সভাপতিপদে আসুন সোনিয়া গান্ধী, আর্জি কংগ্রেসের

0
Sonia Gandhi

নয়াদিল্লি: রাহুল গান্ধীর সিদ্ধান্ত বদল সাধ্যের বাইরে চলে গিয়েছে। নতুন সভাপতি বাছাইয়েও দিশা পাচ্ছেন না কংগ্রেস নেতৃত্ব। অন্য দিকে শুরু হয়েছে দেশ জুড়ে দলীয় পদাধিকারীদের ইস্তফার হিড়িক। এমন পরিস্থিতি সামাল দিতে সাময়িক ভাবে দলের সর্বভারতীয় সভাপতিপদের দায়িত্ব নেওয়ার আর্জি গেল ইউপিএ চেয়ারপার্সন সোনিয়া গান্ধীর কাছে।

১৯৯৮ সাল থেকে ২০১৭ পর্যন্ত কংগ্রেস সভাপতিপদ অলঙ্কৃত করেছেন সোনিয়া। বছর দুয়েক আগে দু’দশকের দীর্ঘ দায়িত্ব পালনের পর অব্যাহতি নিয়েছিলেন। তাঁর শূন্যস্থান পূরণ করেছিলেন ছেলে রাহুল। কিন্তু লোকসভা ভোটে দলের বিপর্যয়ের দায় কাঁধে নিয়ে পদত্যাগ করেছেন তিনি। বাতাসে বেশ কয়েকজন হেভিওয়েট নেতার নাম ভেসে বেড়ালেও এখনও পর্যন্ত সমস্যা নিরসনে স্থায়ী সিদ্ধান্তের কাছাকাছিও পৌঁছাতে পারেনি কংগ্রেসের কার্যকরী সমিতি।

সূত্রের খবর, একে ভোটের ফলে চরম ভরাডুবি অন্য দিকে রাহুলের পদাঙ্ক অনুসরণ করে একের পর এক দলীয় নেতার ইস্তফা থেকে উদ্ভূত পরিস্থিতি সামাল দিতে আপাতত সোনিয়ার উপরই আস্থা রাখতে চাইছে কংগ্রেস। কিন্তু তিনি সেই প্রস্তাব কানে শোনা মাত্রই ‘না’ করে দিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, ৭২ বছর বয়সি সোনিয়া শারীরিক কারণেই সভাপতিপদ থেকে অব্যাহতি নিয়েছিলেন। চিকিৎসার জন্য সময় ব্যয় বেড়ে যাওয়ায় দলের কাজে তিনি সে ভাবে সময় দিতে পারছিলেন না বলে জানা গিয়েছিল। এর পরে তিনি ফের কী ভাবে ওই পদে ফিরতে পারেন?

তবে রাহুলের ইস্তফার পর যে নতুন সমস্যায় পড়েছে কংগ্রেস, তার হাত থেকেই নিষ্কৃতি পেতে সোনিয়ার কাছে ওই প্রস্তাব নিয়ে যান কয়েক জন প্রবীণ নেতা। সাময়িক ভাবে দলের হার ধরে পরিস্থিতির পরিবর্তন হওয়ার পর যোগ্য কাউকে ওই পদে বসানোর পরিকল্পনার কথা জানান তাঁরা। একটার পর একটা রাজ্যে যে ভাবে নেতৃত্ব-সংকটে পড়তে হচ্ছে দলকে, সেই বাস্তব চিত্রের কথাই তুলে ধরেন বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতৃত্ব

তবে ওই সূত্রটিই জানাচ্ছে, সোনিয়া নিরাশ করেছেন তাঁদের। একাধিক জাতীয় সংবাদ মাধ্যমের তরফে এ বিষয়ে সোনিয়ার প্রতিক্রিয়া জানার চেষ্টা হলেও, তা সম্ভব হয়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here