হাজিপুর: রবিবার রাতে বিহারের বৈশালী জেলায় এক ভয়াবহ দুর্ঘটনা। ধর্মীয় শোভাযাত্রায় ঢুকে পড়ে একটি দ্রুতগামী ট্রাক। ট্রাকের ধাক্কায় নিহত নারী ও শিশু-সহ অন্তত ১২ জন নিহত। আহত আরও বেশ কয়েক জন।

রাজ্যের রাজধানী থেকে প্রায় ৩০ কিলোমিটার দূরে উত্তর বিহার জেলার দেসরি থানা এলাকার ঘটনা। রাত ৯টা নাগাদ যখন শোভাযাত্রাটি স্থানীয় দেবতা ‘ভূমিয়া বাবা’-র কাছে প্রার্থনা করার জন্য রাস্তার পাশে একটি গাছের সামনে জড়ো হয়েছিল তখনই দুর্ঘটনাটি ঘটে। ভূমি বাবা”।

এই ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। দুর্ঘটনায় নিহত প্রত্যেকের পরিবারকে ২ লক্ষ এবং আহত প্রত্যেক ব্যক্তির জন্য ৫০ হাজার টাকা ক্ষতিপূরণ ঘোষণা করেছেন তিনি।

মোদী টুইটারে লেখেন, “বিহারের বৈশালীর দুর্ঘটনাটি দুঃখজনক। শোকসন্তপ্ত পরিবারগুলির প্রতি সমবেদনা। আহতরা শীঘ্রই সুস্থ হয়ে উঠুক। প্রধানমন্ত্রীর জাতীয় ত্রাণ তহবিল থেকে প্রত্যেক মৃতের আত্মীয়কে ২ লক্ষের একটি একটি আর্থিক সহযোগিতা দেওয়া হবে। আহতদের ৫০ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে”।

বিহারের উপমুখ্যমন্ত্রী তেজস্বী যাদবও দুর্ঘটনায় নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন। তিনি টুইটারে লেখেন, “হাজিপুরে পথদুর্ঘটনায় বেশ কয়েকজনের মৃত্যুর হৃদয় বিদারক সংবাদে আমি গভীর ভাবে শোকাহত। আমি শোকাহত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানাই এবং আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করছি”।

দুর্ঘটনাটি ঘটেছে মহুয়া বিধানসভা কেন্দ্রের অধীনে। ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন এই কেন্দ্রের আরজেডি বিধায়ক মুকেশ রৌশন। তিনি বলেন, “অন্তত ন’জন ঘটনাস্থলেই মারা গেছে। অনেককে হাজিপুর (জেলা সদর) সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। পথেই মারা যান তিনজন। যাঁদের অবস্থা আশঙ্কাজনক, তাঁদের পটনা হাসপাতালে রেফার করা হচ্ছে”।

বৈশালীর পুলিশ সুপার মনীশ কুমার বলেন, “বিয়ের সঙ্গে যুক্ত প্রথার অংশ হিসেবে শোভাযাত্রাটি বের করা হয়েছিল। কাছের সুলতানপুর গ্রামের এক বাসিন্দার বাড়িতে কয়েকদিনের মধ্যে একটি বিয়ের অনুষ্ঠান রয়েছে। পাশের রাস্তা দিয়ে দ্রুত গতিতে যাচ্ছিল একটি ট্রাক। মাহনার-হাজিপুর মহাসড়ক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেন চালক। আমরা আশঙ্কা করছি যে তিনিও মারা গিয়েছেন”।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন