লাদাখ সিদ্ধান্তের বিরোধিতা? মানস সরোবরগামী এক দল তীর্থযাত্রীকে ভিসা দিল না চিন

ভারত চিনের সব বিরোধিতা উড়িয়ে জানিয়ে দিয়েছে এটা ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়।

0

ওয়েবডেস্ক: মানস সরোবরগামী কয়েক জন ভারতীয় তীর্থযাত্রীকে ভিসা দেয়নি চিন। এমনই খবর পাওয়া গিয়েছে কয়েকটি সূত্রে। মনে করা হচ্ছে, কেন্দ্রের ‘লাদাখ সিদ্ধান্তের’ বিরোধিতা করেই এই পদক্ষেপ করেছে চিন।

জম্মু-কাশ্মীর ভেঙে দু’টি আলাদা কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র। মঙ্গলবার সেটি লোকসভায় পাশও হয়ে গিয়েছে। এই ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে লাদাখের ব্যাপারে কড়া অবস্থান নিয়েছে চিন। এক দিকে কাশ্মীর উপত্যকা নিয়ে সাবধানী অবস্থান নিলেও, লাদাখের ব্যাপারে ভারতের সিদ্ধান্তে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছে তারা।

যদিও ভারত চিনের সব বিরোধিতা উড়িয়ে জানিয়ে দিয়েছে এটা ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়। বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র রবীশ কুমার বলেন, “অন্য দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে ভারত যেমন নাক গলায় না, তেমনই অন্য দেশের থেকেই ভারত একই সৌজন্য আশা করে।”

আরও পড়ুন সুষমা স্বরাজের মৃত্যুতে শোকপ্রকাশ একাধিক বিদেশি রাষ্ট্রের

এর পরেই ভারতীয় তীর্থযাত্রীদের ভিসা না দেওয়ার ব্যাপারটি জানাজানি হয়। যদিও এই ব্যাপারে চিনের তরফ থেকে সরকারি ভাবে এখনও কিছু বলা হয়নি, তবুও মনে করা হচ্ছে, লাদাখের ব্যাপারের ভারতের বিরুদ্ধে ক্ষোভ জানানোর জন্যই এই পদক্ষেপ করেছে তারা।

উত্তরাখণ্ডের লিপুলেক পাস এবং সিকিমের নাথুলা দিয়ে মানস সরোবর যাওয়া যায়। প্রতি বছর অসংখ্য ভারতীয় পুণ্যার্থী এই দু’টি পথে মানস সরবোর যান। ২০১৭ সালে ডোকলাম সমস্যা চলাকালীন নাথুলা দিয়ে ভারতীয় তীর্থযাত্রীকে মানস সরোবর যাওয়ার অনুমতি দেয়নি চিন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here