ওয়েবডস্ক: সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি, ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্কের গভর্নর, সিবিআইয়ের অধিকর্তা এবং কম্পট্রোলার অ্যান্ড অডিটর জেনারেল- এই চারটি পদেই বর্তমানে যাঁরা নিজেদের দায়িত্ব পালন করছেন, তাঁদের প্রত্যেকেই দিল্লির প্রাচীনতম সেন্ট স্টিফেন’স কলেজের ছাত্র।

শুধু এই চার জন নন, বর্তমানে কেন্দ্রের বিভিন্ন মন্ত্রকের গুরুত্বপূর্ণ পদ থেকে শুরু করে রাজনীতিতে জনপ্রিয় নেতৃত্বের অনেকেই এই কলেজের ছাত্র। তবে এই চারজনকে নিয়ে আলোচনা করার একটাই কারণ, এঁদের প্রত্যেকেই দেশের চারটি সংস্থার শীর্ষপদে থাকার পাশাপাশি সেন্ট স্টিফেন’স-এ পড়ার সময় এঁদের বিষয়ও ছিল এক। এবং সেটি হল ইতিহাস।

এক নজরে দেখে নেওয়া যাক এই কলেজের বেশ কয়েক জন কৃতী ছাত্রের নাম

  • সেন্ট স্টিফেন’স কলেজের ছাত্র রঞ্জন গগৈ ইতিহাসে ডিগ্রি অর্জন করেন।
  • আরবিআইয়ের গভর্নর শক্তিকান্ত দাসও এই কলেজ থেকেই ইতিহাসে ডিগ্রি লাভ করে।
  • ১৯৭৯ ব্যাচের আইপিএস অলোককুমার বর্মা যিনি সম্প্রতি সিবিআইয়ের অধিকর্তা হয়েছেন, তিনিও এই কলেজ ইতিহাসের উপর স্নাতকোত্তর করেছেন।
  • ১৯৭৮ ব্যাচের আইএএস রাজীব মেহরিশি এ মুহূর্তে কম্পট্রোলার অ্যান্ড অডিটর জেনারেল (ক্যাগ), তিনিও এই কলেজের ইতহাসের ডিগ্রি প্রাপ্ত।
  • নীতি আয়োগের সিইও অমিতাভ কান্ত এই কলেজ থেকে ইকনোমিক্সের উপর ডিগ্রি লাভ করেন।
  • একই ভাবে নীতি আয়োগের ভাইস-চেয়ারপার্সন রাজীব কুমারও ইকনোমিক্সে ডিগ্রি পান এই কলেজ থেকেই।

অন্য দিকে বর্তমানে রাজনীতিতে উল্লেখযোগ্য অসংখ্য নেতৃত্ব শিক্ষাজীবনে নিজেদের নাম লিখিয়েছিলেন এই কলেজেই। যাঁদের মধ্যে রয়েছেন শশী তারুর, সীতারাম ইয়েচুরি, অরুণ শৌরি, নবীন পট্টনায়েক, রাহুল গান্ধী এবং রাজস্থানের নবনির্বাচিত উপ-মুখ্যমন্ত্রী সচিন পায়লটও।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন