ইলাহাবাদ: খাদ্য, খাদ্যাভ্যাস এবং খাদ্যদ্রব্য বিক্রির অধিকার ভারতীয় সংবিধানের ২১ নম্বর ধারা (জীবনের অধিকার)-র অবিচ্ছেদ্য অংশ। এমনই রায় দিল ইলাহাবাদ উচ্চ আদালত। সদ্য অভিষিক্ত হওয়া মুখ্যমন্ত্রী আদিত্যনাথের নির্দেশে উত্তরপ্রদেশ জুড়ে বন্ধ রয়েছে সমস্ত অবৈধ কসাইখানা। এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতেই সিদ্ধান্ত ঘোষণা করল ইলাহাবাদ আদালতের লখনউ বেঞ্চ।


আদিত্যনাথের সরকারকে ইলাহাবাদ আদালত ১০ দিন সময় দিয়েছে। তার মধ্যে সরকারকে কোনো বিকল্প ব্যবস্থা নিতে হবে, যাতে রাজ্যের কোনো মানুষ তাঁর খাদ্যাভ্যাস অথবা জীবিকা থেকে বঞ্চিত না হয়। 


লখিমপুর খেরির এক কসাইখানা মালিক তাঁর দোকানের লাইসেন্স পুনর্নবীকরণের প্রস্তাব সরকার থেকে বাতিল করে দেওয়ায় আদালতে মামলা করেন। সেই মামলার শুনানিতেই আদালত জানায়, খাদ্যাভ্যাসের বৈচিত্র্য উত্তরপ্রদেশের ধর্মনিরপেক্ষতার পরিচায়ক। এছাড়া আদালত আরও বলে, নিজের পছন্দ মতো খাবার খাওয়া এবং বিক্রি করা সংবিধান দ্বারা স্বীকৃত। এটি সংবিধানের ২১ নম্বর ধারা অর্থাৎ জীবনের অধিকারের (মৌলিক অধিকার) অংশ। 

আরও পড়ুন: উত্তরপ্রদেশের কসাইখানা বন্ধ করার নির্দেশ দিলেন আদিত্যনাথ

আদিত্যনাথের সরকারকে ইলাহাবাদ আদালত ১০ দিন সময় দিয়েছে। তার মধ্যে সরকারকে কোনো বিকল্প ব্যবস্থা নিতে হবে, যাতে রাজ্যের কোনো মানুষ তাঁর খাদ্যাভ্যাস অথবা জীবিকা থেকে বঞ্চিত না হয়। 

উত্তরপ্রদেশের সরকার অবশ্য স্বপক্ষে যুক্তি দিয়ে বলেছেন, তাঁরা কারও খাদ্যাভ্যাসে হস্তক্ষেপ করেননি, শুধুমাত্র অবৈধ কসাইখানা নিষিদ্ধ করা হয়েছে রাজ্য জুড়ে।

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here