রাজ্যসভার প্রাক্তন সাংসদ তথা সাংবাদিক চন্দন মিত্র প্রয়াত

0

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রাজ্যসভার প্রাক্তন সাংসদ চন্দন মিত্র মারা গেলেন। বেশ কিছুদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন তিনি। বুধবার গভীর রাতে দিল্লিতে তাঁর মৃত্যু হয়। চন্দনবাবুর বয়স হয়েছিল ৬৫।

বাবার মৃত্যুর খবর ছেলে কুশন মিত্র টুইট করে জানান। টুইটে তিনি লেখেন, “গত রাতে বাবার মৃত্যু হয়েছে। বেশ কিছু দিন ধরে ভুগছিলেন তিনি।”

২০০৩-’০৯ পর্যন্ত রাজ্যসভার মনোনীত সদস্য ছিলেন চন্দন। বিজেপির প্রবীণ নেতা লালকৃষ্ণ আডবাণীর ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত ছিলেন রাজ্যসভার প্রাক্তন চন্দনবাবু। ২০১০-এর জুনে মধ্যপ্রদেশ থেকে নির্বাচিত করে চন্দনকে রাজ্যসভায় পাঠায় বিজেপি। ২০১৬-তে তাঁর সাংসদ পদের মেয়াদ শেষ হয়।

তবে নরেন্দ্র মোদী এবং অমিত শাহের নেতৃত্বকে মন থেকে মেনে নিতে পারেননি চন্দনবাবু। সে কারণে বিজেপির সঙ্গত্যাগ করে ২০১৮-তে তৃণমূলে যোগ দিয়েছিলেন তিনি। এ ছাড়া, সাংবাদিক হিসেবে যথেষ্ট খ্যাতি ছিল তাঁর। ‘দ্য পায়োনিয়ার’ পত্রিকার ম্যানেজিং ডিরেক্টর এবং সম্পাদক ছিলেন চন্দনবাবু।

তাঁর মৃত্যুতে শোকপ্রকাশ করে টুইট করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি লিখেছেন, “বুদ্ধিমত্তা এবং দৃষ্টিভঙ্গির জন্য স্মরণীয় হয়ে থাকবেন চন্দন মিত্র। সংবাদ জগতের পাশাপাশি রাজনীতিতেও নিজের পরিচিতি তৈরি করেছিলেন। তাঁর মৃত্যুতে আমি শোকাহত। তাঁর পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাই।”

আরও পড়তে পারেন

কেরলের বাইরে বাকি দেশে গত বৃহস্পতিবারের তুলনায় সংক্রমণ কমল ২.৯২ শতাংশ

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন