Connect with us

দেশ

পুজোর আগে বঙ্গোপসাগরে ঝড়ের গন্ধ

এই সময়ে আন্দামান সাগরে তৈরি নিম্নচাপ সাধারণত ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়।

Published

on

bay of bengal

খবরঅনলাইন ডেস্ক: গত বছর ঘূর্ণিঝড় ফণী (Cylone Fani) যখন হুংকার দিয়েও সে ভাবে পশ্চিমবঙ্গে প্রভাব ফেলতে পারেনি, তখন কলকাতাবাসীর একটা বড়ো অংশই তাচ্ছিল্য করেছিলেন। কিন্তু তার ঠিক এক বছর পর ঘূর্ণিঝড় উম্পুন (Cyclone Amphan) যখন অতি শক্তিশালী রূপ নিয়ে হানা দিল, তখন সেই তাচ্ছিল্যের সুর বদলে গেল।

আবহাওয়ার অবস্থা নিয়ে যে হেয় করা উচিত নয় সেটাই বুঝিয়ে দিয়েছিল উম্পুন। চারিদিকে ধ্বংসের চেহারা দেখে বিষণ্ণ হয়ে পড়েছিলেন কলকাতা তথা দক্ষিণবঙ্গের মানুষজন। আর কোনো দিন যাতে ঘূর্ণিঝড় না দেখতে হয়, সেই প্রার্থনাও করছেন অনেকে।

Loading videos...

যদিও আগামী কয়েক দিনের মধ্যেই বঙ্গোপসাগরে (Bay of Bengal) একটি ঝড় তৈরি হওয়ার সম্ভাবনা হয়েছে। সেটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপান্তরিত হতেও পারে, আবার অতি গভীর নিম্নচাপেও থেকে যেতে পারে। কিন্তু যতক্ষণ না তার রূপ আর গতিপথ নিয়ে স্পষ্ট ধারণা তৈরি হচ্ছে, তত দিন চিন্তা থাকবেই রাজ্যবাসির কাছে।

আন্দামান সাগরে তৈরি নিম্নচাপ ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়

বেসরকারি আবহাওয়া সংস্থা ওয়দার আল্টিমা কিছু দিন আগে থেকেই এমন পূর্বাভাস দিচ্ছিল। এ বার কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দফতরও জানিয়ে দিয়েছে যে আগামী ৯ অক্টোবর উত্তর আন্দামান সাগরে (Andaman Sea) একটি নিম্নচাপ তৈরি হবে। নিম্নচাপটি শক্তি বাড়িয়ে ওড়িশা এবং উত্তর অন্ধ্রপ্রদেশ উপকূলের দিকে এগোবে বলেও ইঙ্গিত করছে আইএমডি। কিন্তু তার পরবর্তী গতিপ্রকৃতির ব্যাপারে আর কিছু বলা হয়নি।

অতীতের রেকর্ড ঘাঁটলে দেখা যাবে যে এই সময়ে আন্দামানের নিম্নচাপ তৈরি হয়ে পূর্ব ভারতের উপকূলের দিকে এগোলে সেটা ঘূর্ণিঝড়েই রূপান্তরিত হয়। ২০১৩ সালে ওড়িশায় আঘাত হানা ফাইলিন বা তার ঠিক পরের বছর বিশাখাপত্তনমকে তছনছ করে দেওয়া হুডহুডের জন্ম ঠিক এই সময়েই আন্দামান সাগরে হয়েছিল।

তবে আসন্ন নিম্নচাপটি ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবেই, এমনটা এখনও নিশ্চিত করছে না ওয়েদার আল্টিমা। সংস্থার কর্ণধার রবীন্দ্র গোয়েঙ্কার বর্তমান পর্যবেক্ষণ অনুযায়ী নিম্নচাপটি সাগরে থাকাকালীন অল্প কিছু সময়ের জন্য ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হতে পারে। তবে স্থলভূমিতে ঢোকার আগেই সেটা গভীর নিম্নচাপে দুর্বল হয়ে যেতে পারে বলে মনে করছেন তিনি।

সম্ভাব্য গতিপথ

বঙ্গোপসাগরের চালচলন সাম্প্রতিক কালে এতটাই অস্থির হয়ে গিয়েছে যে পাঁচ-ছয় দিন আগে নিশ্চিত করে কোনো নিম্নচাপ বা ঘূর্ণিঝড়ের গতিপথের ব্যাপারে পূর্বাভাস দেওয়া যায় না। তাই বর্তমানে নিশ্চিত করে কোনো গতিপথের কথা এখনও বলা যাচ্ছে না।

তবে বর্তমান পরিস্থিতি অনুযায়ী, নিম্নচাপ বা ঘূর্ণিঝড় যা-ই হোক না কেন, তার সরাসরি আঘাত থেকে হয়তো রক্ষা পেয়ে যেতে পারে পশ্চিমবঙ্গ। ওড়িশা এবং উত্তর অন্ধ্রপ্রদেশের দিকেই তার আছড়ে পড়ার সম্ভাবনা খুব বেশি। যদিও শেষ মুহূর্তে গতিপথ পরিবর্তন করার যাবতীয় সম্ভাবনাও এক্কেবারে উড়িয়ে দেওয়া যায় না।

কেমন প্রভাব পড়তে পারে পশ্চিমবঙ্গে

যে বিষয়টা এখন বেশি গুরুত্বপূর্ণ, সেটা হল এখন উত্তর ভারতের একটা বড়ো অংশে বর্ষা বিদায় নিয়েছে। বর্ষা বিদায় নেওয়ার এই সময়টায় বঙ্গোপসাগরের কোনো নিম্নচাপের আচমকা পথ পরিবর্তন হতেই পারে। আন্দামানের দিক থেকে উত্তর-পশ্চিম দিকে এগোতে এগোতে, আচমকা উত্তর বা উত্তরপূর্বমুখী হয়ে যেতে পারে সে। সে ক্ষেত্রে পশ্চিমবঙ্গ উপকূলে সরাসরি আঘাতের সম্ভাবনা থাকে।

তবে নিম্নচাপ বা ঘূর্ণিঝড় সেটা যা-ই হোক না কেন, ওড়িশা দিয়ে প্রবেশ করলেও বর্ষাকালের মতো সে আর মধ্য ভারতের দিকে এগোতে পারবে না। ফলে স্থলভূমিতে ঢুকেই তার গতিপথ উত্তরপূর্বমুখী হতে পারে। অর্থাৎ, পশ্চিমবঙ্গের দিকে এগোতে পারে সে। তবে সে ক্ষেত্রে স্থলভূমি দিয়ে এগোবে বলে অনেকটাই দুর্বল হয়ে রাজ্যে প্রবেশ করতে পারে।

২০১৮ সালের অক্টোবরে ঘূর্ণিঝড় তিতলি (Cylone Titli) ঠিক এই পথ অনুসরণ করেছিল। দক্ষিণ ওড়িশায় আঘাত হেনে সে উত্তরপূর্বে, অর্থাৎ পশ্চিমবঙ্গের দিকে ঘুরে গিয়েছিল। এ রাজ্যে সে ঢুকেছিল গভীর নিম্নচাপ হয়ে। ফলে তার প্রভাবে দিন তিনেক ভালো বৃষ্টি আর ঝোড়ো হাওয়া বয়ে গিয়েছিল দক্ষিণবঙ্গে।

আসন্ন নিম্নচাপটির ক্ষেত্রেও তেমনটাই হতে পারে বলে মনে করছে ওয়েদার আল্টিমা। অর্থাৎ, ১১ অক্টোবরের পর থেকে দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টির দাপট বাড়বে। নিম্নচাপটির গতিপ্রকৃতির ওপরে নির্ভর করে দক্ষিণবঙ্গে ঝোড়ো হাওয়া থাকবে কি না, বা থাকলেও কী রকম থাকবে। তবে নিম্নচাপটির গতিপ্রকৃতি ১০ অক্টোবরের আগে ভালো করে বোঝা যাবে না।

আগামী দু’ দিন বৃষ্টি চলবে দক্ষিণবঙ্গে

বর্তমানে বঙ্গোপসাগরের ওপরে একটি নিম্নচাপ রয়েছে। সেটি স্থলভূমিতে না ঢুকে ঠায় দাঁড়িয়ে রয়েছে ওড়িশা আর পশ্চিমবঙ্গ উপকূলের কাছে বঙ্গোপসাগরের ওপরে। তার প্রভাবেই গত কয়েক দিনে দক্ষিণবঙ্গে দফায় দফায় বৃষ্টি হয়েছে।

নিম্নচাপটির প্রভাব আরও দু’ দিন থাকবে। ফলে আগামী ৪৮ ঘণ্টায় দফায় দফায় হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি চলতে পারে দক্ষিণবঙ্গে। বৃহস্পতিবারের পর থেকে আবহাওয়া পরিষ্কার হতে পারে। পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলিতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা কিছুটা কমতে পারে, সকালের দিকে হালকা কুয়াশাও দেখা দিতে পারে।

অন্য দিকে উত্তরবঙ্গে আগামী কয়েক দিন বৃষ্টি চলতে থাকবে। বিক্ষিপ্ত ভাবে ভারী বৃষ্টিও হতে পারে। তবে অতি ভারী বৃষ্টির কোনো সম্ভাবনা নেই।

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

করোনাভাইরাসের বাহক হতে পারে নোটও, মানছে আরবিআই: সিআইএটি

Advertisement
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

দেশ

স্বামী থাকতেও প্রেমিক খুঁজছেন ভারতের বিবাহিত মহিলারা! এটা কি খারাপ খবর?

ব্যভিচারের আইন নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের তাৎপর্যপূর্ণ রায়ের দু’বছর পরে পরিস্থিতিটা ঠিক কী রকম?

Published

on

ওয়েবডেস্ক: ‘ব্যভিচার’ সব সময়েই একটি বহুল চর্চার বিষয়। সেটা হতে পারে আইনি অথবা নৈতিক দিক থেকে। তবে পুরুষ এবং মহিলাদের জন্য প্রযোজ্য নিয়মগুলি বেশ কিছু ক্ষেত্রেই আলাদা ছিল। এ দেশের পুরুষরা নিজের স্ত্রীর সঙ্গে সম্পর্কে জড়ানো অন্য কারও বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করতে পারতেন। কিন্তু অনুরূপ পরিস্থিতিতে কোনো নারীর এই অধিকার ছিল না পুরনো আইনে। তবে ব্যভিচার আইন নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের তাৎপর্যপূর্ণ রায়ের দু’বছর পরে পরিস্থিতিটা ঠিক কী রকম?

সাম্প্রতিক একটি সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, ভারতে একটা বড়ো অংশের মহিলা বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্কের পক্ষেই এবং তাঁদের বেশিরভাগই ইতিমধ্যে মা হয়েছেন।

Loading videos...

কী বলছে সমীক্ষা?

এই সমীক্ষাটি করেছে ফ্রান্সের বিবাহ-বহির্ভূত ডেটিং অ্যাপ ‘গ্লিডেন’। এটা এমন একটা প্ল্যাটফর্ম, যা মহিলাদের জন্য তৈরি এবং মহিলারাই পরিচালনা করেন। বিশেষত নিরাপদ এবং বিচক্ষণ সম্পর্ক গড়ার হদিশ দেওয়ার লক্ষ্যে কাজ করে অ্যাপটি। বর্তমানে ভারতে এই অ্যাপের ব্যবহারকারীর সংখ্যা ১৩ লক্ষ।

সমীক্ষকদের দাবি, সারা ভারত জুড়ে ৩০-৬০ বছর বয়সের শহুরে, শিক্ষিত এবং আর্থিক ভাবে স্বতন্ত্র মহিলাদের দৃষ্টিভঙ্গির প্রতিফলন ঘটেছে এই সমীক্ষায়। তাতে দেখা গিয়েছে, বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্ক জড়ানো ৪৮ শতাংশ ভারতীয় মহিলা শুধু বিবাহিত-ই ছিলেন না, তাঁদের সন্তানও রয়েছে।

দ্য নিউ ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসে প্রকাশিত ওই সমীক্ষা রিপোর্ট বলা হয়েছে, বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্ক রয়েছে সমীক্ষায় অংশ নেওয়া এমন ৬৪ শতাংশ মহিলা জানিয়েছেন, যৌন সম্পর্কের ঘাটতির কারণেই তাঁরা এ ধরনের সম্পর্ক তৈরি করেছিলেন।

পুরুষরা আরও বেশি ব্যভিচারী?

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বৈবাহিক সম্পর্কের বাইরে ভালোবাসার সন্ধানে ৭৬ শতাংশ মহিলা শিক্ষিত এবং আর্থিক ভাবে স্বাবলম্বী ছিলেন।

বিশ্লেষকরা বলছেন, পাশ্চত্যের নারীদের মধ্যে এ ধরনের ‘আনুগত্যহীন’ হয়ে ওঠার প্রবণতা দেখা যায়। তবে সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, নারীর তুলনায় পুরুষরা আরও বেশি করে ব্যভিচারী হিসেবে প্রমাণিত হয়েছেন। ‘হোয়েন ইউ আর দ্য ওয়ান হু চিটস’-এর লেখক ট্যামি নেলসন বলছেন, “মহিলারা শুধু আরও প্রতারণা করছেন তা নয়, বরং প্রায়শই এখান থেকে পালিয়ে যেতেও পারেন”।

২০২০ সালে গ্লিডেনের একটি সমীক্ষায় দেখা গিয়েছিল, সমীক্ষায় অংশ নেওয়া ৫৫ শতাংশ মানুষই মেনে নিয়েছেন তাঁরা নিজেদের সঙ্গীকে প্রতারণা করেছেন। এঁদের মধ্যে মহিলার হার ৫৬ শতাংশ। ২৫ থেকে ৫০ বছর বয়সি ১,৫২৫ জন বিবাহিত ভারতীয় নারী-পুরুষের মধ্যে পরিচালিত এই সমীক্ষায় ৪৮ শতাংশই স্বীকার করে নেন, একই সময়ে একাধিক ব্যক্তির সঙ্গে প্রেম করা সম্ভব।

হয়তো বা সংখ্যাতত্ত্বে বোঝানো যেতে পারে যে বিবাহিত মহিলাদের মধ্যে ব্যভিচার বাড়ছে। তবে অন্য গবেষণাগুলির তথ্যের সাহায্যে সংখ্যার পরিবর্তনটি আনুগত্যহীনতা সম্পর্কে পিতৃতান্ত্রিক মনোভাবের পরিবর্তনের প্রতিফলন ঘটাতে পারে।

দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন কী ভাবে?

আদতে পুরুষদের জন্য ‘ঐতিহ্য’গত ভাবে ছাড় থাকলেও মহিলাদের মধ্যে আনুগত্যহীনতা পুরোপুরি ‘নিষিদ্ধ’ ছিল। তবে ২০১৮ সালে সুপ্রিম কোর্ট সর্বসম্মত ভাবে জানায়, ৪৯৭ ধারা অসাংবিধানিক, এবং ব্যভিচার আইনত শাস্তিযোগ্য অপরাধ নয়। শীর্ষ আদালত বলে, “ব্যভিচারকে কিছু সামাজিক পরিস্থিতিতে কারণ হিসেবে ধরা যেতে পারে, যেমন বিবাহ বিচ্ছেদ, কিন্তু তা কখনোই অপরাধমূলক বলে গণ্য হতে পারে না। ব্যভিচার নারীর নিজস্ব সত্তাকে আঘাত করে।”

শীর্ষ আদালত জানিয়ে দিয়েছে, স্বামীরা সে অর্থে স্ত্রীর প্রভু নন। এই ধারণা পাল্টানোর সঙ্গেই মহিলারা বৈবাহিক সম্পর্কের ক্ষেত্রেও লিঙ্গবৈষম্য ঘোচানোয় জোর দিচ্ছেন। আইনগত পরিবর্তন, মহিলাদের যৌনতা সম্পর্কে সচেতনতা এবং তাঁদের দেহের প্রতি নিজের অধিকার নিয়ে দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন ঘটছে বলে মনে করেন বিশ্লেষকরা।

অন্তর্নিহিত সমস্যার লক্ষণ

আরও বেশি মহিলা প্রতারণা করছেন কি না, সম্ভবত সেটা আসল প্রশ্ন নয়। কিন্তু প্রশ্নটা হল, বিবাহিত দম্পতিদের কেন প্রতারণার প্রয়োজন? পুরুষরা বিশ্বজুড়ে মহিলাদের চেয়ে বেশি প্রতারণা চালিয়ে যান এবং এখনও তাঁদের বয়স বা অন্যান্য অবস্থান সম্পর্কে কোনো প্রশ্ন উত্থাপিত হয় না। ইউএস জেনারেল সোশ্যাল সার্ভে বলছে, ২০ শতাংশ পুরুষ নিজের স্ত্রীর সঙ্গে প্রতারণা করেছেন। বিপরীতে স্ত্রীদের ক্ষেত্রে এই হার ১৩ শতাংশ।

মোদ্দাকথা, বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্ক বেছে নেওয়ার নেপথ্যে রয়েছে শারীরিক এবং মানসিক ঘাটতি পূরণ। বৈবাহিক সম্পর্কে যেগুলিতে দু’জনেরই সমান অধিকার। ফলে ‘বিশ্বাসভঙ্গ’কে কারণ হিসেবে না দেখে অন্তর্নিহিত সমস্যার লক্ষণ হিসেবেই দেখছেন সমীক্ষকরা।

আরও পড়তে পারেন: শুধু স্ত্রী এবং সন্তানেরা নয়, ছেলের উপার্জনের ভাগিদার বাবা-মা, তাৎপর্যপূর্ণ রায় আদালতের

Continue Reading

দেশ

ফের বাড়ছে উদ্বেগ! ৮টি রাজ্যেকে বিশেষ করোনা-পরামর্শ কেন্দ্রের

৬৩টি জেলা “উদ্বেগের কারণ” হয়ে উঠেছে।

Published

on

কোভিড-১৯ নমুনা পরীক্ষা বাড়াতে বলল কেন্দ্র। নাইসেড পরিদর্শনে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. হর্ষ বর্ধন

খবর অনলাইন ডেস্ক: ফের অস্বস্তি বাড়াচ্ছে করোনা সংক্রমণের দৈনিক পরিসংখ্যান। শনিবার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আট রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলকে বিশেষ পরামর্শ দিল কেন্দ্রীয় সরকার।

নমুনা পরীক্ষা, কোভিডরোগীদের চিহ্নিতকরণ এবং চিকিৎসা শুরুর প্রক্রিয়া কার্যকরের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রের তরফে। আটটি রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলির মধ্যে রয়েছে হরিয়ানা, অন্ধ্রপ্রদেশ, ওড়িশা, গোয়া, হিমাচলপ্রদেশ, উত্তরাখণ্ড, দিল্লি এবং চণ্ডীগড়। এই রাজ্যগুলিকে বলা হয়েছে, নমুনা পরীক্ষা বাড়িয়ে সন্দেহজনকদের চিহ্নিতকরণের মাধ্যমে চিকিৎসা শুরু করতে হবে। একই সঙ্গে অত্যধিক সংক্রমণ প্রবণ এলাকায় টিকাকরণ কর্মসূচিতেও জোর দিতে বলা হয়েছে।

Loading videos...

স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানিয়েছে, আটটি রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের ৬৩টি জেলা “উদ্বেগের কারণ” হয়ে উঠেছে। এই জেলাগুলিতে মোট পরীক্ষা হ্রাস পাচ্ছে, আরটি-পিসিআর পরীক্ষা কম হচ্ছে। অন্যদিকে সাপ্তাহিক আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে।

পাশাপাশি স্বাস্থ্যমন্ত্রক বলেছে, এই ঘটনা প্রতিবেশী রাজ্যগুলির জন্যও ঝুঁকির কারণ হয়ে উঠতে পারে। সরকারি ভাবে দিল্লির ৯টি, হরিয়ানার ১৫টি, অন্ধ্রপ্রদেশে ১০টি, ওড়িশার ১০টি, হিমাচলপ্রদেশের ৯টি, উত্তরাখণ্ডের ৭টি, গোয়ার ২টি এবং চণ্ডীগড়ের ১টি জেলাকে চিহ্নিত করা হয়েছে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রকের এক আধিকারিক বলেন, ইতিমধ্যেই পঞ্জাব এবং মহারাষ্ট্রে উচ্চপর্যায়ের বিশেষজ্ঞ দল পাঠানো হয়েছে। কোভিড -১৯ নজরদারি, নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা নিয়ে রাজ্যের স্বাস্থ্য বিভাগগুলিকে সহায়তা করার জন্যই ওই দলগুলি পাঠানো হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তথ্য অনুযায়ী, শনিবার ভারতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১ কোটি ১১ লক্ষ ৯২ হাজার ৮৮। গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১৮ হাজার ৩২৭। যা আগের দিন ছিল ১৬ হাজার ৮৩৮ জন।

আরও পড়তে পারেন: বাড়ল অস্বস্তি! এক ধাক্কায় ১৮ হাজারের উপর দৈনিক কোভিড আক্রান্ত

Continue Reading

দেশ

নিজস্ব শিক্ষা পর্ষদ গঠন করছে দিল্লি, বড়ো ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের

দিল্লির মন্ত্রিসভার বৈঠকে অনুমোদিত হল প্রস্তাব। নিজস্ব বোর্ড গঠন করে সিবিএসই বোর্ডের অনুমোদন ফিরিয়ে দেওয়া হবে।

Published

on

ছবি: এএনআই-এর সৌজন্যে

খবর অনলাইন ডেস্ক: শনিবার একটি বড়োসড়ো ঘোষণা করলেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। তিনি এ দিন বলেন, জাতীয় রাজধানীতে এ বার নিজস্ব শিক্ষা পর্ষদ থাকবে। দিল্লির মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত অনুমোদিত হয়েছে।

কেজরিওয়াল জানান, বর্তমান শিক্ষাব্যবস্থার পরিবর্তন করা দরকার। ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে বেশ কিছু স্কুল নতুন বোর্ডের অধীনে পঠনপাঠন শুরু করবে।

Loading videos...

বর্তমানে দিল্লিতে শুধুমাত্র সিবিএসই / আইসিএসই বোর্ড রয়েছে। তবে এখন অন্যান্য রাজ্যের মতো দিল্লিরও নিজস্ব শিক্ষা বোর্ড থাকবে। অরবিন্দ কেজরিওয়াল বলেছেন, এখন এ ধরনের শিক্ষা পরিকাঠামো তৈরি করা হবে যাতে পড়াশোনা করার পরে কর্মসংস্থানের জন্য চাপ না থাকে।

তিনি জানান, “আজ আমরা দিল্লির মন্ত্রীসভায় দিল্লি স্কুল অব এডুকেশন বোর্ড গঠনের প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছি। এটা কোনো গৌণ বোর্ড নয়। একটি শিক্ষাবোর্ড তৈরি করার জন্য এটা দরকার ছিল। কারণ গত ছ’বছরেই আমরা প্রতিবছর দিল্লির বাজেটের প্রায় ২৫ শতাংশ শিক্ষার জন্য ব্যয় করতে শুরু করেছি। সরকারি স্কুলের জন্য ভালো বাড়ি, ভাল শ্রেণিকক্ষ ও পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার ব্যবস্থা করা শুরু হয়েছে”।

রাজধানীতে এক হাজার সরকাররি এবং ১,৭০০টি বেসরকারি স্কুল রয়েছে। সমস্ত সরকারি এবং বেশিরভাগ বেসরকারি স্কুল সিবিএসই অনুমোদিত। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, আগামী শিক্ষাবর্ষে প্রাথমিক ভাবে ২০-২৫ টি সরকারি বিদ্যালয়কে নতুন রাজ্য শিক্ষা বোর্ডের আওতায় নিয়ে আসা হবে এবং সিবিএসই অনুমোদন ফিরিয়ে দেওয়া হবে।

তবে যে স্কুলগুলিকে দিল্লির নিজস্ব শিক্ষা পর্ষদের আওতায় নিয়ে আসা হবে, সেগুলির অধ্যক্ষ, শিক্ষক এবং অভিভাবকদের সঙ্গে আলোচনার পরেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানান দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী।

প্রসঙ্গত, গত জুলাই মাসে দিল্লি সরকার নিজস্ব শিক্ষা বোর্ড গঠন এবং পাঠ্যক্রম সংস্কারের জন্য পরিকল্পনা এবং পরিকাঠামো প্রস্তুত করার জন্য দু’টি কমিটি গঠন করেছিল।

আরও পড়তে পারেন: মহিলা ক্ষমতায়নের পথে ২০ বছর সঙ্গী বন্ধন ব্যাঙ্ক

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
ফুটবল3 hours ago

শেষ মুহূর্তের গোল নর্থইস্টের, এগিয়ে থেকেও প্রথম সেমিফাইনাল ড্র এটিকে মোহনবাগানের

দেশ4 hours ago

স্বামী থাকতেও প্রেমিক খুঁজছেন ভারতের বিবাহিত মহিলারা! এটা কি খারাপ খবর?

রাজ্য4 hours ago

অস্বস্তি বাড়াচ্ছে রাজ্যের করোনা সংক্রমণ, কলকাতাতেও বাড়ল আক্রান্তের সংখ্যা

রাজ্য6 hours ago

লড়াই মুখোমুখি! নন্দীগ্রামে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে দাঁড়াচ্ছেন শুভেন্দু অধিকারী

দেশ7 hours ago

ফের বাড়ছে উদ্বেগ! ৮টি রাজ্যেকে বিশেষ করোনা-পরামর্শ কেন্দ্রের

রাজ্য7 hours ago

আজই প্রার্থী তালিকা বিজেপির! নন্দীগ্রামে শুভেন্দু, খড়গপুরে দিলীপ, জোর জল্পনা

ক্রিকেট8 hours ago

ইংল্যান্ডকে ৩-১ ব্যবধানে হারিয়ে সিরিজ জিতল ভারত

দেশ9 hours ago

নিজস্ব শিক্ষা পর্ষদ গঠন করছে দিল্লি, বড়ো ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের

রাজ্য1 day ago

পূর্ণাঙ্গ প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করল তৃণমূল

গাড়ি ও বাইক2 days ago

আরটিও অফিসে আর যেতে হবে না! চালু হল আধার ভিত্তিক যোগাযোগহীন পরিষেবা

ভ্রমণের খবর3 days ago

ব্যাপক ক্ষতির মুখে পর্যটন, রাঢ়বঙ্গে ভোট পেছোনোর আর্জি নিয়ে কমিশনের দ্বারস্থ পর্যটন ব্যবসায়ীদের সংগঠন

রাজ্য1 day ago

বিধান পরিষদ গঠন করে প্রবীণদের স্থান দেওয়া হবে, প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করে বললেন মমতা

কলকাতা2 days ago

মোদীর ব্রিগেডের দিন কলকাতাকে ‘মমতাময়’ করতে ওয়ার্ড-প্রশাসকদের বিশেষ নির্দেশ তৃণমূলের

দেশ2 days ago

দেশের পরিস্থিতি একটু ভালো হলেও পঞ্জাবে মারাত্মক ভাবে বাড়ল দৈনিক সংক্রমণ

ক্রিকেট3 days ago

টসে জিতে ইংল্যান্ডের ব্যাটিং, সিরাজকে ফেরাল ভারত

বেশন কার্ড
দেশ3 days ago

রেশন কার্ড সম্পর্কিত সমস্যায় অভিযোগ জানান এই নম্বরগুলিতে, দেখে নিন সম্পূর্ণ তালিকা

কেনাকাটা

কেনাকাটা4 weeks ago

সরস্বতী পুজোর পোশাক, ছোটোদের জন্য কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সরস্বতী পুজোয় প্রায় সব ছোটো ছেলেমেয়েই হলুদ লাল ও অন্যান্য রঙের শাড়ি, পাঞ্জাবিতে সেজে ওঠে। তাই ছোটোদের জন্য...

কেনাকাটা4 weeks ago

সরস্বতী পুজো স্পেশাল হলুদ শাড়ির নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই সরস্বতী পুজো। এই দিন বয়স নির্বিশেষে সবাই হলুদ রঙের পোশাকের প্রতি বেশি আকর্ষিত হয়। তাই হলুদ রঙের...

কেনাকাটা1 month ago

বাসন্তী রঙের পোশাক খুঁজছেন?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই আসছে সরস্বতী পুজো। সেই দিন হলুদ বা বাসন্তী রঙের পোশাক পরার একটা চল রয়েছে অনেকের মধ্যেই। ওই...

কেনাকাটা1 month ago

ঘরদোরের মেকওভার করতে চান? এগুলি খুবই উপযুক্ত

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘরদোর সব একঘেয়ে লাগছে? মেকওভার করুন সাধ্যের মধ্যে। নাগালের মধ্যে থাকা কয়েকটি আইটেম রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার...

কেনাকাটা1 month ago

সিলিকন প্রোডাক্ট রোজের ব্যবহারের জন্য খুবই সুবিধেজনক

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন সামগ্রী এখন সিলিকনের। এগুলির ব্যবহার যেমন সুবিধের তেমনই পরিষ্কার করাও সহজ। তেমনই কয়েকটি কাজের সামগ্রীর খোঁজ...

কেনাকাটা1 month ago

আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আজ রইল আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার সময় যে দাম ছিল...

কেনাকাটা1 month ago

রান্নাঘরের এই সামগ্রীগুলি কি আপনার সংগ্রহে আছে?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরে বাসনপত্রের এমন অনেক সুবিধেজনক কালেকশন আছে যেগুলি থাকলে কাজ অনেক সহজ হয়ে যেতে পারে। এমনকি দেখতেও সুন্দর।...

কেনাকাটা2 months ago

৫০% পর্যন্ত ছাড় রয়েছে এই প্যান্ট্রি আইটেমগুলিতে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দৈনন্দিন জীবনের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসগুলির মধ্যে বেশ কিছু এখন পাওয়া যাচ্ছে প্রায় ৫০% বা তার বেশি ছাড়ে। তার মধ্যে...

কেনাকাটা2 months ago

ঘরের জন্য কয়েকটি খুবই প্রয়োজনীয় সামগ্রী

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যদিনের প্রয়োজনীয় ও সুবিধাজনক বেশ কয়েকটি সামগ্রীর খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদনটি লেখার সময় যে দাম ছিল তা-ই...

কেনাকাটা2 months ago

৯৯ টাকার মধ্যে ব্র্যান্ডেড মেকআপের সামগ্রী

খবর অনলাইন ডেস্ক : ব্র্যান্ডেড সামগ্রী যদি নাগালের মধ্যে এসে যায় তা হলে তো কোনো কথাই নেই। তেমনই বেশ কিছু...

নজরে