হান্দোয়ারায় গুলির লড়াইয়ে কর্নেল, মেজর-সহ পাঁচজন নিহত

0

শ্রীনগর: জম্মু ও কাশ্মীরের হান্দোয়ারায় জঙ্গিদের সঙ্গে রাতভর গুলির লড়াইয়ে একজন কর্নেল এবং একজন মেজর-সহ যৌথবাহিনীর পাঁচ জন নিহত হয়েছেন। সেনা সূত্রে জানা গিয়েছে, নিহতদের মধ্যে রয়েছেন আরও দুই জওয়ান এবং একজন পুলিশকর্মী। শনিবার রাতে ওই গুলির লড়াইয়ে মারা গিয়েছে দুই জঙ্গিও।

সরকারি বিবৃতিতে বলা হয়েছে, রাজধানী শ্রীনগর থেকে প্রায় ৭০ কিলোমিটার দূরে উত্তর কাশ্মীর জেলার হান্দোয়ারা এলাকায় সশস্ত্র বাহিনী এবং জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশ একটি যৌথ জঙ্গি-বিরোধী অভিযান চালায়। শনিবার বিকেল পৌনে চারটে নাগাদ কুপওয়ারার ছাঞ্জিমুল্লা এলাকায় জঙ্গি উপস্থিতির খবর পেয়ে অভিযানে নেমে ছিল যৌথ বাহিনীর ওই পাঁচ সদস্যের দলটি। ওই যৌথ অভিযানের সময় দুই জঙ্গি নিহত হয়।

বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, গোয়েন্দা সূত্র ধরে একটি বাড়িকে ঘিরে ফেলে যৌথবাহিনী। ওই বাড়িতেই জঙ্গিরা ঘাঁটি গেড়েছিল। এমনকী সেখানে কয়েকজনকে বন্দি করেও রাখে তারা। যৌথবাহিনীর সঙ্গে তাদের গুলির লড়াই শুরু হয়। রাতভর সেই গুলির লড়াই চলতে থাকে। সেখানেই সেনাবাহিনীর দুই অফিসার, দুই জওয়ান এবং এক পুলিশ কর্মী নিহত হন। তবে দুই জঙ্গি নিহত হয়েছে বলে দাবি করা হলেও ওই বাড়িতে ঠিক কতজন জঙ্গি রয়েছে, তা এখনও স্পষ্ট নয়।

অভিযানে নেমেই জঙ্গিদের দখলে থাকা বাড়ির আশেপাশের বাড়িগুলি ফাঁকা করে দেয় যৌথবাহিনী। এর পরই বাহিনীর উপস্থিতি টের পেয়ে জঙ্গিরা এলোপাথাড়ি গুলি চালাতে শুরু করে। রবিবার নিহত বাহিনী সদস্যের উদ্দেশে শ্রদ্ধা জানান প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং।

আরও পড়ুন: করোনা-যোদ্ধাদের কুর্নিশ জানাতে কাশ্মীর থেকে বায়ুসেনার ‘ফ্লাই পাস্ট’

তিনি লিখেছেন, “হান্দোয়ারায় সেনা এবং সুরক্ষাবাহিনীর সদস্যদের হারানোর ঘটনা খুবই বেদনাদায়ক। তাঁরা জঙ্গিদের বিরুদ্ধে অনুকরণীয় সাহস দেখিয়েছেন। দেশের সেবায় সর্বোচ্চ ত্যাগের নিদর্শন রেখেছেন। আমরা তাঁদের বীরত্ব এবং ত্যাগকে কখনোই ভুলব না”।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন