Facebook

ওয়েবডেস্ক: ফেসবুক কর্তৃপক্ষের কাছে বিশেষ আবেদন পাঠাল জাতীয় নির্বাচন কমিশন। সূত্রের খবর, নির্বাচনের ৪৮ ঘণ্টা আগে ফেসবুকে যে কোনো ধরনের রাজনৈতিক পোস্ট ব্লক করার আবেদন জানানো হয়েছে কেন্দ্রীয় নির্বাচনী সংস্থার তরফে। যদিও ফেসবুক কর্তৃপক্ষের তরফে এখনও পর্যন্ত কোনো প্রত্যুত্তর মেলেনি বলে জানা গিয়েছে।

গত ৪ জুন আয়োজিত নির্বাচন কমিশনের একটি উচ্চপর্যায়ের বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। বলা হয়ে জনপ্রতিনিধিত্ব আইন ১৯৫১-এর ১২৬ নম্বর ধারায় এই ধরনের উদ্যোগ কার্যকরী করতে ফেসবুকের প্রতিনিধির কাছে বিষয়টি তুলে ধরা হয়। তাঁরা জানান, বিশেষ পদ্ধতি অবলম্বন করলে ওই ধরনের রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত বিজ্ঞাপনধর্মী পোস্ট ব্লক করা সম্ভব। তবে পুরো বিষয়টিই ফেসবুক কর্তৃপক্ষের বিবেচনাধীন।

ফেসবুক ইতিমধ্যেই সামাজিক পরিমণ্ডলে অবাঞ্ছিত পোস্ট ব্লক করে থাকে। সে ক্ষেত্রে যে বিশেষ পদ্ধতি অবলম্বন করা হয়, সে রকম ভাবেই নির্বাচন কমিশনের আবেদনের বিষয়টি নিয়ে তারা চিন্তাভাবনা করতে পারে। এ ক্ষেত্রে ব্যবহৃত গ্লোবাল কমিউনিটি স্ট্যান্ডার্ডের পর্যবেক্ষণ পদ্ধতিতে কোনো বিভ্রান্তিকর বা আপত্তিজনক পোস্ট ব্লক অথবা রিমুভ করা হয়ে থাকে। তবে রাজনৈতিক বিজ্ঞাপনধর্মী পোস্টের রিভিউ বা ঝাড়াই-বাছাইয়ের ক্ষেত্রে নতুন কী পন্থা অবলম্বন করা যায়, সে বিষয়েই চিন্তাভাবনা করছে ফেসবুক।

ফেসবুকের প্রতিনিধি জানিয়েছেন, নির্বাচন কমিশন তাঁদের কাছে এই সংক্রান্ত আবেদন জানিয়েছে। নির্বাচনের ৪৮ ঘণ্টা আগে যে কোনো রাজনৈতিক বিজ্ঞাপনধর্মী পোস্ট ব্লক করা বা নির্বাচনী বিজ্ঞাপনে ব্যয় করা অর্থের পুঙ্খানুপুঙ্খ পরিসংখ্যান সংগ্রহ করার বিষয়টি তাঁরা খতিয়ে দেখছেন।

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here