বসতে হবে। তবে কোনো পড়ুয়া পরীক্ষায় ফেল করলে ফের দু’মাসের মধ্যে সেই পড়ুয়া আবার সুযোগ পাবে।

ইতিমধ্যেই রাজ্যসভা ও লোকসভায় শিক্ষার অধিকার আইন পাশ হয়েছে। এই আইন পাশ হওয়ার পর গেজেট বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ হওয়া স্বাভাবিকই ছিল। শিক্ষার অধিকার আইন সংশোধন অনুযায়ী পঞ্চম ও অষ্টম শ্রেণিতে পরীক্ষা নিতে হবে। এই পরীক্ষায় কেউ ফেল করলে তাঁকে দু’মাসের মধ্যে ফের পরীক্ষায় বসার সুযোগ করে দিতে হবে। তাতেও সংশ্লিষ্ট পরীক্ষার্থীরা পাশ করতে না পারলে তখন সেই রাজ্যের সরকারকে ঠিক করতে হবে এই অকৃতকার্য পড়ুয়াদের কী হবে। এই বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত কোনো পড়ুয়াকে স্কুল থেকে তাড়িয়ে দেওয়া যাবে না।

সোমবার এই বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, “কোন শ্রেণিতে পাশ ফেল চালু হবে সে ব্যাপারে সরকার এখনও কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি।”

আরও পড়ুন স্কুলে শিক্ষক সমস্যা মেটাতে বড়ো ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

এই প্রসঙ্গে বঙ্গীয় শিক্ষক ও শিক্ষাকর্মী সমিতির সহ-সাধারণ সম্পাদক স্বপন মণ্ডল বলেন, “বামফ্রন্ট আমলে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত নো ডিটেনশন প্রথা চালু হয়েছিল। এটাকেই আমরা সঠিক বলে মনে করি। আমাদের দেশ সামন্ততান্ত্রিক মানসিকতায় ভুগছে। সেই কারণেই বিজেপি সরকার তড়িঘড়ি এই গেজেট বিজ্ঞপ্তি পাশ করল।”

পশ্চিমবঙ্গ সরকারি বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সৌগত বসু বলেন, “পাশ ফেল ফিরিয়ে আনা প্রয়োজন। কেন্দ্রীয় সরকারের নিয়মানুসারে তা ফিরে আসছে। আমরা চাই তৃতীয় শ্রেণি থেকেই পাশ-ফেল ফিরুক।”

এ দিকে এসইউসিআইয়ের শিক্ষক সমিতির প্রথম থেকেই দাবি, পঞ্চম বা তৃতীয় নয়, প্রথম শ্রেণি থেকেই ফিরুক পাশ ফেল প্রথা।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here