আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে সরকার গঠনের “উজ্জ্বল সম্ভাবনা” কংগ্রেসের: ফিচের রিপোর্ট

0
Congress Bjp list

ওয়েবডেস্ক: আসন্ন সাধারণ নির্বাচনে সরকার গঠনের সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জনের জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি “লড়াই” করতে হবে। অন্য দিকে বিভিন্ন আঞ্চলিক সহযোগী বিরোধী দলগুলির সহায়তায় সরকার গঠনের “উজ্জ্বল সম্ভাবনা” রয়েছে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর। সপ্তদশ লোকসভা ভোটের আগে এমন মতই উঠে এলে আন্তর্জাতিক গবেষণা সংস্থা ফিচ সলিউশনস ম্যাক্রো রিসার্চের পর্যবেক্ষণে।

ফিচের ওই পর্যবেক্ষণে জানানো হয়েছে, শুধু বিজেপি নয়, দেশের কোনো জাতীয় রাজনৈতিক দলের একার পক্ষেই আগামী সপ্তদশ লোকসভা গঠন সম্ভব নয়। এ ব্যাপারে মুখ্য ভূমিকা নেবে বিভিন্ন আঞ্চলিক দলগুলিই। তবে সাম্প্রতিক পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা ভোটের ফলাফল ঘোষণার পর দেখা গিয়েছে, আঞ্চলিক দলগুলিকে একত্রিত করে কেন্দ্রে সরকার গঠনে অনেকটাই এগিয়ে রয়েছে জাতীয় কংগ্রেস। এবং কংগ্রেসের সেই সম্ভাবনার দিকটি উজ্জ্বল হতেই অন্যান্য আঞ্চলিক দলগুলিও তাদের সঙ্গে সহমত পোষণ করছে।

বৃহস্পতিবার ফিচের তরফে বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছে, আমরা সমস্ত সম্ভাবনাপূর্ণ দিকগুলিকে পর্যবেক্ষণ করে এই সিদ্ধান্তে এসেছি যে, আগামী ভোটে বিজেপির নেতৃত্বাধীন সরকার গঠিত হওয়ার সম্ভাবনাও রয়েছে। তবে রাহুল গান্ধীর অধিনায়কত্বে কংগ্রেসের পক্ষে জোট সরকার গড়ার পথও প্রশস্ত হয়েছে।

এর কারণ হিসাবে ফিচের মত, দেশের কৃষকদের জন্য একাধিক ইতিবাচক কিছু পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে ভোট পূর্ববর্তী বাজেটে। ফলে বিজেপির দিক থেকে মুখ ঘুরিয়ে নেওয়া কৃষক সম্প্রদায়ের একাংশ তুষ্ট বর্তমান সরকারের উপর। অন্য দিকে সাম্প্রতিক পুলওয়ামা হামলার পর জাতীয়তাবাদী চিন্তাভাবনার বিস্ফোরণ বিজেপির পালে হাওয়া জোগাচ্ছে। তবুও সংসদে সংখ্যাগরিষ্টতা থেকে অনেকটাই দূরে থেকে যেতে পারে বিজেপি। সে ক্ষেত্রে তাদেরও সহযোগিতা নিতে হবে অন্যান্য দলগুলির। ইতি মধ্যেই মহারাষ্ট্রের শিবসেনার মতো দল বিরোধিতা ছেড়ে ফের বিজেপির হাত শক্ত করেছে।

[ আরও পড়ুন: সিপিএমের অনমনীয় মনোভাবে ৩ কেন্দ্রে পৃথক প্রার্থী দেওয়ার প্রস্তুতি ফরওয়ার্ড ব্লকে ]

কিন্তু মাস দুয়েক আগেই কংগ্রেস যে প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছিল, তার সুফল উঠে আসতে পারে রাহুল গান্ধীর হাতে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.