hyderabad baby

নয়াদিল্লি: ফের প্রদ্যুম্নকাণ্ডের ছায়া দিল্লিতে। স্কুলের বাথরুমে মিলল নবম শ্রেণির ছাত্রের মৃতদেহ। সহপাঠীদের সঙ্গে মারামারির ফুটেজ ধরা পড়েছে সিসিটিভিতে। ওই ফুটেজের ভিত্তিতে তিন জনকে আটক করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার দিল্লির জীবন জয়ন্তী সিনিয়র সেকেন্ডারি স্কুলের শৌচাগারে তুষার কুমার নামক নবম শ্রেণির ওই ছাত্রকে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় দেখতে পায় তারই কয়েক জন সহপাঠী। তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। ছেলেকে পিটিয়ে মারা হয়েছে, পুলিশে এমনই অভিযোগ দায়ের করে ওই ছাত্রটির পরিবার।

এর পরেই স্কুলের সিসিটিভি ফুটেজের তদন্ত করে ওই ছাত্রের মৃত্যুর ব্যাপারে অনেকটাই নিশ্চিত হয় পুলিশ। ফুটেজে দেখা যাচ্ছে তুষারকে ঘুষি মারছে তার কয়েক জন সহপাঠী। এক পুলিশ আধিকারিক বলেন, “দাদাগিরি-সুলভ মারামারি হয়েছিল ওই ছাত্রদের মধ্যে। ওরা একই শ্রেণির ছাত্র এবং ক্লাসে থাকাকালীন ঝগড়া শুরু হয়। সেই ঝগড়াই ক্লাসরুম ছাড়িয়ে বাইরে যায়।” তবে বিষয়টিকে এখনও খুন বলতে রাজি নন ওই পুলিশ আধিকারিক। তাঁর কথায়, “ওই ছাত্রের দেহে প্রাথমিক ভাবে কোনো আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট আসার পরই সব কিছু পরিষ্কার হবে।”

যদিও তুষারকে মারা হয়েছে, এমন দাবি মানতে চায়নি স্কুল কর্তৃপক্ষ। তাদের দাবি, বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই নাকি তুষারের পেটে ব্যথা হচ্ছিল। সেই অসুস্থতা থেকেই বাথরুমে সংজ্ঞাহীন হয়ে যায় তুষার। এই তত্ত্ব অবশ্য মানতে চায়নি তুষারের পরিবার।

গত বছর সেপ্টেম্বরে গুরুগ্রামের রায়ান ইন্টারন্যাশনাল স্কুলে খুন হয়েছিল দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্র প্রদ্যুম্ন। তাকে খুনের অভিযোগে এই মুহূর্তে পুলিশের জালে রয়েছে মূল অভিযুক্ত একাদশ শ্রেণির এক ছাত্র।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here