delhi kejriwal chief secreatary

নয়াদিল্লি: যত কাণ্ড কেজরি-কুটিরে! দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীর বাড়িতে দুই মন্ত্রীর হাতে প্রহৃত হওয়ার অভিযোগ আনলেন দিল্লির মুখ্যসচিব অনশু প্রকাশ। যদিও সব অভিযোগ অস্বীকার করেছে দিল্লির আপ সরকার।

মুখ্যসচিবের দাবি সোমবার রাতে দিল্লি সরকারের একটি বাজেট বিষয়ক আলোচনার জন্য কেজরির বাড়ি গিয়েছিলেন তিনি। সেখানে উপস্থিত আপের দুই মন্ত্রী প্রকাশ জরওয়াল এবং আমানাতুল্লা খান তাঁর কলার ধরে টানেন বলে অভিযোগ। এই ঘটনায় তাঁর চশমা খুলে গিয়ে ভেঙে যায়।

এই ঘটনার পরেই সোজা দিল্লির লেফটেন্যান্ট গভর্নর অনিল বাইজালের কাছে যান অনশু এবং এই দুই মন্ত্রীর বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়ে আসেন। মুখ্যসচিবের এই প্রহৃত হওয়ার ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছে দিল্লির আইএএস অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যরা।

যদিও মুখ্যসচিবের সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছে আপ। প্রকাশের দাবিকে ‘হাস্যকর’ বলে উড়িয়ে দিয়েছে দিল্লি সরকার। দুর্ব্যবহারের পালটা অভিযোগ মুখ্যসচিবের বিরুদ্ধেই তুলছে আপ। আপের দাবি, মুখ্যসচিবকে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানিয়ে দেন, শুধুমাত্র লেফটেন্যান্ট গভর্নরের কাছেই যা বলার বলবেন তিনি। একটি টুইটে আপের দাবি, “কোনো প্রশ্নের উত্তর না দিয়ে আমাদের মন্ত্রীদের উদ্দেশে খারাপ শব্দ ব্যবহার করেছিলেন তিনি।”

২০১৫-তে দিল্লির মসনদে বসার পর থেকেই আমলাদের সঙ্গে আপের মন্ত্রীদের সম্পর্ক ক্রমশ তলানিতে ঠেকেছে। এর শুরু দিল্লির তৎকালীন লেফটেন্যান্ট গভর্নর নাজিব জঙের সময় থেকে। আপের অভিযোগ, সব সময়ে কেন্দ্রের শাসক বিজেপির অঙ্গুলিহিলনে কাজ করেন দিল্লির আমলারা।

মুখ্যসচিবের এই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে অবশ্য বিজেপির লাইন নিয়েছে কংগ্রেস। কেজরিওয়ালের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছেন দিল্লির কংগ্রেস নেতা অজয় মাকেন। মুখ্যসচিবের সঙ্গে দুর্ব্যবহারের জন্য সবার কাছে আপ নেতাদের ক্ষমা চাওয়া উচিত বলে মনে করেন মাকেন।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন