নয়াদিল্লি:  কয়লা কেলেঙ্কারি মামলায় দোষী সাব্যস্ত হলেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় কয়লা সচিব এইচ সি গুপ্তা। শুক্রবার দিল্লিতে বিশেষ সিবিআই আদালত এই রায় দেয়। প্রাক্তন সচিব ছাড়া প্রাক্তন যুগ্ম সচিব কে এস ক্রোফা, ডিরেক্টর কে সি সামারিয়া, কমল স্পঞ্জ স্টিল অ্যান্ড পাওয়ার লিমিটেড (কেএসএসপিএল) এবং তার কর্ণধার পি কে আলুওয়ালিয়াকেও ফৌজদারি ষড়যন্ত্রে দোষী সাব্যস্ত করেছে ওই আদালত। আদালত বলেছে, মধ্যপ্রদেশের রুদ্রপুর কোল ব্লক কেএসএসপিএল-কে বরাদ্দ করার ব্যাপারে দুর্নীতি ও প্রতারণা করার দায়ে তাঁরা দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন। এই মামলায় আরেক অভিযুক্ত চাটার্ড অ্যাকাউট্যান্ট অমিত গোয়েলকে সব অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দিয়েছে আদালত। দোষীরা কী সাজা পাবেন তা ২২ মে জানাবে আদালত।

কংগ্রেসের নেতৃত্বাধীন ইউপিএ সরকারের আমলে ২০০৬ সাল থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত কোল ব্লক বরাদ্দ করার ব্যাপারে যে স্ক্রিনিং কমিটি গড়া হয়েছিল, তার চেয়ারপার্সন ছিলেন এইচ সি গুপ্তা। এই মামলায় গুপ্তা কোনো আইনগত সাহায্য নিতে চাননি। ব্যাপারটা আইএএস মহলের নজরে আসে। প্রায় ৬০ জন আইএএস অফিসার বৈঠক করে ঠিক করে, আইএএস অ্যাসোসিয়েশন গুপ্তার সঙ্গে যোগাযোগ করবে এবং ওঁকে সাহায্য করবেন। পরে মিঃ গুপ্তা আইনজীবী নিতে রাজি হন।

প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং-এর আমলে সরকারের কয়লাখনি বণ্টনে গরমিলের ব্যাপারটি কম্পট্রোলার অ্যান্ড অডিটর জেনারেলের (ক্যাগ) নজরে আসার পর কেলেঙ্কারি জানাজানি হয়ে যায়। এই গরমিলে রাষ্ট্রীয় কোষাগারের ক্ষতি হয় ১.৮৬ লক্ষ কোটি টাকা। ক্যাগ-এর রিপোর্ট থেকে জানা যায় এই গরমিলে ফায়দা তুলেছে জিন্দল স্টিল অ্যান্ড পাওয়ার লিমিটেড, হিন্ডালকো, এসার পাওয়ার, টাটা স্টিল এবং টাটা পাওয়ার। ২০১৫-এর এপ্রিলে সিবিআই এই মামলায় চার্জশিট পেশ করে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here