“বাবা বাংলাদেশি ছিলেন, আমাকেও বের করে দিন”, এনআরসি নিয়ে কেন্দ্রকে তোপ অধীরের

0
Adhir Ranjan Chowdhury
ফাইল ছবি

ওয়েবডেস্ক: উত্তর–পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য অসমের চূড়ান্ত জাতীয় নাগরিকপঞ্জি (এনআরসি) থেকে বাদ পড়েছেন ১৯ লক্ষ ৬ হাজার ৬৫৭ জন মানুষ। শনিবার প্রকাশিত ওই তালিকায় নাম বাদ পড়েছে বিধায়ক থেকে শুরু করে সেনার। যার জেরে পদ্ধতিতে ভুল এবং স্বেচ্ছাচারের অভিযোগ তুলেছে বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি। এনআরসি প্রসঙ্গেই কেন্দ্রকে কড়া ভাষায় কটাক্ষ করলেন লোকসভার বিরোধী দলনেতা অধীররঞ্জন চৌধুরী।

নাগরিকপঞ্জির তৈরি করার দায়িত্বপ্রাপ্ত সংস্থার তরফে দাবি করা হয়েছে, খসড়া তালিকায় নাম বাদ থাকা সত্ত্বেও যাঁরা নিজেদের পক্ষে কোনো তথ্য পেশ করতে পারেননি তাঁদের নাম বাদ পড়েছে এই তালিকা থেকে। এই তথ্য পেশ ঘিরে দীর্ঘদিন ধরেই তৈরি হয়েছে বিতর্ক।

একই দিনে বিতর্কের সৃষ্টি হয় দিল্লির বিজেপি প্রধান মনোজ তিওয়ারির মন্তব্য ঘিরে। তিনি বলেন, “দিল্লির অবস্থাও ভয়াবহ, তাই প্রয়োজন এনআরসির। অবৈধ অভিবাসীরা দীর্ঘ দিন ধরে এখানে বসবাস করে পরিস্থিতি ভয়ানক করে তুলেছে। আমরা এখানে এনআরসি প্রয়োগ করব”। মনোজের মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে অধীর তোপ দাগেন কেন্দ্রের উদ্দেশে।

অধীর বলেন, “দেশটা যেন তাঁদেরই। তাঁরা যেখানেই এনআরসি করা উচিত মনে করবেন, সেখানেই করবেন। তাঁরা অসমে এনআরসি পরিচালনা করতে সক্ষম হননি, তাঁরা অন্যান্য রাজ্যেও যেতে পারে। তাঁদের সংসদেও এনআরসি করা উচিত”।

পাশাপাশি তাঁর শ্লেষাক্ত মন্তব্য, “আমার বাবা বাংলাদেশ থেকে এসেছিলেন, তা হলে আমাকেও বের করে দিন”।

একই সঙ্গে তিনি দাবি করেন, “কোনো প্রকৃত নাগরিককে কোনো অবস্থাতেই বহিষ্কার করা উচিত নয় এবং সমস্ত প্রকৃত নাগরিককে অবশ্যই সুরক্ষা সরবরাহ করতে হবে”।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.