[বিক্ষোভ চণ্ডীগড় বিশ্ববিদ্যালয়ে}

চণ্ডীগড় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিডিও ‘ফাঁস’ মামলায় সিমলা থেকে গ্রেফতার এক যুবক। এই মামলায় এটি দ্বিতীয় গ্রেফতার। এর আগে, হোস্টেলের আবাসিক ছাত্রীদের আপত্তিকর ভিডিও রেকর্ড করার অভিযোগে পঞ্জাব পুলিশ বিশ্ববিদ্যালয়েরই এক ছাত্রীকে গ্রেফতার করেছিল।

পুলিশ সূত্রে খবর, ২৩ বছর বয়সি সানি মেহতা নামে এক যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনি সিমলার রোহরুর বাসিন্দা। পঞ্জাব পুলিশ আগেই জানিয়েছে, ওই যুবক অভিযুক্ত ছাত্রীর পূর্ব পরিচিত।

পঞ্জাব পুলিশের আধিকারিক গুরপ্রীত দেও সংবাদ সংস্থা এএনআইকে সেই সময় বলেছিলেন, “সিমলার ওই যুবক অভিযুক্ত ছাত্রীর পরিচিত। তাঁকে ধরার পরেই আরও বিস্তারিত জানা যাবে। তাঁর মোবাইল ফোনের ফরেনসিক তদন্ত করা হবে”।

কী এই ভিডিও ‘ফাঁস’ মামলা?

অভিযোগ, বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী হস্টেলের অন্যান্য আবাসিকদের আপত্তিকর ভিডিও রেকর্ড করেছেন। কয়েক জন ছাত্রী নিজেদের আপত্তিকর ভিডিও ভাইরাল হয়েছে বলে দাবি করেন। রবিবারই চণ্ডীগড় বিশ্ববিদ্যালয়ে তা নিয়ে প্রতিবাদ আছড়ে পড়ে। তুমুল বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে। এর পরই অভিযুক্ত ছাত্রীকে গ্রেফতার করে পঞ্জাব পুলিশ।

এ দিকে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ একটি বিবৃতি জারি করে দাবি করেছেন, শুধুমাত্র একটি ভিডিও ক্লিপ ‘ফাঁস’ হয়েছিল। সেই ভিডিয়োটি অভিযুক্ত ছাত্রী সিমলায় তাঁর পুরুষ বন্ধুকে পাঠিয়েছিলেন।

‘গুজব’, দাবি বিশ্ববিদ্যালয়ের

লিখিত বিবৃতিতে বিশ্ববিদ্যালয় দাবি করে, “মিডিয়ার মাধ্যমে গুজব ছড়ানো হচ্ছে। বলা হচ্ছে ছাত্রীদের ৬০টি আপত্তিকর এমএমএস পাওয়া গেছে। এটা সম্পূর্ণ মিথ্যা এবং ভিত্তিহীন। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাথমিক তদন্তে দেখা গিয়েছে, শুধুমাত্র একটি ভিডিয়োই তোলা হয়েছিল। যেটা এক ছাত্রী নিজের প্রেমিককে পাঠিয়েছিলেন”।

ঘটনার তদন্তে নেমে হস্টেলের একটি তলের প্রায় ৫০-৬০ জন আবাসিকের সঙ্গে দেখা করে পুলিশ। গুরুপ্রীত বলেন, ওঁরা প্রত্যেকেই নতুন সেশনে ভর্তি হয়েছেন। একে অন্যকে চেনেন না। তাঁদের উদ্বেগের সমাধান করা হয়েছে। অভিযুক্তের ফোনে অন্য কারও আপত্তিকর ভিডিও যে নেই, সে ব্যাপারে তাঁদের নিশ্চিত করা হয়েছে।

তবে পুলিশ এখনও ঘটনার তদন্ত করছে। অভিযুক্ত মহিলার ফোন ফরেনসিক পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। যাতে মুছে ফেলা ভিডিয়োগুলি পুনরুদ্ধার করা যায়। বাথরুমের আশেপাশে কোনো গোপন ক্যামেরা রয়েছে কি না, সে সবও পরীক্ষা করা হচ্ছে। ও দিকে বিক্ষোভও অব্যাহত রয়েছে।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন