congress mlas leaving resort in bengaluru

বেঙ্গালুরু: বিজেপির প্রলোভনের হাত থেকে বিধায়কদের বাঁচাতে বেঙ্গালুরুর ঈগলটন রিসর্ট থেকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিয়ে যাচ্ছে কংগ্রেস। জেডি(এস) বিধায়কদেরও শাংগ্রিলা হোটেল থেকে অন্যত্র নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। বৃহস্পতিবার রাত ১১টার পরে এই দৃশ্য দেখা যায়।

কোথায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছে পরিষ্কার করে জানা না গেলেও তিনটি সম্ভাব্য জায়গার নাম পাওয়া যাচ্ছে। জায়গাগুলি তিন প্রতিবেশী রাজ্যে – পুদুচেরি, হায়দরাবাদ এবং কোচি। সংবাদসংস্থা এএনআইয়ের খবর, জেডি(এস) বিধায়ক শিবরাম গৌড়া জানিয়েছেন, কংগ্রেস ও তাঁর দলের কিছু বিধায়ক কোচি আর হায়দরাবাদ যাচ্ছেন।

বৃহস্পতিবার রাত ১১টার পরে কংগ্রেস বিধায়কদের বাসে করে রিসর্ট ছাড়তে দেখা যায়। ঈগলটন রিসর্টে যে পুলিশ প্রহরা ছিল বৃহস্পতিবার তা তুলে নেওয়া হয়। বিএস ইয়েদিয়ুরাপ্পা মুখ্যমন্ত্রী হয়ে আর কিছু পারুন বা না-ই পারুন এই কাজটি তড়িঘড়ি সেরেছেন। ফলে কংগ্রেস বিধায়করা ঘোড়া কেনাবেচার পক্ষে সহজভেদ্য হয়ে যান।

কংগ্রেস বিধায়করা অভিযোগ করেছেন, তাঁদের এক দিকে টাকার লোভ দেখানো হচ্ছে আর এক দিকে প্রাণের হুমকি দেওয়া হচ্ছে। কংগ্রেস নেতা রামলিঙ্গ রেড্ডি অভিযোগ করেছেন, পুলিশ প্রহরা তুলে নেওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই বিজেপি কর্মীরা রিসর্টে চলে আসতে শুরু করে এবং খোলাখুলি টাকার অফার দেয়। ইতিমধ্যে এআইসিসি সোশ্যাল মিডিয়া হেড দিব্য স্পন্দন টুইট করে অভিযোগ করেছেন, কংগ্রেসের বিধায়কদের মেরে ফেলার হুমকি দেওয়া হচ্ছে। কংগ্রেস বিধায়ক এবং এআইসিসি-র সম্পাদক যশোমতী ঠাকুর অভিযোগ করেছেন, পুলিশি নিরাপত্তা তুলে নেওয়ার পর থেকেই দলের বিধায়কদের কাছে হুমকি-ফোন আসতে শুরু করেছে।

ইতিমধ্যে বাম রাজ্য কেরলের পর্যটন মন্ত্রী কদকমপল্লি বিধায়কদের তাঁর রাজ্যে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। তিনি টুইট করে বলেছেন, “বিভিন্ন সূত্র থেকে শুনেছি কংগ্রেসের বিধায়করা কোচির উদ্দেশে রওনা হয়েছেন। রাজ্যের পর্যটনমন্ত্রী হিসাবে আমি তাঁদের স্বাগত জানাতে পারলে খুব খুশি হব। তাঁদের সাহায্য করব। এখানে ঘোড়া কেনাবেচাকারিদের ঝামেলার মুখে তাঁদের পড়তে হবে না।”

ছবি: এএনআই

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here